ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

সাত নজির গড়ল শাহরুখের পাঠান

প্রকাশিত: ১৪:২৩, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩; আপডেট: ১২:২৮, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩

সাত নজির গড়ল শাহরুখের পাঠান

পাঠান সিনেমার পোস্টার

মুক্তির সঙ্গে সঙ্গে বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে পাঠান সিনেমা। ভেঙে দিয়েছে বলিউডের আগের সব নজির। গড়ল সাত নজির। ভাবগতিক দেখে করণ জোহর বলেই দিয়েছিলেন, এ সিনেমা বিশাল ব্লক বাস্টার না হয়ে যায় না!

সে কথাই সত্যি হলো। এই প্রথম কোনো হিন্দি ছবি প্রথম দিনে ১০০ কোটি টাকার ব্যবসা করল। তা-ও ছুটির দিনে নয়, সপ্তাহের মাঝখানে মুক্তি পেয়েছে পাঠান।

একশোটি দেশে ৮ হাজার পর্দায় দেখানো হচ্ছে শাহরুখ খানের ছবি। তার মধ্যে ভারতেই ৫ হাজার প্রেক্ষাগৃহে। হিন্দি ছবি প্রদর্শনের ক্ষেত্রেও এতটা ব্যাপ্তি এই প্রথম। উদাহরণ টানলে  এসএস রাজামৌলী পরিচালিত দক্ষিণী ছবি ‘আর আর আর’-এর কথা মনে পড়তে পারে। সে ছবি বিশ্ব জুড়ে ১০ হাজার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল। 

যেসব নজির গড়ল পাঠান

প্রথম হিন্দি ছবি, যা দেশে একদিনে ৭০ কোটি টাকা তুলে নিয়েছে।
এই প্রথম কোনো হিন্দি ছবি এত বেশি জায়গায় দেখানো হচ্ছে।
একদিনে সর্বোচ্চ আয় করেছে এই সিনেমা।

ছুটির দিনে মুক্তি পায়নি এমন ছবি হিসাবেও প্রথম দিনে সর্বোচ্চ আয় করেছে পাঠান।
যশরাজ-এর স্পাইবিশ্বের তৃতীয় ছবি যা মুক্তির দিনে নজির গড়ল। আগে রয়েছে- এক থা টাইগার এবং ওয়ার।

শাহরুখ খানের প্রথম ছবি, যা প্রথম এবং দ্বিতীয় দিনে সর্বোচ্চ অঙ্ক ছুঁয়েছে।
দীপিকা পাড়ুকোন এবং জন আব্রাহামের ক্ষেত্রেও প্রথম ছবি, যা মুক্তির দিন এবং তার পরের দিনে এত আয় করেছে। একই কৃতিত্ব যশরাজ ফিল্মস এবং পরিচালক সিদ্ধার্থ আনন্দেরও।

এদিকে শাহরুখ, দীপিকা পাড়ুকোন, জন আব্রাহাম অভিনীত ‘পাঠান’ শুরু থেকেই বিতর্কে জড়িয়েছিল। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বয়কটের রব উঠেছিল এ ছবির প্রথম মুক্তি পাওয়া গান ‘বেশরম রং’ নিয়ে। তখনকার অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে চলচ্চিত্র বাণিজ্য বিশ্লেষকরা ভেবেছিলেন ‘পাঠান’ দেখতে আসবেন না কেউ। কিন্তু বলিউড আবার প্রমাণ করে দিল, শিল্পের জোর নেতিবাচকতাকেও ছাপিয়ে যায়। 

 সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এসআর

×