ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

নিখোঁজ মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ মিলল সেপটি ট্যাংকে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ১০:৩১, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩

নিখোঁজ মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ মিলল সেপটি ট্যাংকে

স্থানীয় লোকদের মাদ্রাসার ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল। ছবি: জনকণ্ঠ

মসজিদের সেপটি ট্যাংক থেকে আতিকুল ইসলাম (১১) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রের  লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ১০টার দিকে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলারপাকডাল গ্রামের মসজিদের সেপটি ট্যাংক থেকে বাউফল থানার পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। 

আতিকুল ইসলাম স্থানীয় দারুল উলুম নুরানী হাফেজী ও এতিমখানার হেফজ শ্রেণির ছাত্র।  সে ওই মাদ্রাসায় তিন বছর আগে ভর্তি হন এবং ১৮ পারা কোরআন শরীফ মুখস্ত করেছেন। ওই মসজিদ থেকে মাদ্রাসার দূরত্ব প্রায় ৫ শ মিটার।

আতিকের বাবার নাম  সরেয়ার সরদার। পাশ্ববর্তী বাকেরগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপাশা ইউনিয়নের মধ্য জিড়াইল গ্রামে তার বাড়ি। সে বাবা-মায়ের একমাত্র ছেলে।  আতিক  শুক্রবার ভোর রাত থেকে নিখোঁজ ছিল।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ইসমাইল (১৮) নামের একই প্রতিষ্ঠানের এক শিক্ষার্থীকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। তবে কি কারণে আতিকুল ইসলামকে খুন করা হয়েছে তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

এদিকে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ওই রাতেই কয়েকশ স্থানীয় লোক  মাদ্রাসার ক্যাম্পাসে মিছিল করেছেন এবং মাদ্রাসার জানালার গ্লাস ভাঙচুর করেছেন। 

বাউফল থানার ওসি আরিচুল হক বলেন ,  সেপটি ট্যংক থেকে মাদ্রার ছাত্র আতিকুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তিনি বিস্তারিত বলতে রাজি হননি।

এসআর

×