ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

নেইমারকে ছাড়া চ্যালেঞ্জ ব্রাজিলের

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৫৬, ২১ জুন ২০২৪

নেইমারকে ছাড়া চ্যালেঞ্জ ব্রাজিলের

ভিনিসিয়াস-এনড্রিক জুটির ওপর নির্ভর করছে ব্রাজিলের কোপা আমেরিকার সাফল্য

বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবল টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকার পর্দা উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এবারের ৪৮তম আসরে ফুটবলপাগল দেশ ব্রাজিল অন্যতম ফেভারিট। কিন্তু নেইমার-কাসেমিরোদের বাদে সাম্বা ছন্দের দেশ কেমন করবে সেটা বিরাট এক প্রশ্ন। এবারের আসরে ‘ডি’ গ্রুপে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ব্রাজিল। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে ও কোস্টারিকা। আগামী মঙ্গলবার সকাল ৭টায় কোস্টারিকার বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে মিশন শুরু করবে পেলের দেশ।

নেইমার না থাকলেও এবারের আসরে ব্রাজিলের ভালো সম্ভাবনা আছে বলে মন্তব্য করেছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ১৯১৬ সালে শুরু হওয়া শতবর্ষী পুরনো কোপা আমেরিকায় সবচেয়ে বেশি সাফল্য পেয়েছে উরুগুয়ে ও আর্জেন্টিনা। দু’দলই শিরোপা জিতেছে ১৫ বার করে। ৯ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ব্রাজিল। অনেকেরই প্রশ্ন জাগতে পারে সর্বকালের সেরা দল ব্রাজিলের শিরোপা কম কেন? ব্রাজিল ১৯৭০ এর আগে কোপার ১০টি আসরে অংশগ্রহণ করেনি। সে সময় ব্রাজিল পেলের হাত ধরে ৩টি বিশ্বকাপ জয় করে।

আর সেই ১০ আসরের বেশিরভাগই আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে বাজিমাত করে নিয়েছিল। ব্রাজিলিয়ানরা ফুটবলে খায়, ঘুমায় এবং জীবনধারণ করে। বেশ আগে এমন একটা কথা বলেছিলেন ফুটবল সম্রাট পেলে। সেই ব্রাজিলই কি না সাম্প্রতিক সময়ে পায়ের নিচে একটু মাটির জন্য মাথা কুটে মরেছে। কোচ নিয়োগ নিয়ে টানাপড়েন এবং দলের ভেতরকার সমন্বয়হীনতা কোণঠাসা করে দিয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। বিশ্বকাপের ব্যর্থতার পর লম্বা সময় পর্যন্ত দলটি অপেক্ষা করে ছিল কার্লো আনচেলোত্তির।

ইতালিয়ান কোচের রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ব্রাজিলে আসা একপর্যায়ে সময়ের ব্যাপার বলেও মনে হচ্ছিল। বলা হয়েছিল, কোপার ঠিক আগমুহূর্তে ব্রাজিল দলের দায়িত্ব নেবেন আনচেলোত্তি। কিন্তু সেখানেও বড় ধাক্কা খায় তারা। ব্রাজিলে বোর্ডে চলমান বিতর্কের জেরে নিজের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে রিয়ালেই থেকে যান আনচেলোত্তি। ফলে ভারপ্রাপ্ত কোচ অধ্যায়ের ইতি ঘটিয়ে ব্রাজিলকে তাকাতে হয় পূর্ণাঙ্গ কোচের দিকে। যে ধারাবাহিকতায় তারা নিয়োগ দিয়েছে ডরিভাল জুনিয়রকে।
ডরিভাল আসার আগের চিত্রটা অবশ্য ছিল ভয়াবহ। প্রীতি ম্যাচে মরক্কোর মতো দলের কাছে হারের পর বিশ্বকাপ বাছাইয়ে টানা তিন ম্যাচে হারে ব্রাজিল। যা বিশ্বকাপ বাছাইয়ে তাদের নামিয়ে দিয়েছে ৬ নম্বরে। এখনো সেই অবস্থানেই আছে দলটি। ব্রাজিলের জন্য পরিস্থিত আরও খারাপ হয় দলের অন্যতম সেরা তারকা নেইমার চোটে পড়ে লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে গেলে। তাকে বাদ দিয়েই এখন কোপা আমেরিকায় খেলতে হচ্ছে দলটিকে।

এত সব খারাপ সংবাদের মাঝে ব্রাজিলের জন্য আশার বাতিঘর হয়ে আসেন ডরিভাল। মাত্র চার ম্যাচে ডাগআউটে দাঁড়ানো ডরিভালকে নিয়ে রায় দেওয়ার সময় এখনো আসেনি। হয়তো কোপা আমেরিকা দিয়েই তার সামর্থ্যরে ধারণা পাওয়া যাবে। কিন্তু এর মধ্যে কিছুটা হলেও দলকে উজ্জীবিত করতে পেরেছেন তিনি। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের সমন্বয়ে চেষ্টা করছেন দলটিকে এটি আকার দেওয়ার। তার অধীনে খেলা চার ম্যাচে ব্রাজিল পুরনো সময়ের কিছু ঝলকও দেখিয়েছে।

×