সোমবার ৫ মাঘ ১৪২৭, ১৮ জানুয়ারী ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

উপকূলের ভূমি সুরক্ষায় স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি

  • ঘূর্ণিঝড় ’৯১ স্মরণ ও উপকূলীয় ভূমি সুরক্ষা শীর্ষক সেমিনার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাস বিষয়ক এক সেমিনারে বক্তারা বলেছেন, প্রতিবছর উপকূলের বেড়িবাঁধ ভাঙ্গে। বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে সরকারের বিপুল পরিমাণ অর্থও খরচ হয়। অথচ বেড়িবাঁধের ঢালে ভূমিহীনদের পুনর্বাসন করলে তারা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সেই বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণ করতে পারে। ফলে জলোচ্ছ্বাস ও লবণাক্ত পানির অনুপ্রবেশ রোধ সম্ভব হবে। রাজনৈতিক সদিচ্ছার মাধ্যমে বৃহত্তর স্বার্থে এই সমন্বয় দরকার। উপকূলীয় এলাকার ভূমি সুরক্ষায় স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করার দাবি জানিয়ে ওই সেমিনারে ১৯৯১ সালের ২৯ এপ্রিল প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের ভয়ঙ্কর দুঃসহ স্মৃতি স্মরণ করা হয়।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘ঘূর্ণিঝড় ’৯১ স্মরণ ও উপকূলীয় ভূমি সুরক্ষা’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব দাবি জানান। ঘূর্ণিঝড় ৯১ স্মরণ উদযাপন কমিটির ব্যানারে ওই সেমিনারের আয়োজক সংগঠনগুলো হলো আইএসডিই, ইপসা, উদয়ন বাংলাদেশ, এমএমসি, এসডিএস, কোস্ট ট্রাস্ট, গ্রামীণ জনউন্নয়ন সংস্থা, ডাক দিয়ে যাই, ডোক্যাপ, দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থা, নলসিটি মডেল সোসাইটি, পালস, পিরোজপুর গণউন্নয়ন সংস্থা, প্রাণ, প্রান্তজন, সংকল্প ট্রাস্ট, সংগ্রাম, সিডিপি, স্পিড ট্রাস্ট এবং হিউম্যানিটি ওয়াচ।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন বলেন, বেড়িবাঁধের ভেতরে যে খাল থাকে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা অবহেলায় হাজামজা হয়ে যায়। ফলে বাঁধের ভেতর পাশে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়।

কোস্ট ট্রাস্টের সৈয়দ আমিনুল হক বলেন, প্রতিবছর বেড়িবাঁধ মেরামতের নামে বিপুল টাকা খরচ না করে স্থায়ীভাবে ভৌগোলিক বাস্তবতা বিবেচনায় কার্যকর বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে।

ডিজাস্টার ফোরামের সাধারণ সম্পাদক নইম গওহর ওয়ারা বলেন, উপকূলের ভূমি রক্ষার জন্য শুধু বেড়িবাঁধ নির্মাণ বা গাছ লাগানোর মতো বিচ্ছিন্ন উদ্যোগ যথেষ্ট নয়। এর জন্য একটি সমন্বিত জাতীয় উপকূল ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা দরকার।

ওই সেমিনারে শওকত আলী টুটুল মূল বক্তব্য উপস্থাপনকালে ভোলা ও কক্সবাজার জেলার গত ২ বছরের মানুষের ভোগান্তি ও দুর্দশার চিত্র এবং পাশাপাশি স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী সুপারিশ তুলে ধরেন।

শীর্ষ সংবাদ:
২৫ জানুয়ারি করোনা ভাইরাসের টিকা আসবে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী         ফেব্রুয়ারিতে মুক্তিযোদ্ধাদের খসড়া তালিকা প্রকাশ         ওয়াজ-মাহফিলে গ্রন্থের রেফারেন্স বাধ্যতামূলক চেয়ে আইনি নোটিশ         গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে করা মামলার প্রতিবেদন ১৮ ফেব্রুয়ারি         সাতসকালে বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী স্বামী-স্ত্রী নিহত         রাশিয়া ফিরেই আটক বিরোধীদলীয় নেতা নাভালনি         করোনা ভাইরাস ॥ শনাক্তের সংখ্যা ৯ কোটি ৫৪ লাখ ছাড়িয়েছে         সুইডেনের ডাকটিকিটে গ্রেটা থানবার্গ         সাড়ে ১০ ঘণ্টা পর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ফেরি চলাচল শুরু         এ বছর সীমান্ত খোলার সম্ভাবনা নেই অস্ট্রেলিয়ায়         রুখবে সাইবার ক্রাইম ॥ বিশ্বে সিকিউরিটি সার্ভিস প্রোভাইডিং হাব হবে বাংলাদেশ         বিজয়ের ইতিহাস মনে রাখার মতো আরও ছবি চাই         বঙ্গভ্যাক্সের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের অনুমতি চেয়ে আবেদন         সেচ ব্যবস্থার উন্নয়নে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে         সন্তানদের সামনে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন         দু হাজার ৭শ’ কোটি টাকার নতুন দুটি প্রণোদনা প্যাকেজ         দেশে করোনায় আরও ২৩ জনের মৃত্যু         নতুন বছরের প্রথম সংসদ অধিবেশন আজ শুরু         বাইডেন আমলে ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক আরও জোরদার হবে ॥ মিলার         কর্মচারীদের বেতন দিতে না পারলে পৌরসভা পরিষদ বাতিল