ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

কুমিল্লা-৩ আসনে দুদিনে চার মামলা ॥ গ্রেফতার ২০

প্রকাশিত: ০৬:৫৭, ২২ ডিসেম্বর ২০১৮

কুমিল্লা-৩ আসনে দুদিনে চার মামলা ॥ গ্রেফতার ২০

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ২১ ডিসেম্বর ॥ কুমিল্লা-৩ আসনের মুরাদনগর ও বাঙ্গরা বাজার থানায় গত দুইদিনে বিস্ফোরক আইনে ৪টি মামলায় বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের ১৬১ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে এবং দলের ৩ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রদল সভাপতিসহ কমপক্ষে ২০জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে নির্বাচনী এলাকার ধানের শীষের কমপক্ষে ১৫টি কার্যালয়। শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লা শহরতলির একটি রেস্তরাঁয় সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি এসব অভিযোগ করেন ওই আসনের বিএনপি দলীয় প্রার্থী কেএম মুজিবুল হক। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, সুষ্ঠু ভোট হলে ধানের শীষের বিজয় ঠেকিয়ে রাখা যাবে না তা বুঝতে পেরে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের বিভিন্নভাবে হয়রানি ও বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে হুমকি দিচ্ছে। আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীদের হামলা, মামলা ও নির্যাতনে বিএনপির নেতাকর্মীরা কোন প্রচার চালাতে পারছে না। এরই মধ্যে মিথ্যা ও হয়রানিীূলক মামলায় অনেক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে আমার নির্বাচনী অফিস। নৌকার সমর্থকরা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আমার পক্ষে কাজ করা নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মারধর ও হুমকি দিচ্ছে। কেউ যাতে ৩০ ডিসেম্বর ভোট কেন্দ্রে এজেন্ট হতে না পারে সেজন্য হুমকি দিয়ে ভয়ভীতি সৃষ্টি করে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। তিনি বলেন, গত ২ দিনে দুই থানায় ভৌতিক অভিযোগে বিস্ফোরক আইনে ৪টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় ৩ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৬১ দলীয় নেতাকর্মীকে অভিযুক্ত করা হয়। একটি মামলায় মুরাদনগর থানা পুলিশ পাহাড়পুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তোফায়েল শিকদারকে বাড়ি থেকে ধরে এনে ১০টি ককটেল দিয়ে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠায়। অপর একটি মামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম, যুবদল নেতা ছিটনসহ ৫৮ দলীয় নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেছে। এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ওসি একেএম মনজুর আলম ও বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, সুনির্দিষ্ট অভিযোগে মামলা হয়েছে এবং জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়েছে। অহেতুক কাউকে হয়রানি করা হচ্ছে না বলে তিনি দাবি করেন। প্রার্থীদের মধ্যে কেউ আইনী সহযোগিতা চাইলে তাদেরও সহায়তা করা হবে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুরাদনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোল্লা মুজিবুল হক, যুগ্ম সম্পাদক কামাল উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট তৌহিদুর রহমান, অ্যাড. আবদুল্লাহ আল মামুন, যুবদল নেতা আবুল হাসানসহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী।
monarchmart
monarchmart