ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

ফরাসি প্রেসিডেন্টকেও এমবাপের না!

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০১:০৪, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফরাসি প্রেসিডেন্টকেও এমবাপের না!

কিলিয়ান এমবাপে

সময়ের অন্যতম সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপের এবার স্প্যানিশ পরাশক্তি রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র। গুঞ্জন আছে ইতোমধ্যে গ্যালাক্টিকোদের সঙ্গে চুক্তিও হয়ে গেছে ২৫ বছর বয়সী এমবাপের। এর আগে প্রথম যখন রিয়ালে যাওয়ার খবর রটে তখন স্বয়ং ফরাসি প্রেসিডেন্ট স্বদেশী তারকাকে পিএসজিতে থাকতে ভূমিকা রেখেছিলেন। 
এবার আরেকবার যখন প্রিয় তারকার চলে যাওয়া অনেকটাই নিশ্চিত তখন আবারও সামনে হাজির হয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। এর আগে যখন গুঞ্জন ছিল তখন এমবাপেকে বৈঠকে ডেকেছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। সেবার বৈঠকে এসেছিলেন পিএসজির মালিক নাসের আল খেলাইসি, কাতারের আমির তামিম বিন হামাদ আল থানি। সেই বৈঠকের পর দুই বছরের জন্য পিএসজিতে চুক্তি নবায়ন করেছিলেন এমবাপে।

এবার এমবাপে যখন আরও একবার ক্লাব ছাড়তে প্রস্তুত, তখন দৃশ্যপটে হাজির হয়েছে ম্যাক্রো। আরও একবার এমবাপেকে নিমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, কাতার আমিরের প্রথম ফ্রান্স সফর উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেয়েছেন ২০১৮ বিশ্বকাপজয়ী তারকা এমবাপে। 
ফ্রান্স ফুটবল এবং পিএসজি সংক্রান্ত খবরের বিশ্বস্ত মাধ্যম লা প্যারিসিয়ানের মতে, তিনজনের এই বৈঠকে আরও একবার এমবাপের ক্লাব ছাড়া এবং রিয়াল মাদ্রিদে সম্ভাব্য যোগদান বিষয়ে আলাপ হতে পারে। কিছুদিন আগেই ফরাসি তারকা জানিয়েছেন, চলতি মৌসুমের পর ক্লাব ছেড়ে যাবেন তিনি। কিন্তু যতটুকু জানা গেছে, এবার নিজ দেশের প্রেসিডেন্টকেও না করে দিচ্ছেন এমবাপে। ২০১৭ সালে মোনাকো থেকে ধারে পিএসজিতে আসেন এমবাপে। এরপর তাকে পুরোপুরি কিনে নেয় প্যারিসের ক্লাবটি।

এরপর থেকে প্যারিসের পরাশক্তিদের জার্সিতে করেছেন ২৪৪ গোল। হয়েছেন পিএসজির ক্লাব ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা। ফ্রান্সের হয়েও পেয়েছেন সাফল্য। একবার বিশ্বকাপ ও একবার উয়েফা নেশন্স লিগ জয় করেছেন। ২০২২ বিশ্বকাপে রানার্সআপও হয়েছেন। ইতিহাসের প্রথম ও একমাত্র ফুটবলার হিসেবে ফাইনালে চার গোল করার অনন্য কীর্তি গড়েছেন। 
যদিও কাতারের আমির থানির এই ভ্রমণের মূল উদ্দেশ্য ফিলিস্তিনের গাজা অঞ্চলে শান্তি ফেরানোর লক্ষ্যে কূটনৈতিক প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নেয়া। তবে আমিরের সম্মানে আয়োজিত ডিনারে আমন্ত্রিত হয়েছে ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট অনেকেই। যেখানে এমবাপে সবচেয়ে বড় নাম। যদিও ফুটবলের আরও বেশ কিছু তারকা এই অনুষ্ঠানে থাকবেন বলে জানিয়েছে লা প্যারিসিয়ান। কাতারের আমিরের সম্মানে আয়োজিত নৈশভোজের অনুষ্ঠানে থাকতে পারেন পিএসজির মালিক নাসের আল খেলাইফি নিজেও। 
ধারণা করা হচ্ছে, এই বৈঠকে এমবাপেকে পিএসজিতে থাকার জন্য নতুনভাবে অনুরোধ করা হবে। যদিও এরই মাঝে ক্লাবের করা বার্ষিক ১৮৮ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন এমবাপে। তবে প্রেসিডেন্টের অনুরোধ তিনি ফেলবেন কিনা সেটাই দেখার অপেক্ষা। পিএসজি কোচ লুইস এনরিকেও আভাস দিয়েছেন এমবাপে প্যারিস ছাড়তে চলেছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এমবাপেকে ছাড়া আমাদের অভ্যস্ত হয়ে উঠতে হবে।

শীঘ্রই কিংবা পরবর্তীতে এমন কিছু হবেই। আমি ঠিক করব, কখন সে খেলবে বা খেলবে না। সব কোচই খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে এমন সিদ্ধান্ত নেয়। আগামী মৌসুমের জন্য আমি দলকে সর্বোচ্চ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করে তুলতে চাই। আমি চাই পিএসজির শুরুর একাদশের প্রত্যেক খেলোয়াড় ভাববে এটা দারুণ একটা সুযোগ। চলতি মৌসুম এবং পরের মৌসুমের জন্য আমি এটাই চাই।

×