রবিবার ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

করোনাকালে জন্মহার নাটকীয়ভাবে বেড়েছে

করোনাকালে জন্মহার নাটকীয়ভাবে বেড়েছে
  • গবেষণা প্রতিবেদন

করোনা মহামারীর মধ্যেই বিশ্বে নাটকীয়ভাবে জন্মহার বেড়েছে। ফলে প্রসূতিপূর্ব স্বাস্থ্য সেবার দিকে আরও নজর দেয়া উচিত গবেষকরা জানিয়েছেন। তা না হলে এ অবস্থা নতুন আশঙ্কার কারণ হয়ে উঠতে পারে। জন্মহার নিয়ে করা নতুন এই গবেষণায় দেখা গেছে, করোনা মহামারী শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত সারাবিশ্বে গর্ভধারণ অনেকাংশে বাড়লেও গর্ভবস্থায় শিশু মৃত্যুহার কিন্তু অব্যাহতই রয়েছে। নেপালের নয় হাসপাতালে প্রসব সংক্রান্ত বিষয়ে আগত ২০ হাজারেরও বেশি প্রসূতিকে নিয়ে গবেষণাটি করা হয়েছে। এটি সম্প্রতি দ্য ল্যানসেন্ট গ্লোবাল হেলথ জার্নালে প্রকাশ হয়েছে। গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আশীষ কে.সি. এবং তার সহকর্মীরা। গবেষকরা জানিয়েছেন, কিছু দেশে প্রসূতি নারীদের যতটা যতœ-আত্তি দরকার তাদের প্রতি আসলে ততটা সেবা-যতœ নেয়া হয় না। তবে এসব নারীর প্রতি সেবা-যতœ কম নেয়ার কারণ হিসেবে তারা বিভিন্ন দেশে লকডাউনের ফলে সৃষ্ট সীমাবদ্ধতা ও ভঙ্গুর স্বাস্থ্য অবস্থাকেই দায়ী করেছেন।

তারা জানিয়েছেন, জন্মহার বৃদ্ধির পেছনে এসব সীমাবদ্ধা ও সঙ্কটও দায়ী। অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় সমুদ্র উপকূলীয় শহর এডিলিয়াডির ‘দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া ইউনিভার্সিটি’র প্রসূতিতন্ত্র বিভাগের বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক জেনি ওয়ারল্যান্ড জন্মহার বৃদ্ধির বিষয়ে বলতে গিয়ে প্রশ্ন রাখেন, ‘আমরা যখন কোভিড-১৯ থেকে গর্ভবতী নারীদের রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা করছি, ঠিক তখন আমরা কী করলাম যে, জন্মহার এভাবে অপ্রত্যাশিতভাবে বৃদ্ধি পেল?’ গবেষণায় দেখা গেছে, চলতি বছর মার্চের শেষের দিকে করোনাভাইরাস মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর নেপালে লকডাউন দেয়া হয়। দেখা গেছে, সেখানে লকডাউনের আগে জন্মহার ছিল হাজারে ১৪ শতাংশ, তবে পরে মে’র শেষে এসে সে অবস্থা দাঁড়ায় হাজারে ২১ শতাংশ। অর্থাৎ প্রায় ৫০ শতাংশ জন্মহার বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশটিতে লকডাউনের প্রথম চার সপ্তাহে জনগণকে শুধু নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়ের জন্য বাসার বাইরে যেতে দিতে অনুমোদন দেয়া হতো।

অধ্যাপক আশীষ কে.সি.’র নেতৃত্বে পরিচালিত গবেষণায় দেখা যায়, করোনার সময়ে জন্মহার তুলনামূলক বৃদ্ধি পেলেও অন্য সব উপাদান অনেকটাই অপরিবর্তিত রয়েছে। তাতে দেখা গেছে, হাসপাতালে প্রতি সপ্তাহে আগে যেখানে ছয় শ’ ৫১ শিশু জন্ম নিত, লকডাউনের মধ্যে সেখানে এক হাজার দুই শ’ ৬১ শিশু জন্ম নিয়েছে। তবে এমনটা হওয়ার পেছনে আর কি কারণ থাকতে পারে গবেষকরা তা এখনও খতিয়ে দেখছেন। অধ্যাপক আশীষ কে.সি. জানান, কোভিড-১৯’র কারণেই এমনটা হয়েছে তা আসলে ঠিক নয়, তবে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনার একটি নেপথ্য প্রভাব থাকতে পারে। তিনি আরও জানান, অনেকেই করোনার ভয়ে হাসপাতাল যেয়ে সেবা নেননি। আশীষ কে.সি. বলেন, ‘নেপাল স্বাস্থ্য সেবায় গত ২০ বছরের চেয়ে অনেক উন্নতি করেছে।’ কিন্তু গত কয়েক মাসে এ সেবার মান পড়ে গেছে বলেও তিনি জানান। -নেচার জার্নাল অবলম্বনে।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩২৭৯৪৪০৭
আক্রান্ত
৩৫৭৮৭৩
সুস্থ
২৪১৯৩২৯৩
সুস্থ
২৬৮৭৭৭
শীর্ষ সংবাদ:
সবার সুরক্ষা চাই ॥ করোনা সঙ্কট উত্তরণে বহুপাক্ষিকতাবাদের বিকল্প নেই         সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে গণধর্ষণ         পুলিশে শুদ্ধি অভিযান         প্রধান আসামি মিজান সাত দিনের রিমান্ডে         কয়েক মাসেও হয়ত জানা যাবে না জয়ী কে ॥ ট্রাম্প         কঠিন শর্তের বেড়াজালে সিঙ্গাপুরগামী যাত্রীরা         দেশে করোনা রোগী শনাক্ত কমেছে         শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কর্মসূচী         কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার নির্মাণে দুর্নীতির প্রমাণ         গণফোরাম ভেঙ্গেই গেল ॥ ২৬ ডিসেম্বর এক পক্ষের কাউন্সিল         রূপপুর আবাসন প্রকল্পের আসবাবপত্র কেনা হচ্ছে অস্বাভাবিক দামে         বিনা খরচে আইনী সহায়তা পেলেন ৫ লাখের বেশি দরিদ্র অসচ্ছল মানুষ         পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে ‘রিকভারি প্ল্যান’         বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে করোনা ভাইরাসের সনদ নেয়া ৩২ জনকে রেখে গেল সাউদিয়া         পাবনা-৪ আসনে ৭৫ কেন্দ্রের বেসরকারী ফলাফলে আওয়ামীলীগের নুরুজ্জামানের জয়         সবার সুরক্ষা চাই ॥ বিশ্বসভায় প্রধানমন্ত্রী         সোমবার প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ১০ টিভিতে ‘হাসিনা: অ্যা ডটারস টেল’         ভাঙলো গণফোরাম ॥ ২৬ ডিসেম্বর কাউন্সিলের ঘোষণা সাইয়িদ-মন্টু পক্ষের         ডোপ টেস্ট পজিটিভ হওয়ায় ২৬ পুলিশ সদস্যকে চাকরিচ্যুত করা হবে-ডিএমপি কমিশনার         করোনা ভাইরাসে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১১০৬