শনিবার ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ফাল্গুনের আগেই ফুলে ফুলে ভরে উঠেছে বাগান

ফাল্গুনের আগেই  ফুলে ফুলে ভরে  উঠেছে বাগান
  • রঙের মেলা রমনায়

মোরসালিন মিজান ॥ শীতের রুক্ষতা ক্রমে দূর হচ্ছে। সবুজ-সতেজ চেহারায় ফিরতে শুরু করেছে রমনা পার্ক। গাছে শুকনো পাতা যেমন দেখা যাচ্ছে তেমনি উঁকি দিচ্ছে নতুন কচিপাতা। নানা জাতের ফুলে ভরে উঠছে বাগান। রঙিন হয়ে ধরা দিচ্ছে চারপাশ। সব দেখে বোঝা হয়ে যায়, ফাল্গুন আসছে।

বসন্ত বাতাসে সইগো বসন্ত বাতাসে/বন্ধুর বাড়ির ফুলের গন্ধ আমার বাড়ি আসে...। রমনাজুড়ে এখন বসন্তের বাতাস। ইতোমধ্যে মাঘের প্রায় অর্ধেক সময় গত হয়েছে। বাকিটুকু দেখতে দেখতে চলে যাবে। প্রকৃতি সে হিসাব রাখে বৈকি। এ কারণেই হয়ত শুরু গেছে প্রস্তুতি।

উদ্যানের মোট আয়তন ৬৮দশমিক ৫একর। পুরোটাই গাছগাছালি। অসংখ্য প্রজাতির বৃক্ষ। তবে শীতকালটা বৃষ্টিহীন থাকে। জলের অভাবে সবুজ কিছুটা ম্লান হয়ে যায়। পাতা ঝরতে থাকে। তবে এখন ফাল্গুন আসি আসি করছে। বইতে শুরু করেছে বসন্তের হাওয়া। এর প্রভাবে গাছে গাছে দেখা দিচ্ছে নতুন পত্রপল্লব। দ্রুতই ফুটতে শুরু করেছে ফুল। উদ্যানের অপেক্ষাকৃত ফাঁকা জায়গাগুলোতে মৌসুমি ফুলের বাগান করা হয়েছে। গোলাপ, গাঁদা, চন্দ্রমল্লিকা, জার্বেরা, ডালিয়া, সূর্যমুখী, স্যালভিয়া ইত্যাদি ফুলের গাছ ভূমিভাগের খুব কাছাকাছি থেকে নিজেদের মেলে ধরেছে।

একেক ফুলের একেকটি বাগান। কোনটিতে শুধুই চন্দ্রমল্লিকা। বড় বড় ফুলের ভারে গাছের উপরিভাগ কিছুটা নুইয়ে এসেছে। তাই নরম কা-ের সঙ্গে সরু খুঁটি জুড়ে দেয়া হয়েছে। একই ফুলের কোনটি

সাদা, হলুদ, বেগুনি কিংবা গোলাপি। জার্বেরাও চন্দ্রমল্লিকার মতো কিছুটা। লাল, হলুদ, কমলা, সাদা, গোলাপি, বেগুনি ইত্যাদি রঙের ফুলে দারুণ সেজেছে রমনা।

আছে হরেক জাতের গোলাপ। একাধিক গোলাপ বাগানে সদ্য ফোটা ফুল। কিছু ফুল। কিছু এখনও কলি। ফোটার অপেক্ষা করে আছে।

বসন্তের রংটাকে বিশেষভাবে ধারণ করে গাঁদা ফুল। কোনটি হলুদ দেখতে। কোনটি কমলা রঙের। দূর থেকে দেখলে মনে হয় রঙের ফোয়ারা। বাসন্তী রঙে আগমনী ঘোষণা করছে ঋতুরাজ। গাঁদা ফুলের কাঁচা ঘ্রাণটাও টানছে খুব। স্যালভিয়া ফুলের রঙটা শুধু লাল নয়। গাড় লাল। মাটি থেকে সামান্য উঁচুতে ফুটে আছে। গাছ দেখা যায় না। পুরোটাই ফুলেল মনে হয়। অসংখ্য ফুল পাশাপাশি ফুটে আছে। অনেকদূর থেকে চোখ যায়। সঙ্গত কারণেই আকর্ষণ করে।

জারুল, সোনাপাতি, কামিনী ইত্যাদি গাছেও ফুল ফুটেছে। এগুলো ঠিক বাগানের ফুল নয়। অপেক্ষাকৃত বড় গাছ। রমনার বিভিন্ন অংশে দেখা যাচ্ছে হলুদ সোনাপাতি। কড়া হলুদ রঙে ঢাকা পড়েছে পার্কের সবুজ। জারুলও কয়েকটি রঙে নিজেকে প্রকাশ করছে। ফুল উপহার দিয়েছে দীর্ঘ আকৃতির পথতরু নাগেশ্বর। ধবধবে সাদা ফুল। মাঝখানে সোনালি রঙের একথোকা পরাগ কেশর। সুন্দর দেখতে।

আর পলাশের কথা তো না বললেই নয়। এরই মাঝে ফুলটি ফুটেছে। থোকা থোকা গাঢ় লাল ফুলে ফাগুনের আগুন!

আরও অনেক ফুল ফুটে আছে রমনায়। পার্কের দর্শনার্থীরা এ সৌন্দর্য বেশ উপভোগ করছেন। গাঁদা ফুলের বাগানের সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলছিলেন রিহাব ও সুমি। দুই বন্ধু পার্কে বেড়াতে এসেছিলেন। ফুল দেখে যারপরনাই মুগ্ধ তারা। রিহাব বলছিলেন, গাঁদা ফুলটা এখন কম দেখা যায়। দোকানে আছে। বাগানে তেমন দেখা যায় না। এখানে দেখে খুব ভাল লাগল। বসন্ত যে আসছে, মনে পড়ে গেল। একইভাবে সুমি বলছিলেন, সাধারণত পহেলা ফাল্গুনে গাঁদা ফুলের মালা খোঁপায় পরি। এখানে এত ফুল দেখে আর তড় সইছে না। কিন্তু ফুল তো ছেঁড়া বারণ। তাই পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলছেন বলে জানান তিনি।

এদিকে, ফুল নয় শুধু, মৌমাছিরাও ছোটাছুটি শুরু করে দিয়েছে। গুনগুন করে গান গাইছে তারা। এ গানেও যে বসন্তের সুর, সে তো বলাই বাহুল্য।

পাখিদের ডাকাডাকিও বেড়েছে। বেড়েছ বলেই মনে হয়। আড়ালে থেকে ডেকে যাচ্ছে ওরা। হয়ত ডাকছে আপনাকেই। বসন্তের প্রস্তুতিটা দেখতে চান? ঘুরে আসুন সবুজের রাজ্য থেকে। ফুলেদের, পাখিদের রমনায় আগেভাগেই এসেছে বসন্ত। দেখে আসুন।

শীর্ষ সংবাদ:
চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন         নোয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত         আড়াই লাখের বেশি বাংলাদেশীকে ফেরত পাঠাতে পারে কুয়েত         করোনা ভাইরাসে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে মানবিক হওয়ার আহ্বান         যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিপাকে         রাষ্ট্রপতির ভাই করোনায় আক্রান্ত ॥ ভর্তি সিএমএইচে         নতুন রোগ মাল্টিসিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম বাংলাদেশে         করোনা কেড়ে নিল আরডিএ মহাপরিচালকের প্রাণ         করোনায় ব্রাজিলে মৃত্যু ৭০ হাজার ছাড়াল         একদিনে এর আগে বিশ্বে এত মানুষ আক্রান্ত হয়নি         ৯ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিল এমিরেটস         ডব্লিইএইচও’র টিআইএমবি বোর্ড সদস্য হলেন সেজুঁতি         ফ্রান্সে নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ চেয়ে নারীদের বিক্ষোভ         সিঙ্গাপুর নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের নিরঙ্কুশ জয়         তুরস্কের হাজিয়া সোফিয়ায় ৮৬ বছর পর আজানের ধ্বনি         সিরিয়ায় মানবিক সাহায্য প্রদানে চীন-রাশিয়ার ভেটো         আলোচনায় না বসে সুযোগ হাতছাড়া করছে ইরান ॥ ব্রায়ান হুক         সোলাইমানি নিয়ে জাতিসংঘের রিপোর্টে আমেরিকা অপমানিত হয়েছে ॥ পম্পেও         লিবিয়ায় সামরিক হস্তক্ষেপের হুমকি দিলেন সিসি ॥ ত্রিপোলির জবাব        
//--BID Records