২৩ নভেম্বর ২০১৯, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

পীরগঞ্জে মোটা অংকের ঘুষের বিনিময়ে ২ আসামীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৫৭ পি. এম.
পীরগঞ্জে মোটা অংকের ঘুষের বিনিময়ে ২ আসামীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ

সংবাদদাতা, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও ॥ পীরগঞ্জ উপজেলার ৭নং হাজীপুর ইউনিয়নের দেহানগর গ্রামে এক বাড়িতে নগদ ৫ লক্ষ টাকা ও ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার স্বর্ণাঙ্কার চুরির মামলার ২ আসামীকে গ্রেফতার করে ১৬ ঘন্টা পর থানা থেকে ছেড়ে দিল ওসি বজলুর রশীদ। এ নিয়ে পীরগঞ্জে বিভিন্ন মহলে পুলিশ সম্পর্কে নানা মন্তব্য চলছে। জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের দেহানগর গ্রামের মৃত দরমিয়ান আলী এর পুত্র মোঃ জয়নাল আবেদীন এর বাড়িতে ১৫/০৯/২০১৯ইং তারিখে নগদ ৫ লক্ষ টাকা ও ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার স্বর্ণাঙ্কার চুরির ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে একান্নপুর গ্রামের মশির উদ্দীন এর পুত্র আজিজুর রহমান ওরফে হাজিরুল (৪২), দিহানগর গ্রামের আবুল হোসেন এর পুত্র মোঃ কাশু (৩৫), আব্দুল মান্নান এর পুত্র মোঃ মুনসুর (৩৫), মৃত মোতলেব এর পুত্র মোঃ বাদল (৪০), মৃত আজিম উদ্দীন এর পুত্র আনসার আলী (৩৫) গণের বিরুদ্ধে পীরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবরে রবিবার রাতে এজাহার দায়ের করেন। এজাহার পাওয়ার পর ঘটনার সত্যতা যাচাই করে থানা অফিসার ইনচার্জ বজলুর রশীদ এর নেতৃত্বে এস.আই রেজাউল ও সঙ্গীয় ফোর্স এজাহার নামীয় ১নং আসামী মোঃ আজিজুর রহমান ওরফে হাজিরুল ও ৫নং আসামী আনসার আলীকে নিজ বাড়ি হইতে গভীর রাতে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত ২ আসামীকে পীরগঞ্জ থানার শ্রীঘরে ১৬ ঘন্টা আটক রাখার পর সোমবার সন্ধ্যায় মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ওই ২ আসামীকে ওসি ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ আখতারুল ইসলাম গ্রেফতারকৃত আসামীদের পক্ষে থানায় সাফাই গেয়ে ও রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে আসামীদেরকে তার জিম্মায় নিয়েছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া বাদীর এজাহারটি থানায় মামলা হিসেবে তালিকাভুক্ত করতে বাদীর সঙ্গে ২০ হাজার টাকা মৌখিক চুক্তি করে ১০ হাজার টাকা নগদ গ্রহণ করেছেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে ওসি বজলুর রশীদ জানান বাদীর এজাহারের সাথে ঘটনার মিল না থাকায় আসামীদের উপজেলা চেয়ারম্যান আখতারুল ইসলামের জিম্মায় দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনা ছাড়াও পীরগঞ্জ থানার ওসির বিরুদ্ধে নীরিহ ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ারও অনেক অভিযোগ রয়েছে। ৯নং সেনগাঁও ইউনিয়নের দস্তমপুর গ্রামের নিরপরাধ আছিয়া বেগমকে গত ১৪ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে ওই দিন রাতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বজলুর রশীদের কর্মকান্ডে বর্তমানে পুলিশ বাহিনীর মারাত্বক ভাবে সুনাম নষ্ট হচ্ছে। বিষয়টি এলাকাবাসী উদ্ধর্তন পুলিশ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৫৭ পি. এম.

১৭/০৯/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: