ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সঙ্গে সাধারণ মানুষ

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে নবনির্বাচিত মন্ত্রী-এমপিদের ভিড়

নিজস্ব সংবাদদতা, গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ২১:৩৯, ১৭ জানুয়ারি ২০২৪

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে নবনির্বাচিত মন্ত্রী-এমপিদের ভিড়

টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিতে মানুষের ঢল

টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে নব-নির্বাচিত মন্ত্রী-এমপিসহ সাধারণ মানুষের ঢল নেমেছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ নতুন মন্ত্রী-পরিষদের পক্ষ থেকে জাতির পিতাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে ফিরে যাওয়ার পর প্রতিনিয়ত বঙ্গবন্ধু মাজারে মানুষের সমাগম বাড়ছে। গত তিনদিনে দেশের বিভিন্ন জেলার নির্বাচিত সংসদ-সদস্যগণ তাদের স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী দলে দলে বাস ভরে তারা ভিড় জমাচ্ছেন টুঙ্গীপাড়ায়। আর ফুল দিয়ে তারা শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন তাদের নেতা বঙ্গবন্ধুর প্রতি।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টুঙ্গীপাড়ায় যান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। জাতির পিতার সমাধিবেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি সেখানে জাতির পিতাসহ ১৫-আগস্টে নিহত পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনায় পবিত্র ফাতেহাপাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করেন। পরে তিনি বঙ্গবন্ধু মাজার কমপ্লেক্স ঘুরে দেখেন।

এ সময় পারমাণবিক নিরাপত্তা ও ভৌত সুরক্ষা সেলের (এনএসপিসি) প্রধান সমন্বয়ক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ইরফানুল ইসলাম খান, বিপিএসআইআর এর চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. শেখ আফতাব আলী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মুনীর চৌধুরী, রূপপুর প্রকল্পের প্রকল্প-পরিচালক ড. শৌকত আকবর, বায়রার চেয়ারম্যান ড. মোজাম্মেল এবং তথ্য ও প্রযুক্তি বিজ্ঞানী এসরার ওসমানসহ বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। 
এর পরপরই সেখানে জাতির পিতার সমাধিবেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান নওগাঁ-৩ আসনের সংসদ সদস্য সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্ত্তী। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি সেখানে ১৫-আগস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু ও পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনা করেন। এ সময় তার পরিবার ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মী সেখানে উপস্থিত ছিলেন। 
এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ঢাকা-১৪ আসনের নব-নির্বাচিত এমপি বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মো. মঈনুল আহসান নিখিল। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর পবিত্র ফাতেহাপাঠ ও বিশেষ মোনাজাত শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন, বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাবা-মা ভাই হারিয়ে অত্যন্ত দৃঢ়তা, সততা ও মানবিকতার সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া বাংলাদেশকে ছবির ন্যায় সাজিয়েছেন। ঢাকা-১৪ আসনটিও প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের হাতের ছোঁয়া থেকে বাইরে নয়। বঙ্গবন্ধু-কন্যা নিজেই সারা বাংলাদেশটাকে মাথায় রেখেছেন এবং সে অনুসারে তিনি জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন।
একইদিনে দুপুরে দলীয় ও সহযোগী সংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মী নিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ-সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক মো. খসরু চৌধুরী। পরে সেখানে বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনায় ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাত শেষে তিনি বলেছেন, জাতির পিতার বলিষ্ঠ নেতৃত্বই বাঙালিকে দিয়েছে নিজেদের রাষ্ট্র। তার কারণেই বাঙালিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারেনি; ভবিষ্যতেও পারবে না। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

আমরা যেদিকে তাকাই সেদিকে দেখি উন্নয়নের ছোঁয়া। এটা মমতাময়ী মা শেখ হাসিনার অবদান। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ হবে এশিয়ার সেরা দেশ। এ সময় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মফিজ উদ্দিন বেপারী, যুগ্ম সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, রাজৈর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী, খিলক্ষেত থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কেরামত আলী দেওয়ান, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর আফসার উদ্দিন খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মো. নাসির উদ্দিন ও জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজসহ ঢাকা-১৮ আসনের আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
এভাবে তীব্র শীত উপেক্ষা করে প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের নির্বাচিত সংসদ-সদস্য ও মন্ত্রীরা তাদের দলীয় নেতাকর্মীসহ যাচ্ছেন টুঙ্গিপাড়ায় এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়ে তার ও পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করছেন। এরপর ঘুরে দেখছেন বঙ্গবন্ধু মাজার এলাকা। তাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন গোপালগঞ্জের নেতাকর্মীরাও।

×