সোমবার ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় প্রিয়া রামানির

  • এম জে আকবরের মানহানির মামলা

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের জুনিয়র পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম জে আকবরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করা সাংবাদিক প্রিয়া রামানি সোমবার জানিয়েছেন, তিনি তার লড়াই চালিয়ে যাবেন। মন্ত্রী আকবরের করা মামলাটিকে তিনি ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও হয়রানির মাধ্যমে ধামাচাপা দেয়ার এক অভিপ্রায় হিসেবে অভিহিত করেছেন। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

সাংবাদিক প্রিয়া বলেন, সত্য ও পরম সত্যই আমার একমাত্র প্রতিরোধ। এক বিবৃতিতে প্রিয়াই প্রথম আকবরের নাম প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলাটি দায়েরের মাধ্যমে আকবর তার অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। তার বিরুদ্ধে যেসব নারী গুরুতর অভিযোগ করেছেন তিনি তাদেরকে ভয় দেখিয়ে ও হয়রানির মাধ্যমে থামিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন। বলার অপেক্ষা রাখে না যে, আমি আমার মানহানির অভিযোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রস্তুত। এদিক থেকে সত্য ও পরম সত্যই আমার একমাত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থা। ইন্ডিয়া টুডে, দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও মিন্ট সংবাদমাধ্যমে কাজ করা প্রিয়া বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে করা কয়েকজন নারীর গুরুতর অভিযোগকে আমলে নিয়ে বিরোধীদের পদত্যাগের দাবিকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা হিসেবে বর্ণনা করায় গভীরভাবে মর্মাহত হয়েছি। গত দুই সপ্তাহে বিষয়টি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। যেখানে কয়েকজন নারী যারা বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত যার মধ্যে সাংবাদিকরাও রয়েছেন তারা কর্মক্ষেত্রে সম্পাদক, লেখক, চিত্রনির্মাতা ও অন্যদের দ্বারা যৌন হয়রানির এবং অনৈতিক যৌন আচরণের শিকার হয়েছেন সে সম্পর্কে গুরুতর অভিযোগের কথা জানিয়েছেন। এই অভিযোগগুলো সামনে আসার মাধ্যমে ধীরে হলেও বছরের পর বছর ধরে নারীর ক্ষমতায়নের পথ সুগম হচ্ছে। হ্যাশট্যাগ মিটু আন্দোলনের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভারতে ও সারাবিশ্বের নারীর ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রিয়া বলছিলেন, যে দশজন নারী আকবরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তাদের সঙ্গে ঘটা ঘটনাগুলো আকবরের অধীনে কাজ করার সময় ঘটেছিল। যেসব নারীরা এখন কথা বলছেন তারা বর্তমানে তাদের ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে সবচেয়ে বড় হুমকির মধ্যে রয়েছেন। এটি অপমানজনক যে আমাদেরকে জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে, কেন এখন আমরা কথা বলছি। যাদের বিরুদ্ধে যৌন অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের সেই অপমান ও লজ্জা সম্পর্কে আমরা সচেতন রয়েছি। রবিবার আকবর যা করেছেন তার অভিপ্রায় ও উদ্দেশ্য খুবই খারাপ ছিল।

শীর্ষ সংবাদ: