সোমবার ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দুর্গম পাহাড়ে সৌর বিদ্যুত কেন্দ্র বসাচ্ছে সরকার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দুর্গম পাহাড়ের এবার রাতে ঘরে ঘরে জ্বলবে বিদ্যুতের আলো। গ্রিডের বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দেয়া সম্ভব নয় এমন এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম বসাবে বিদ্যুত বিভাগ। এজন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটি পৃথক প্রকল্প গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলায় এমন অনেক দুর্গম এলাকা রয়েছে যেখানে জাতীয় গ্রিডের বিদ্যুত পৌঁছে দেয়া কঠিন। এসব এলাকায় বিদ্যুত পৌঁছে দিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় আগে থেকে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ করছে। কিন্তু বিদ্যুত বিভাগ সারাদেশের সকল মানুষের কাছে ২০২১ এর মধ্যে বিদ্যুত পৌঁছে দেয়ার অঙ্গীকার করেছে। সেখানে পার্বত্য এলাকা অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে।

সম্প্রতি বিদ্যুত বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পরিকল্পনা) রহমত উল্লাহ মোঃ দস্তগীরের সভাপতিত্বে সাম্প্রতিক এক বৈঠকে পার্বত্য এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম বসানোর প্রকল্প গ্রহণের মতামত দেয়া হয়। এতে বলা হয়, সোলার হোম সিস্টেম বসানোর প্রকল্পে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) কারিগরি সহায়তা দেবে। এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সোলার হোম সিস্টেম বসানোর যে প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে সেখানে বিদ্যুত বিভাগের প্রতিনিধিকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

বিদ্যুত বিভাগ সূত্র জানায়, যেসব এলাকায় গ্রিড পৌঁছানো সম্ভব নয় সেখানে মিনি গ্রিডে সৌরবিদ্যুত উৎপাদন করা হচ্ছে। রাতের নির্দিষ্ট সময় ব্যাটারিতে ধরে রাখা বিদ্যুত সরবরাহ করা হয়। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রাম এক্ষেত্রে ভিন্ন রকমের। এখানে পাহাড়ের ওপর মানুষের বসতি। আবার একটি পাহাড় থেকে আরেকটি পাহাড়ের দূরত্বও অনেক। কাজেই এখানে মিনি গ্রিড নির্মাণ করাও বাস্তবসম্মত নয়। এখানে বিকল্প হতে পাসে সোলার হোম সিস্টেম।

বিদ্যুত বিভাগ বলছে বিদ্যুতের আলো মানুষের জীবনমান বদলে দেয়। সারাদেশের যেসব এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম বসানো হয়েছে সেসব জায়গার মানুষের শিক্ষার হার বৃদ্ধির সঙ্গে জনস্বাস্থ্য, জন্ম নিয়ন্ত্রণসহ অন্যান্য সূচক বৃদ্ধি পেয়েছে।

সরকার এর মধ্যেই বিদ্যুতবিহীন এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম বিনামূল্যে বিতরণ করেছে। সারাদেশে এখন ৬০ লাখের উপরে সোলার হোম সিস্টেম বসানো হয়েছে। তবে সমতলে ক্রমান্বয়ে গ্রিডের আওতা বৃদ্ধি পাওয়ায় সোলার হোম সিস্টমের প্রয়োজন কমে আসছে।

জানা গেছে, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একটি পৃথক প্রকল্প রয়েছে। পৃথক প্রকল্পটিতেও পাহাড়ের ঘরে ঘরে সোলার হোম সিস্টেম বসানো হচ্ছে। দুটি প্রকল্প বাস্তবায়নে যাতে কোন সমস্যা সৃষ্টি না হয় এ জন্য প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বিদ্যুত বিভাগের প্রতিনিধিকে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় দেশের তিন পার্বত্য জেলার ২৬ উপজেলায় ৫শ’ কোটি টাকার একটি প্রকল্প রয়েছে। এতে আগামী ৫ বছরে এক লাখ ঘরে সৌর বিদ্যুতের আলো পৌঁছাবে। তবে প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে আরও বেশি হবে বলে ধারণা করছে বিদ্যুত বিভাগ।

বিদ্যুত বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, এখনও পর্যন্ত তারা সমীক্ষা করেননি এই অঞ্চলের কোন কোন জায়গাতে একেবারেই গ্রিডের বিদ্যুত পৌঁছানো সম্ভব নয়। এর মধ্যেই বান্দরবানের থানচি দুর্গম হলেও সেখানে গ্রিড নির্মাণ করা হয়েছে। এভাবে যেখানে গ্রিড নির্মাণ করা সম্ভব সেখানে নির্মাণ করা হবে। অন্য সব এলাকায় হোম সিস্টেম বসানো হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
উন্নয়নের কান্ডারি শেখ হাসিনার জন্মদিন আজ         এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আর নেই         শেখ হাসিনার জীবন সংগ্রামের ॥ তথ্যমন্ত্রী         স্বামীর জন্য রক্ত জোগাড়ের কথা বলে ধর্ষণ, দুজন রিমান্ডে         ডোপ টেস্টে আরও ১৪ পুলিশ শনাক্ত         চীনা ভ্যাকসিনের ঢাকা ট্রায়াল নিয়ে সংশয়         দেয়াল চাপায় সাত জনের মৃত্যু         করোনায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে নতুন রোগী         অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক         অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আর নেই         উন্নয়নে প্রতিবেশীদের সঙ্গে আরও দৃঢ় সহযোগিতায় জোর প্রধানমন্ত্রীর         সিলেটের ঘটনায় সরকার কঠোর অবস্থানে আছে ॥ কাদের         ভার্চুয়াল কোর্টেকে আরো সাফল্য মন্ডিত করতে বিচারক ও আইনজীবীদের প্রশিক্ষণ প্রয়োজন ॥ আইনমন্ত্রী         নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণ ॥ নিহত ও আহত ৩৮ পরিবারের মাঝে ৫ লাখ টাকা করে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান বিতরণ         স্বাস্থ্যখাতের দুর্নীতি ॥ বন্ধ করতে দুদকের ২৫ সুপারিশ বাস্তবায়নে রিট         ‘অক্সফোর্ডের বাংলাদেশে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত হয়েছে’         এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূর আদালতে জবানবন্দি         এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ ॥ সাইফুরের পর অর্জুন গ্রেফতার         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে সংক্রমণ ৬০ লাখ ছুঁই ছুঁই         ধর্ষনের ঘটনায় ভিপি নূরসহ সকল আসামী ঢাবিতে অবাঞ্চিত