রবিবার ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অনিবন্ধিত শরণার্থী বহিষ্কারের উদ্যোগ ট্রাম্প প্রশাসনের

  • বাতিল হচ্ছে ড্রিমার্স প্রোগ্রাম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনালড ট্রাম্প দেশটিতে বসবাসরত হাজার হাজার অনিবন্ধিত শরণার্থীর সন্তানদের বহিষ্কারের পথ সুগম করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এই উদ্দেশ্যে তিনি বাতিল করতে চলেছেন ‘ড্রিমার্স’ নামে একটি জনপ্রিয় কর্মসূচীর। কর্মসূচীটি বাতিল করার হলেও এর ছয় মাসের জন্য এর বাস্তবায়ন স্থগিত থাকবে বলে রবিবার পলিটিকো সাময়িকী জানিয়েছে। এএফপি।

যে কর্মসূচী বলে অনিবন্ধিত শরণার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রে বহিষ্কার এড়াতে পারছে সেটি বাতিলের পরিকল্পনা তৈরি করতে কংগ্রেসকে বলা হয়েছে বলে অনলাইন সংবাদ পোর্টাল পলিটিকো জানিয়েছে। ড্রিমার্স নামে পরিচিত কর্মসূচীটি অনেক রিপাবলিকানও সমর্থন করেন। ট্রাম্প প্রশাসন শরণার্র্থীদের গ্রেস পিরিয়ড পার হওয়ার আগেই কর্মসূচীটি প্রতিস্থাপন করতে চায়। মঙ্গলবার ট্রাম্পের সিদ্ধান্তটি ঘোষণার কথা রয়েছে। তবে তিনি এরই মধ্যে মনস্থির করে ফেলেছেন বলে পলিটিকো জানিয়েছে। হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা রবিবার বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করেছেন। ডিএসিএ (ডেফার্ড এ্যাকশন অন চাইল্ডহুড এ্যারাইভাল) নামে কর্মসূচীটি এর আগে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ২০১২ সালে চালু করেছিলেন।

এর ফলে বয়স ১৬ বছর হওয়ার আগে যারা অভিবাসী হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছে তারা বহিষ্কার এড়াতে পেরেছে। লেখাপড়া অথবা কাজ এর কোন একটি ভিত্তি করে তারা দুবছর যুক্তরাষ্ট্রে তাকার সুযোগ পেয়েছে, এই দুই বছর তাদের জন্য গ্রেস পিরিয়ড যা নবায়ন করার সুযোগ তারা পেয়েছে।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় থেকেই ট্রাম্প অভিবাসী বিরোধী বক্তব্য দিয়ে এসেছেন। নির্বাচনে জিতে দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনি এ বিষয়ে কিছুটা নমনীয় হয়েছেন। পলিটিকো জানিয়েছে, এ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস কংগ্রেসকে দিয়ে ডিমার্স কর্মসূচী বাতিলের কাজটি করার জন্য ট্রাম্পকে পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি চেয়েছেন অভিবাসী আইনের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি আইনের পরিবর্তন নির্বাহী আদেশে না হয়ে কংগ্রেসের মাধ্যমে হোক। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পীকার রিপাবলিকান দলীয় পল রায়ান অবশ্য কর্মসূচীটির পক্ষে। শুক্রবার একটি রেডিওকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, এই শিশু কিশোরগুলোর অন্য কোন দেশ নেই। তারা শৈশবে বাবা-মায়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিল। এদের যাওয়ার অন্য কোন জায়গা নাই।

এ কারণে এ বিষয়ে নির্দিষ্ট আইন থাকা প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান সদস্য এবং সিসকো, ইবে, ফেসবুক, ম্যারিয়ট ও মাইক্রোসফটের মতো বৃহৎ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা হোয়াইট হাউসের উদ্দেশে লেখা যৌথ চিঠিতে কর্মসূচীটি বাতিল না করার অনুরোধ করেছেন। তারা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, আইনটি পরিবর্তন করা হয়ে অর্থনীতির ওপর এর বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে।

শীর্ষ সংবাদ:
ইন্দোনেশিয়ায় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে ১৩ জনের মৃত্যু         ‘সামাজিক সমতা-ন্যায়বিচারই শান্তি প্রতিষ্ঠার মূল ভিত্তি’         ইউক্রেনের বিষয়ে বাইডেন ও পুতিন ভিডিও বৈঠক মঙ্গলবার         গণতন্ত্রের মানসপুত্র সোহরাওয়ার্দীর ৫৮তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ         বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু হয়নি         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু কমেছে প্রায় দেড় হাজার         অবিশ্বাস্য অর্জন ॥ বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল         বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে ঐক্য চাই         বঙ্গবন্ধুর শাসনব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করুন         ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার         শক্তি হারিয়ে জাওয়াদ গভীর নিম্নচাপে পরিণত         সড়কে অনিয়মের বিরুদ্ধে লাল কার্ড প্রদর্শন শিক্ষার্থীদের         এলডিসি উত্তরণে ১০ বছরের মাস্টারপ্ল্যান         উন্নয়নে পাকিস্তান আমাদের ধারে কাছেও নেই         আমদানির জ্বালানি তেল আর লাইটারিং করতে হবে না         পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা রাজধানীর ৮০ ভাগ ভবনে নেই         চট্টগ্রামে অটোরিক্সা-ডেমু ট্রেন-বাস সংঘর্ষে পুলিশসহ হত ৩         খালেদাকে বিদেশ নিতে কূটনৈতিক পাড়ায় বিএনপির দৌড়ঝাঁপ         আন্দোলনেই খালেদার বিদেশে চিকিৎসা নিশ্চিত করা হবে         বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় ঐক্যের বিকল্প নেই ॥ রাষ্ট্রপতি