রবিবার ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

উত্তরপ্রদেশের মতোই গুলি করে মারা উচিত ॥ দিলীপ ঘোষ

উত্তরপ্রদেশের মতোই গুলি করে মারা উচিত ॥ দিলীপ ঘোষ
  • সরকারী সম্পত্তি ভাঙচুর

অনলাইন ডেস্ক ॥ ঠিক যেভাবে উত্তরপ্রদেশে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের নামে গুণ্ডামি তথা সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর বন্ধে গুলি করে মারা হয়েছে, ঠিক সেভাবেই এ রাজ্যেও কড়া পদক্ষেপ করা উচিত, বললেন পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ । যাঁরা এভাবে জনগণের সম্পত্তি নষ্ট করছে তাঁদের গুলি করে মারা উচিত বলে বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গের নদিয়া জেলায় একটি জনসভায় বক্তব্য রাখার সময় দিলীপ ঘোষ রাজ্যে আন্দোলনের নামে ভাঙচুরের ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। গত ডিসেম্বরে "নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় বিক্ষোভ চলাকালীন রেলের সম্পত্তি ও গণপরিবহনে ভাঙচুরের ঘটনার বিরুদ্ধে" মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন লাঠিচার্জ ও গুলি চালানোর আদেশ দেননি তা নিয়ে তৃণমূল নেত্রীর তীব্র সমালোচনা করেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি ।

"ওগুলো কি ওঁদের বাবার সম্পত্তি? কীভাবে ওঁরা করদাতাদের টাকায় নির্মিত সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করতে পারেন?", আন্দোলনের নামে সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুরের ঘটনায় রীতিমতো ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন দিলীপ ঘোষ।

পাশাপাশি ওই বিজেপি নেতা আরও বলেন যে, "উত্তরপ্রদেশ, অসম ও কর্ণাটকের সরকার এই দেশবিরোধী পদক্ষেপ আটকাতে গুলি চালিয়ে একদম ঠিক কাজ করেছিল।"

ওই সভামঞ্চ থেকে তিনি এও দাবি করেন যে দেশে ২ কোটি ‘মুসলিম অনুপ্রবেশকারী' রয়েছে। তাঁদের মধ্যে "শুধু পশ্চিমবঙ্গেই রয়েছে এক কোটি মুসলিম অনুপ্রবেশকারী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওঁদের রক্ষা করার চেষ্টা করছেন", এভাবেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধলেন দিলীপ ঘোষ। যে বা যাঁরা হিন্দু বাঙালিদের স্বার্থরক্ষার বিরুদ্ধে কথা বলছেন তাঁদের চিনে রাখার জন্যেও রাজ্যের মানুষের প্রতি আহ্বান জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

এদিকে আজই সোমবার সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসির বিরোধিতায় বৈঠকে বসছে কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধী দলগুলি। যদিও জানা গেছে ওই বৈঠকে থাকছেন না তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সারা দেশে বিক্ষোভ চলছে। বিশেষত কলেজ ক্যাম্পাসে এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতে এই প্রথমবার নাগরিকত্ব আইনে ধর্মকে নাগরিক হওয়ার মাপকাঠি করা হয়েছে। সরকারের দাবি, এই আইনের ফলে, ২০১৫ এর আগে, ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে চলে আসা তিন মুসলিম অধ্যুষিত দেশের সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার পথ সহজ হবে । কিন্তু সমালোচকদের দাবি, এই আইনটি মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিভাজনমূলক এবং তা সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষতাকে লঙ্ঘন করে।

শীর্ষ সংবাদ:
নারীপাচার চক্রের হোতা আজম দুই সহযোগীসহ গ্রেফতার         টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা ইয়াবা পাচারকারী নিহত         নিম্ন আদালতের সব কোর্টে আত্মসমর্পণ করা যাবে         বোলসোনারোর স্ত্রী ও দুই মেয়ের করোনা ভাইরাসের ফল নেগেটিভ         ঢাকায় ভারতের নতুন রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন বিক্রম দোরাইস্বামী         করোনা ভাইরাস ॥ লেজিসলেটিভ সচিব সস্ত্রীক আক্রান্ত         প্রথমবারের মত মাস্ক পড়ে প্রকাশ্যে ট্রাম্প         তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালে ক্যানসিনোর করোনা ভাইরাসের টিকা         অস্ত্র-গোলাবারুদ নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় চার্চে হামলা, নিহত ৫         নিষেধাজ্ঞার মূল্য দিতে হবে ॥ ব্রিটেনকে উত্তর কোরিয়া         আসছে ভয়াবহ বন্যা         বনানীতে মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন         টেন্ডারবাজিতে ৫০ কোটি টাকা হাতিয়েছেন সাহেদ         ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু শনাক্ত ২৬৮৬         বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের গতি নিম্নমুখী         করোনায় অনলাইনে জমজমাট কোরবানির পশুর হাট         বাংলাদেশ থেকে ফ্লাইট ও যাত্রী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত নিষিদ্ধ করেনি ইতালি         স্কুল ফিডিংয়ের খাবার করোনাকালে যাবে শিক্ষার্থীদের বাড়ি         ইতিহাসের বৃহত্তম ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন শেখ হাসিনা ॥ তথ্যমন্ত্রী         টেন্ডার জটিলতায় থমকে গেছে ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্যক্রম        
//--BID Records