বৃহস্পতিবার ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ২৪ জুন ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ব্রয়লার মুরগি ও মাছের দাম বেড়েছে

  • কমেছে পেঁয়াজের

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পেঁয়াজের কমলেও বেড়েছে ব্রয়লার মুরগি ও মাছের দাম। সপ্তাহখানেক ধরে সব ধরনের মাছ বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে রূপালি ইলিশ। গরিবের পুষ্টির প্রধান উপাদান ব্রয়লার মুরগির দামও বেড়ে চলছে। তবে দাম কমেছে মসুর ডাল, আলু ও আটার। গত সপ্তাহ চালের দাম বাড়লেও চলতি সপ্তায় স্থিতিশীল রয়েছে। কিছুটা বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। মৌসুমি ফল বিশেষ করে আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু ও তালের শাঁসে সয়লাব হয়ে গেছে ফলের বাজার। ভোক্তা কিছুটা কমদামে মৌসুমি ফল কিনতে পারছেন। তবে দেশী জাতের এসব ফলমূলের দাম আরও কম হওয়া উচিত বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। শুক্রবার রাজধানীর কাওরানবাজার, ফকিরাপুল বাজার, কাপ্তানবাজার, গোড়ান বাজার, মুগদা বড় বাজার, মালিবাগ রেলগেট বাজার এবং খিলগাঁও সিটি কর্পোরেশন বাজার ঘুরে নিত্যপণ্যের দরদামের এসব তথ্য পাওয়া গেছে। কিছুটা স্বল্প মূল্যের আশায় সরকারী বাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা টিসিবির ট্রাকের সামনে ভিড় করছে সাধারণ মানুষ। নিত্যপণ্যের বাজারে দাম কমে প্রতিকেজি দেশী পেঁয়াজ ৪৫-৫৫ এবং আমদানিকৃত ভারতীয়টি ৪৫-৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। যা গত সপ্তায় ৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে সারাদেশে।

ভারত থেকে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি হওয়ার কারণে দাম কমছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে ৫ টাকা দাম বেড়ে প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৪০ টাকায়। প্রতিহালি ফার্মের লাল ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩৪-৩৬ টাকায়, যা সপ্তাহখানেক আগেও ৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। দাম কমে প্রতিকেজি মসুর ডাল চিকনটি ৯০-১১০ এবং বড় দানার মসুর ডাল ৭৫-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। এছাড়া প্রতিকেজি আলু ১৮-২৫ এবং আটা ৩২-৩৫ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। সব ধরনের চালে আগের বেড়ে যাওয়া দামে বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতিকেজি স্বর্ণা ও চায়না ইরি খ্যাত মোটা চাল ৪৫-৪৮, সরু নাজিরশাইল ও মিনিকেট ৫৮-৬৫ এবং মাঝারি মানের পাইজাম ও লতা চাল ৫০-৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। এছাড়া ভোজ্যতেল সয়াবিন প্রতিলিটার ১২৩-১৩০, সয়াবিন তেল বোতল পাঁচ লিটার ৬৬০-৭২০ এবং পামওয়েল প্রতিলিটার ১১২-১১৬ এবং পামওয়েল সুপার ১১৪-১১৮ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

নিত্যপণ্যের বাজারে বর্তমান সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে মাছ। ভাতে-বাঙালীর পাতে মাছ না হলে যেন চলেই না! সেই মাছের দাম এখন সবচেয়ে বেশি। সাগর ও নদীতে ইলিশের আকাল থাকায় নাগালের বাইরে স্বাদের প্রিয় এই মাছটি। এককেজি ওজনের একটি ইলিশ কিনতে ভোক্তাকে গুনতে হচ্ছে ২ থেকে আড়াই হাজার টাকা। তবে জাটকা সাইজের ইলিশ এর অর্থেক দামে বিক্রি হচ্ছে বাজারে। ইলিশের পাশাপাশি দেশী চিংড়ি, মলা, ঢেলা এবং রুই, কাতলা ও মৃগেলের মতো মাছের দামও বেশি। প্রতিকেজি চিংড়ি আকারভেদে ৮০০-১৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। এছাড়া ৫০০-৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি পুঁটিমাছ।

খিলগাঁও রেলগেট সংলগ্ন মাছের বাজার থেকে দেশী মাছ কিনছিলেন শাজাহানপুরের বাসিন্দা জাকির হোসেন। তিনি জনকণ্ঠকে বলেন, দাম এত বেশি যে কোন মাছ কেনা যাচ্ছে না। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, আর কয়েকদিন পর বর্ষাকাল শুরু হচ্ছে, অথচ বাজারে ইলিশ মাছ দেখা যাচ্ছে না। দু’/চারটি যা আসছে তা সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে। এছাড়া অন্যান্য মাছের দামও বেশি। তিনি বলেন, বাজারে মাছের সরবরাহ বাড়িয়ে দ্রুত দাম কমানোর একটি উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন। অন্যথায় মাছ পাবে না সাধারণ মানুষ। মুগদা বড় বাজারের মুরগি বিক্রেতা জানান, রোজার ঈদের পরে ব্রয়লার মুরগির দাম কিছুটা কমলেও এখন আবার বেড়ে যাচ্ছে। পাকিস্তানী খ্যাত লাল জাতের মুরগি এখনও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া দেশী জাতের মুরগির সরবরাহ কম। ফলে চড়া মুরগির বাজার। তবে গরু ও খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে আগের দামে।

মৌসুমি ফলে ভরপুর বাজার ॥ আম, জাম কাঁঠাল, লিচু এবং তালের শাঁসের মতো মৌসুমি ফলে ভরপুর বাজার। ঢাকার বাজার সয়লাব হয়ে গেছে এসব ফলমূলে। তবে সেই তুলনায় দাম তেমন কমেনি। ফলের দাম আরও কম হওয়া উচিত বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। রাজশাহীর হিমসাগর, গোপালভোগ ও ল্যাংড়া আমে ভরপুর বাজার। এর সঙ্গে পাওয়া যাচ্ছে লিচু, কাঁঠাল, জাম ও তালের শাঁস। প্রতিকেজি হিমসাগর আম জাত ও মানভেদে ৮০-১০০, লিচু শ’ ৩০০-৭০০, কাঁঠাল প্রতিপিস ২০০-৩০০, জাম প্রতিকেজি ৮০-১২০ এবং তালের শাঁস প্রতিপিস ২৫ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। দাম যাই হোক, মৌসুমি ফল কিনতে ভোক্তা ভিড় করছেন ফলের দোকানগুলোতে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা : গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮১         যেন সার্কাসের ক্লাউনরা বক্তব্য রাখছেন, বিএনপিকে কাদের         দেশে চীনের নতুন এক টিকার মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমতি         জেনারেল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নতুন সেনাপ্রধানকে         নারী ও শিশু পাচারে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না ॥ বিজিবি মহাপরিচালক         বাংলাদেশে করোনা টিকা উৎপাদনে আন্তর্জাতিক সহায়তা চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী         কৃষি মন্ত্রণালয়ের এডিপি বাস্তবায়ন ৭৬ শতাংশ         ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেব’ বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ         খুলনা বিভাগে ২৪ ঘন্টায় আরও ২০ জনের প্রাণ ঝড়লো         চুয়াডাঙ্গায় শতভাগ করোনা শনাক্ত, মৃত্যু দুই জনের         রমনা বটমূলে বোমা হামলা ॥ ডেথ রেফারেন্স ও আপিল শুনানি ২৪ অক্টোবর         রাজশাহীতে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ আরও ১৮ জনের মৃত্যুর রেকর্ড         ভারতে ফের করোনাভাইরাসে দৈনিক শনাক্ত ও মৃত্যু বাড়ল         কঠোর লকডাউনেও দিনাজপুরে করোনায় মৃত্যু বাড়ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৪৮.৭৮         আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে তিন ম্যাচের সিরিজ চায় কোহলি         সব বিভাগে বৃষ্টিপাত হবার সম্ভাবনা         ‘স্ট্রবেরি মুন’ দেখা যাবে আজ         ঝিনাইদহে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু, নতুন করে আক্রান্ত ৭৩         তিন পার্বত্য জেলায় ১৪২ প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের সুপরিশ         ঢাকার সব বার ও ক্লাবে নিষিদ্ধ হচ্ছেন পরীমনি