ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

পরবর্তী ম্যাচে ইরানকে হারাতে চান যুক্তরাষ্ট্রের কোচ বেরহল্টার

ইরানের বিরুদ্ধে ফুটবল নিয়ে কোনো রাজনীতি নেই

মো. মামুন রশীদ

প্রকাশিত: ২২:১৬, ২৬ নভেম্বর ২০২২

ইরানের বিরুদ্ধে ফুটবল নিয়ে কোনো রাজনীতি নেই

কোচ গ্রেগ বেরহল্টার

শক্তিশালী ইংল্যান্ডের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে দারুণ আনন্দিত যুক্তরাষ্ট্র। কারণ তারুণ্য নির্ভর দল নিয়ে ফেভারিট ইংলিশদের কাছ থেকে ১ পয়েন্ট ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। আর তাই কোচ গ্রেগ বেরহল্টার বেশ সন্তুষ্ট। ওয়েলসের বিপক্ষেও ড্র করে ১ পয়েন্ট পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে ইরানের বিপক্ষে ম্যাচটি মহাগুরুত্বপূর্ণ তাদের জন্য। দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করতে ওই ম্যাচ জিততেই হবে।

গুরুত্ব অনেক বেড়ে যাওয়ার কারণে ম্যাচটিকে ঘিরে এখন উত্তেজনা তুঙ্গে। দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক পরিস্থিতিও উত্তপ্ত। মধ্যপ্রাচ্যের নানা ইস্যুকে কেন্দ্র করে দুই দেশের সরকার পরস্পরবিরোধী অবস্থানে। এমনকি উপসাগরীয় অঞ্চলে সামরিক মহড়া থেকে শুরু করে যুদ্ধবস্থাসহ তীব্র উত্তেজনাও দেখা গেছে দুই দেশের মধ্যে। কিন্তু কাতার বিশ্বকাপে এমন কিছু ভাবতেই চাইছেন না যুক্তরাষ্ট্রের কোচ বেরহল্টার।
১৯৯৮ বিশ্বকাপে ভূরাজনৈতিক শত্রু দেশ ইরান-যুক্তরাষ্ট্র মুখোমুখি হয়। ম্যাচটিকে ঘিরে ছিল নানাবিধ আলোচনা ও উত্তেজনা। ২-১ গোলের জয় তুলে নেয় সেদিন ইরান। সেই ম্যাচকে অনেকে ‘মাদার অব অল ফুটবল ম্যাচেস’ হিসেবে আথ্যা দেন। ২৪ বছর পর আবার বিশ্বকাপ মঞ্চে মুখোমুখি হবে তারা আগামী মঙ্গলবার। কিন্তু দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক পরিস্থিতি যেমনই থাক যুক্তরাষ্ট্রের কোচ দাবি করেছেন কোনোভাবেই তা ফুটবলে প্রবেশ করবে না।

বেরহল্টার বলেছেন, ‘আমি ভিন্ন ভিন্ন ৩ দেশে খেলেছি এবং আমি সুইডেনে কোচিং করিয়েছি। ফুটবল হচ্ছে এমন বিষয় যেখানে সারা বিশ্ব থেকে আপনার বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে এবং সবাই খেলাটির প্রতি একই ভালোবাসায় পারস্পরিক বন্ধনে আবদ্ধ হবে। আমি ধারণা করছি ম্যাচটির মধ্যে অনেক উত্তাপ থাকবে কারণ উভয় দলই চাইবে জিতে পরবর্তী রাউন্ডে পৌঁছুতে।

তবে রাজনীতি কিংবা দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের কারণে এখানে কোন উত্তেজনা থাকার কারণ নেই। আমরা ফুটবল খেলোয়াড় এবং আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যাচ্ছি, তারাও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে নামবে এটাই আসল কথা।’ বেরহল্টার অবশ্য মানছেন এই ম্যাচে মরণপণ খেলতে হবে দলকে এবং এটি চলতি বিশ্বকাপে প্রথম ‘নক আউট’ ম্যাচ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য।
তিনি বলেন, ‘আমরা জিতব নয়তো বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাব- এটাই আমাদের দলকে প্রস্তুত করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় মনোযোগ থাকবে। কিন্তু আমাদের সবার বিষয়টা বোঝা জরুরি যে, ইরান কি কঠিনভাবে আসবে। আমরা যদি এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ নিতে চাই, তাহলে অবশ্যই নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে হবে।’
এই মুহূর্তে ‘বি’ গ্রুপে যুক্তরাষ্ট্র দুই ম্যাচ ড্র করে ২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। ইরান এক জয়, এক হারে ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে। ৪ পয়েন্ট নিয়ে শক্তিশালী ইংল্যান্ড শীর্ষে থেকে সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে। ১ পয়েন্ট পাওয়া ওয়েলস শেষ ম্যাচে ইংলিশদের হারাতে পারলে তাদেরও সুযোগ থাকবে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার। তবে যুক্তরাষ্ট্র যদি ইরানকে হারাতে পারে তাদেরই বেশি সম্ভাবনা দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার।

বেরহল্টার বলেন, ‘বিশ্বকাপে আপনি যখনই আসবেন এবং শেষ ম্যাচে ভাগ্য নিয়ন্ত্রকের অবস্থা হয় সেটা বেশ চমৎকার ব্যাপার হয়ে যায়। এরকম ম্যাচ (ইংল্যান্ডের বিপক্ষে) যদি ভালো খেলতে না পারেন তাহলে মানুষের জন্য কষ্টকর এটা নিয়ে ভালো কিছু ভাবনায় আনা। আমরা এখনো শেষ করিনি, আমরা সামনে এগিয়ে যাওয়া অব্যাহত রাখতে চাই।’ দলের অধিনায়ক টাইলার এডামসও জানিয়েছেন দলের ছেলেরা ততক্ষণ পর্যন্ত অবিরাম দৌড়ায় এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে যতক্ষণ পর্যন্ত আর দৌড়াতে পারে না।

monarchmart
monarchmart