ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

আফ্রিদির গায়ে বসন্তের সমীরণ

প্রকাশিত: ০৬:৪৬, ২১ মে ২০১৫

আফ্রিদির গায়ে বসন্তের সমীরণ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বসন্তের অপর নাম ফুল-পাখি-রোমান্স। না নতুন করে প্রেমে পড়েননি ‘ক্রেজি’ শহীদ আফ্রিদি। ৩৫ বছর বয়সী তুখোড় অলরাউন্ডারের মনে বইছে ক্রিকেটের-বসন্ত। দীর্ঘ প্রায় ছয় বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। রাত পোহালে জিম্বাবুইয়ের সঙ্গে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর তথা পাকিস্তান জুড়ে ‘অন্য আমেজ’। টি২০ অধিনায়ক যেটিকে তুলনা করেছেন বসন্তের সঙ্গে। খুশিতে আত্মহারা আফ্রিদি বলেছেন, ক্রিকেট পাগল পাকিস্তানীদের জন্য সময়টা এখন ‘বসন্ত’। ‘দীর্ঘ অর্ধযুগ পর পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরতে দেখে আমি দারুণ খুশি। যেন ছয়-শরত পেরিয়ে আজ বসন্ত এসেছে। সত্যি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।’ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন আধুনিক পাকিস্তান ক্রিকেটের শেষ স্বীকৃত তারকা আফ্রিদি। অতিথি জিম্বাবুইয়ের প্রশংসা করে তিনি আরও যোগ করেন, ‘জিম্বাবুইয়ে দলের সাহস প্রশংসা করার মতো। তারা অধীর হয়ে থাকা পাকিস্তানী ভক্তদের জন্য আনন্দের উপলক্ষ্য বয়ে এনেছেন। আমাদের দেশের মানুষ বহুদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য অপেক্ষ করে আসছে। সে আশা পূরণ হতে যাচ্ছে।’ ২০০৯ সালের মার্চে লাহোরে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দলের ওপর ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা হয়। পুলিশ সদস্য ও বাস ড্রাইভারসহ কয়েকজন নিহত হন। আহত হন একাধিক লঙ্কান ক্রিকেটার। এরপর থেকে কোন বিদেশী দল আর পাকিস্তান সফর করেনি। একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকা-ে এক পা এগোলে দুই-পা পিছিয়েছে বিদেশী দলগুলো। জিম্বাবুইয়ের সফর নিয়েও নাটকীয়তা কম হয়নি। তবে শেষ পর্যন্ত সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ‘আফ্রিকার লিলিপুটরা’ এখন পাকিস্তানের মাটিতে। বৃহস্পতিবার প্রথম টি২০ দিয়ে অবসান হতে যাচ্ছে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রত্যাবর্তনে অপেক্ষার পালা। বিশ্বকাপ খেলে ওয়ানডেকে বিদায় জানিয়েছেন মিসবাহ-উল হক এবং শহীদ আফ্রিদি। সদ্যসমাপ্ত বাংলাদেশ সফর দিয়ে ওয়ানডের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আজহার আলিকে। ঘরের মাটিতে আন্তর্জাতিক ম্যাচ নিয়ে তিনিও খুশিতে আত্মহারা। আজহার বলেন, ‘আমার দারুণ আনন্দ লাগছে। দেশের মাটিতে আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরে এসেছে, এর চেয়ে খুশির খবর কি হতে পারে। তার ওপর ওয়ানডে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়ার পর জন্মভূমিতে খেলতে পারছি। জিম্বাবুইয়ে দলকে ধন্যবাদ।’ দুটি টি২০ শেষে আজহারের নেতৃত্বে তিন ম্যাচের ওয়ানডে। নিরাপত্তার খাতিরে সব ম্যাচই হবে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে। সাবেক তারকা শোয়েব আখতার খুশি হলেও, নির্বিঘেœ আয়োজন শেষ হওয়ার অপেক্ষায় তিনি। শোয়েব বলেন, ‘প্রথমত জিম্বাবুইয়ে যার করেছে সেটি খুবই মহৎ কাজ। ওরা সব রকমের ঝুঁকি নিয়ে এসেছে। এজন্য ধন্যবাদ। আমি ব্যক্তিগতভাবে জিম্বাবুইয়ের কাছে কৃতজ্ঞ। প্রশাসনের কাছে বলব, ওদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে। আমি চাইব সিরিজটা ভাল ভালয় শেষ হোক। এর ওপরে দেশের মাটিতে আমাদের ক্রিকেটের ভবিষ্যত নির্ভর করছে।’ জিম্বাবুইয়ে ক্রিকেটারদের জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছেন লাহোর প্রশাসন। নিñিদ্র নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বিমানবন্দর থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মল রোডের পাঁচতারা হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। ইউরোপ-আমেরিকার রাষ্ট্রনায়কদের যে ধরনের নিরাপত্তা দেয়া হয়, ঠিক সেভাবেই ঘিরে রাখা হয় ‘টিম জিম্বাবুইয়েকে’! তাদের গাড়ির সামনে পেছনে কনভয় করা ছিল পাকিস্তান পুলিশবাহিনীর ‘এলিট ফোর্স’, পাশাপাশি শত্রু শনাক্তকারী উচ্চপ্রযুক্তি। ক্রিকেটার ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন জিম্বাবুইয়ে প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান সরকারের কাছ থেকে নিরাপত্তার শতভাগ নিশ্চয়তা পেয়েই আমরা দল পাঠিয়েছি। তবু ছেলেদের জন্য এটা এক নতুন অভিজ্ঞতা। আশা করছি সবকিছু ভাল কাটবে। তারা দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনবে।’ এমন যুদ্ধ-প্রস্তুতির সদৃশ নিরাপত্তা খেলোয়াড়দের জন্য আসলেই যে নতুন অভিজ্ঞতা, সেটি স্বীকার করেছেন অতিথি অধিনায়ক এলটান চিগম্বুরাও।
monarchmart
monarchmart