রবিবার ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

অস্বস্তিকর গরম, ক্লান্ত শ্রান্ত দিন

অস্বস্তিকর গরম, ক্লান্ত শ্রান্ত দিন
  • কবে শীতল হবে ধরণী

মোরসালিন মিজান ॥ গ্রীষ্ম গেছে। গরমটা সঙ্গে করে নিয়ে যাওয়ার কথা, না, নিয়ে যায়নি। তালপাকা গরমে গাছের প্রায় সব তাল পেকেছে। পিঠা করে খাওয়াও মোটামুটি শেষ। কিন্তু গরম কমছে না। দিনে গরম। রাতেও তা-ই। টেকা একদম মুশকিল হয়ে গেছে। ঘামে শরীর ভিজছে। শুকোচ্ছে। আবার ভিজছে। অসহনীয় অবস্থা। মাটির পিঞ্জিরা থেকে প্রাণপাখি যেন বের হয়ে যেতে চাইছে! এ অবস্থায় কবে আর কিভাবে শীতল হবে ধরণী? কয়েকদিন ধরে এই এক প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন রাজধানীবাসী।

গত ১৪ জুন আনুষ্ঠানকিভাবে বিদায় নিয়েছে গ্রীষ্ম। বৈশাখ ও জ্যৈষ্ঠ দুই ছিল মাস খরার। দাবদাহে গা পুড়েছে। বর্ষা শুরু হলেই রক্ষা। এ আশায় বর্ষার জন্য প্রতিক্ষা করে ছিলেন সবাই। ১৫ জুলাই থেকে নতুন এই ঋতু শুরু হয়েছে। কিন্তু গরম কমছে না। গ্রীষ্মের কাল বলেই মনে হচ্ছে। এখনও আগের মতোই তাপ বিকিরণ করছে সূর্য। চোখ রাঙাচ্ছে। টেপের পানিতেও ভেবে চিন্তে হাত দিতে হয়। ভুল করলে ত্বকে ফুসকা পড়বে নিশ্চিত।

অথচ তাপমাত্রা খুব বেশি নয়। বুধবারের কথাই ধরা যাক, এদিন ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এরপরও মারাত্মক গরম অনুভূত হচ্ছে। কেন? উত্তরে আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল বলেন, সাধারণত রাতে তাপমাত্রা কমে। কিন্তু এখন সেভাবে কমছে না। উল্টো দিন ও রাতের তাপমাত্রার পার্থক্য অনেক কমে এসেছে। গড় ব্যবধান কমে যাওয়ার কারণে গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে। বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি জানিয়ে তিনি বলেন, এ কারণে গা অত্যধিক ঘামছে। এ অবস্থায় বাঁচার উপায় কী? জানতে চাইলে তিনি বলেন, বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করতে হবে। বৃষ্টি-ই দূর করবে নাগরিক ক্লান্তি। গরম থেকে মুক্তি দেবে।

কিন্তু বৃষ্টি তো মাঝে মাঝে হচ্ছে। এমনকি আষাঢ়ের প্রথম দিনই শ্রাবণধারা নেমেছিল। এখনও কম বেশি হচ্ছে। কিন্তু গরম তো কমছে না। বৃষ্টি যতক্ষণ হচ্ছে, যতক্ষণ বইছে ঝিরিঝিরি হাওয়া, ততক্ষণই আরাম। তার পর থেকে ভ্যাপসা গরম। তাহলে? জবাবে আবহাওয়া অফিস বলছে, গরম এত যে, অল্পস্বল্প এবং অনিয়মিত বর্ষণে আর কাজ হচ্ছে না। বৃষ্টি বাড়লে এবং নিয়মিত হলে ক্রমেই শীতল হতে শুরু করবে ধরণী। সুতরাং এখন সকল চাওয়া বৃষ্টির কাছে। বর্ষার ষোলোআনা চাই। কিন্তু একটু দেরি হবে বলেই আভাস। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সাগরে লঘুচাপ সৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। আর তাহলে সারাদেশে মৌসুমি বায়ুর বিস্তার ঘটতে দেরি হতে পারে। মৌসুমি বায়ু সক্রিয় না থাকায় বৃষ্টি হলেও, বর্ষাকে পুরোপুরি পাওয়া হবে না। তাই আয় বৃষ্টি ঝেপে...।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
১১৩৯৫৪৩১
আক্রান্ত
১৬২৪১৭
সুস্থ
৬৪৪৯৯৪৩
সুস্থ
৭২৬২৫
শীর্ষ সংবাদ:
অসম-মেঘালয়ে ভারি বৃষ্টি ও ঢলের তীব্রতা বৃদ্ধি, বন্যার অবনতি হতে পারে         লকডাউনে সাড়া নেই ওয়ারীবাসীর         চ্যালেঞ্জে কর্মসংস্থান ॥ করোনায় ব্যবসা বাণিজ্য স্থবির         খাদ্যের মাধ্যমে করোনা ছড়ায় না         মিটার না দেখে আর বিল করবে না বিদ্যুত বিতরণ কোম্পানি         বিশ্বে পর পর দু’দিন দুই লাখ করে করোনা রোগী শনাক্ত         বিদেশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম করের আওতায় আনা হবে         জঙ্গী নির্মূলে বিশ্বে রোল মডেল বাংলাদেশ         ফের আলোচনায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট         বেনাপোল-পেট্রাপোল সচল ॥ অবশেষে ভারতে পণ্য রফতানি শুরু         কম শিল্পী, স্পর্শহীন অভিনয়- তবুও চ্যালেঞ্জ গ্রহণ         ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনায় প্রশিক্ষণ দেয়া হবে ॥ আইনমন্ত্রী         করোনা আতঙ্কে রামেক হাসপাতালে দুই লাশ ফেলে লাপাত্তা স্বজনেরা         এন্ড্র্রু কিশোর ফের গুরুতর অসুস্থ         করোনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালকের মৃত্যু         পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধে ৫৮ কোটি টাকা বরাদ্দ         বয়স্ক, শিশু এবং অসুস্থ মানুষদের পশুর হাটে না যাওয়ার আহ্বান ডিএনসিসি মেয়রের         দুদকের মামলায় আত্মসমর্পণের সুযোগ তৈরি হয়নি : প্রধান বিচারপতি         করোনায় অবরুদ্ধ হলো ওয়ারীর 'রেড জোন'         শুধু বিশেষ পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল আদালত প্রথা অবলম্বন করা হবে : আইনমন্ত্রী        
//--BID Records