ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

জয় দিয়েই শুরু সেরেনার

প্রকাশিত: ০৪:১৭, ৩১ মে ২০১৮

জয় দিয়েই শুরু সেরেনার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবশেষে গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টের কোর্টে ফিরলেন সেরেনা উইলিয়ামস। তবে সমর্থকদের হতাশ করেননি তিনি। জয় দিয়েই গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টের মিশন শুরু করলেন আমেরিকান টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি। মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে আমেরিকান টেনিসের কৃঞ্চকলি ৭-৬ (৭/৪) এবং ৬-৪ গেমে পরাজিত করেন চেক প্রজাতন্ত্রের প্রতিভাবান খেলোয়াড় ক্রিস্টিনা পিসকোভাকে। সেরেনা উইলিয়ামস ছাড়াও এদিন জয়ের স্বাদ পেয়েছেন রাশিয়ান টেনিসের গ্ল্যামারগার্ল মারিয়া শারাপোভা, জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবার, অস্ট্রেলিয়ার সামান্থা স্টোসার, ফ্রান্সের ক্যারোলিন গার্সিয়া, হল্যান্ডের কিকি বার্টেন্স, অস্ট্রিয়ার এ্যাশলে বার্টি এবং স্প্যানিশ টেনিস তারকা গারবিন মুগুরুজা। গত বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সর্বশেষ অংশ নিয়েছিলেন সেরেনা উইলিয়ামস। সে সময়ই অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন তিনি। গত সেপ্টেম্বরে প্রথম কন্যা সন্তান জন্ম দেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের এই সাবেক নম্বর ওয়ান। সন্তান জন্মের পর এটাই তার প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ। তবে এদিন সমর্থকদের সামনে একটু ভিন্নরূপে আবির্ভূত হন সেরেনা উইলিয়ামস। কালো পোশাক পরিধান করে খেলতে নেমেছিলেন সেরেনা। সাধারণত যোদ্ধারা যে পোশাকে লড়াইয়ে নামে। ২৩ গ্র্যান্ডস্লামের মালিক সেরেনা উইলিয়ামস এমন পোশাকে স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গেই খেলেছেন। ঠিক একজন যোদ্ধার মতো। এ প্রসঙ্গে সেরেনা বলেন, ‘পোশাক পরিধান করার পর মনে হচ্ছে আমিই যোদ্ধা। ওয়াকান্ডার একজন রানির মতোই লাগে।’ এ সময় সেরেনা উইলিয়ামস এই পোশাকের রেফারেন্স হিসেবে ‘ব্ল্যাক প্যান্থার’ ছবির নাম উল্লেখ করেছেন। শুধু সেরেনা উইলিয়ামস নন, দীর্ঘ সময় পর এই টুর্নামেন্টে একত্রে অংশগ্রহণ করেন রাশিয়ান টেনিসের গ্ল্যামারগার্ল মারিয়া শারাপোভা আর বেলারুশ সুন্দরী ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাও। তবে দুর্ভাগ্য আজারেঙ্কার। টুর্নামেন্টের প্রথমপর্ব থেকেই ছিটকে গেছেন দুইবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ী এই টেনিস তারকা। সোমবার ফরাসী ওপেনের প্রথমদিনই লজ্জাজনকভাবে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েন আজারেঙ্কা। তবে সেরেনার মতো জয় দিয়েই রোলাঁ গ্যাঁরোর মিশন শুরু করেছেন শারাপোভা। ২০১৫ সালের পর মাশার এটাই ফরাসী ওপেনে প্রথম অংশগ্রহণ। কঠিন লড়াইয়ের পর মঙ্গলবার দ্বিতীয়পর্বে জায়গা করে নেন তিনি। টুর্নামেন্টের ২৮তম বাছাই হিসেবে খেলতে নেমে শারাপোভা ৬-১, ৪-৬ এবং ৬-৩ গেমে পরাজিত করেন হল্যান্ডের অখ্যাত রাইকেল হোগেনক্যাম্পকে। ম্যাচের শেষে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে শারাপোভা বলেন, ‘গ্র্যান্ডস্লামে খেলার এবং জয়ের চ্যালেঞ্জ নিতে আমার খুব ভাল লাগে। আমি বলতে চাচ্ছি পুরো সপ্তাহ জুড়েই এখানে বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন প্রতিযোগীদের সঙ্গে খেলব আমরা। এখানকার আবহাওয়া, পরিস্থিতিও ভিন্ন ভিন্ন। এখানে স্বাভাবিকভাবেই তাই উত্থান-পতন থাকবে। বিভিন্ন ম্যাচের শেষে অনুভূতিগুলোও ভিন্ন ভিন্ন। এই চ্যালেঞ্জগুলো নিতে আমার সত্যিই ভাল লাগে। দেখা যাক, কিভাবে আমি এখানে নিজের আলো জ্বালাতে পারি।’ জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবার প্রথমপর্বের ম্যাচে এদিন মুখোমুখি হয়েছিলেন তারই স্বদেশী মোনা বার্থেলের। তবে এদিন তিনি ৬-২ এবং ৬-৩ গেমে খুব সহজেই হারিয়েছিলেন বার্থেলকে। দুটি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী কারবার ২০১৬ সালে টেনিস কোর্টে রীতিমতো ঝড় তুলেছিলেন। কিন্তু পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেননি তিনি। চলতি মৌসুমে তাই স্বরূপে ফিরতে মরিয়া সাবেক এই শীর্ষ তারকা। এছাড়াও ফ্রেঞ্চ ওপেনের অন্য ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সামান্থা স্টোসার মঙ্গলবার প্রথমপর্বের ম্যাচে ৬-২ এবং ৬-৪ গেমে হারান বেলজিয়ামের ইয়ানিনা উইকমায়েরকে। স্পেনের গারবিন মুগুরুজা ৭-৬, ৬-২ গেমে পরাজিত করেন রাশিয়ার সবেতলনা কুজনেতসোভাকে। এছাড়া ফ্রান্সের সপ্তম বাছাই ক্যারোলিন গার্সিয়া ৬-১ এবং ৬-০ গেমে রীতিমতো উড়িয়েই দেন চীনের ডুয়ান ইং ইংকে।