২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

প্রচ্ছদ – ৭ বিদেশের খবর / ভারতে নাচ থামানোয় নারীর মুখে গুলি ! অনলাইন ডেস্ক ॥ কোথাও ধর্ষণ, কোথাও ধর্ষণ করে খুন। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নারী নির্যাতনের ভয়ঙ্কর ছবি যখন প্রকট আকার ধারণ করেছে ঠিক তখনই আরেকটি ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশে। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে নাচ থামানোর ‘অপরাধে’ নর্তকীর মুখে গুলি চালানো হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটে উত্তরপ্রদেশের চিত্রকুটে। সম্প্রতি এ ঘটনার ভিডিও প্রকাশ হতেই নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওর শুরুতে ওই নর্তকীকে

প্রকাশিত : ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৫১ পি. এম.
প্রচ্ছদ – ৭ বিদেশের খবর /  ভারতে নাচ থামানোয় নারীর মুখে গুলি ! অনলাইন ডেস্ক ॥ কোথাও ধর্ষণ, কোথাও ধর্ষণ করে খুন। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নারী নির্যাতনের ভয়ঙ্কর ছবি যখন প্রকট আকার ধারণ করেছে ঠিক তখনই আরেকটি ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশে। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে নাচ থামানোর ‘অপরাধে’ নর্তকীর মুখে গুলি চালানো হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটে উত্তরপ্রদেশের চিত্রকুটে। সম্প্রতি এ ঘটনার ভিডিও প্রকাশ হতেই নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওর শুরুতে ওই নর্তকীকে

ভারতে নাচ থামানোয় নারীর মুখে গুলি !

অনলাইন ডেস্ক ॥ কোথাও ধর্ষণ, কোথাও ধর্ষণ করে খুন। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নারী নির্যাতনের ভয়ঙ্কর ছবি যখন প্রকট আকার ধারণ করেছে ঠিক তখনই আরেকটি ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশে।

একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে নাচ থামানোর ‘অপরাধে’ নর্তকীর মুখে গুলি চালানো হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটে উত্তরপ্রদেশের চিত্রকুটে। সম্প্রতি এ ঘটনার ভিডিও প্রকাশ হতেই নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওর শুরুতে ওই নর্তকীকে নাচতে দেখা যাচ্ছে। তার এক সঙ্গিনীও নাচছেন পাশেই। কিছুক্ষণ নাচার পর দাঁড়িয়ে যান দুজন। তখন পেছন থেকে এক মত্ত ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, গোলি চাল যায়েগি (গুলি চলবে)। তখন অপর একজন বলেন, সুধীর ভাই আপ গোলি চালাহি দো (দাদা আপনি গুলি চালিয়ে দিন)।

এর পরই পেছন থেকে ওই নর্তকীর মুখে গুলি চালানো হয়। মুখে হাত দিয়ে বসে পড়েন তিনি। ঘটনায় হকচকিয়ে যান সেখানে উপস্থিত সবাই। জানা গেছে, গত রোববার একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ঘটে এমন ঘটনা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ওই গ্রামের প্রধানও।

গুরুতর আহত অবস্থায় ওই নারী বর্তমানে কানপুরের হাসপাতালে ভর্তি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। সিনিয়র পুলিশ অফিসার অঙ্কিত মিত্তল বলেন, আমরা অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছি। অপরাধীকে বিচারের আওতায় আনার চেষ্টা করছি।

প্রকাশিত : ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৫১ পি. এম.

০৭/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: