শুক্রবার ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

রাজশাহী শহরে এসেই জঙ্গিবাদে জড়ায় রাশেদ

রাজশাহী শহরে এসেই জঙ্গিবাদে জড়ায় রাশেদ

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ গুলশান হামলার মূল পরিকল্পনাকারীদের অন্যতম আসলাম হোসাইন ওরফে মোহন ওরফে রাশেদুল ইসলাম রাশেদ ওরফে ‘জঙ্গি র্যাশ’ প্রায় দেড় বছর ধরে নিখোঁজ ছিলো। গত বছরের ১১ রমজান (জুন মাস) থেকে সে নিখোঁজ হন। চিকিৎসক হওয়ার ইচ্ছা নিয়ে রাজশাহী শহরে লেখাপড়া করতে আসা জঙ্গি আসলাম ওরফে র্যাশ শুক্রবার ভোরে নাটোরের সিংড়া থেকে গ্রেফতার হয়। তার বাবা আব্দুস সালামও নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় তিন বছর ধরে বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী নাসিমা বেগম।

আব্দুস সালামের বাড়ি নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গ্রামে। পেশায় ঠিকাদার আব্দুস সালামের এক ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে আসলাম হোসাইন ছোট। ৭/৮ বছর আগে আব্দুস সালাম পরিবারসহ রাজশাহীর পবা উপজেলার বড়গাছি ইউনিয়নের মথুরা নওদাপাড়া গ্রামে শশুরবাড়ি সেকেন্দার আলীর বাড়িতে চলে আসেন। তিন বছর আগে নওগাঁর আদালতে সাড়ে ৩ লাখ টাকার একটি চেক জালিয়াতির মামলায় সালামের এক বছর সাজা হয়। এর পর থেকে সে নিখোঁজ ছিলো। তার সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের কারও যোগাযোগ নেয় বলে জানান সালামের স্ত্রী নাসিমা বেগম।

তিনি বলেন, আসলাম কাঞ্চনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণী পাস করে নানার বাড়িতে চলে আসে। রাজশাহীর পবার নওহাটা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সে জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি পাস করে। এর পর সে রাজশাহী শহরের একটি বে-সরকারি প্যারামেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়। পরে আসলাম ভর্তি হন রাজশাহী মডেল স্কুল এন্ড কলেজে। গত বছর তার এইচএসসি পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু আসলাম এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল কিনা তা বলতে পারেননি তার মা নাসিমা বেগম।

তিনি বলেন, আসলাম রাজশাহী নগরীর একটি ছাত্রবাসে থাকতো। গত বছর রোজার শুরুতেই আসলামকে নগরের লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া কাদের মন্ডলের মোড়ে তার খালার বাসায় রেখে আসা হয়। সেখান থেকে গত বছরের ১১ রমজান আসলাম নিখোঁজ হন। এর পর তার সঙ্গে আমাদের আর যোগাযোগ হয়নি। আসলাম একদিন ফিরে আসনে এ আশায় ছিলাম। তাই থানায় জিডি করা হয়নি বলে জানান নাসিমা বেগম।

নাম না জানিয়ে তার এক খালা বলেন, আসলাম মাঝে মধ্যেই বাড়িতে আসতো। সবাইকে নামাজ পড়ার কথা বলতো। কেউ নামাজ না পড়লে তার উপর রাগারাগি করতো। তিনি আরও বলেন, আসলাম চিকিৎসক হতে চেয়েছিল। সে বলতো খালা আমি একদিন ডাক্তার হয়ে এসে তোমাদের চিকিৎসা করবো। চিকিৎসার জন্য তোমাদের কারও কাছে যেতে হবে না। এই ছেলে যে জঙ্গি হয়ে যেতে পারে তা আমরা বিশ^াস করতে পারছিনা।

আসলামের এক মামা মোহাম্মাদ সেন্টু বলেন, রাজশাহী শহরে ভর্তি হয়ে ছাত্রাবাসে থাকতো আসলাম। সেখান থেকে সে জঙ্গি কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে পরিবারের সদস্যরা আসলামকে তার খালার বাসায় রেখে এসেছিলো। কিন্তু সেখানে রেখেও তাকে রক্ষা করা যায়নি। কয়েকদিন পর সে খালার বাড়িতে চলে গিয়ে সেখান থেকেই নিখোঁজ হয়।

শীর্ষ সংবাদ:
ফটিকছড়িতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক         দিনাজপুরে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টায় কাজী কারাগারে, বরের জরিমানা         রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় মোটরসাইকেল আরোহীকে গুলি করে আহত         আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে ফিরলেই নিজ খরচে কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক         মানুষকে আগামী বহু বছর ধরে কোভিডের টিকা নেবার প্রয়োজন হতে পারে ॥ ড. বুর্লা         মুন্সীগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ ভাই-বোন নিহত ॥ মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বাবা-মা         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৭ হাজার ৪২ জন         ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ॥ আমিনবাজারে ছয় ছাত্র হত্যা         যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত         এইচএসসি পরীক্ষা শুরু, ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী         ১৬ ডিসেম্বর শপথ করাবেন শেখ হাসিনা         আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা         প্রয়োজনে ফের বন্ধ হতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ॥ দীপু মনি         কোটি কোটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যের বই         যানজটে বাজেটের ২০ শতাংশ ক্ষতি হচ্ছে         পাহাড় ও সমতলের ব্যবধান ক্রমেই কমছে         এবার বন্দুকযুদ্ধে প্রধান আসামি নিহত         খালেদাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে দেয়া হোক ॥ ফখরুল         একটি মহল শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে ফায়দা লুটতে চায়         ময়লার ট্রাকের ধাক্কায় এবার বৃদ্ধা আহত, চালাচ্ছিল হেলপার