ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

বল টেম্পারিংয়ের তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করবে না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)

কখনই জানা হবে না পেছনের খবর

প্রকাশিত: ০৬:৪৫, ৮ এপ্রিল ২০১৮

কখনই জানা হবে না পেছনের খবর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ব্রিটিশ ও অস্ট্রেলীয় সংবাদ মাধ্যমের ধারণা, বল টেম্পারিং কলঙ্কের নাটেরগুরু ডেভিড ওয়ার্নার। সংবাদ সম্মেলনে সাবেক অধিনায়ক স্মিথের পাশাপাশি সহ-অধিনায়কও কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিলেন। তবে সংবাদকর্মীদের প্রশ্নবানে জর্জরিত ওয়ার্নার বলেছিলেন, ‘অপেক্ষা করুন সময় হলে সবই জানতে পারবেন।’ প্রকৃত সত্য হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটকে নাড়িয়ে দেয়া এই ঘটনার পেছনের খবর কখনই জানা যাবে না। শনিবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) চেয়ারম্যান ডেভিড পিভার পরিষ্কার বলে দিয়েছেন বল টেম্পারিং তদন্তের রিপোর্ট কখনই প্রকাশ করা হবে না। ‘ইন্টেগ্রিটি রিভিউ যাবতীয় তথ্য পেয়েছে, সুপারিশ করেছে, শাস্তিও দেয়া হয়েছে এবং খেলোয়াড়রা সেটা মেনেও নিয়েছে। তদন্তে পাওয়া অনেক কিছুই আমাদের জন্য উপদেশ হিসেবে কাজ করছে। আমরা এর থেকে শিক্ষা নিতে চাই। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের স্বার্থেই এ সংক্রান্ত আর কোন তথ্য প্রকাশ করা হবে না। আমরা এখন কেবল সামনে তাকাতে চাই।’ বলেন পিভার। ঘটনা দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে কেপটাউন টেস্টের তৃতীয়দিনের। পকেট থেকে সিরিশ কাগজ বের করে বলের আকৃতি পরিবর্তনের (টেম্পারিং) চেষ্টা করেন তরুণ অস্ট্রেলিয়ান ফিল্ডার ক্যামেরন ব্যানক্রফট। পরে সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দিন শেষে সংবাদ মাধ্যমের কাছে বল টেম্পারিংয়ে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন অধিনায়ক স্মিথ। তাকে এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করে আইসিসি। ঘটনার পরদিনই পিভার ও সিএ’র ইন্টেগ্রিটি প্রধান উড়ে যান দক্ষিণ আফ্রিকায়। ইন্টেগ্রিটি প্রধানের নেতৃত্বে শুরু হয় তদন্ত। সেখানে পরিকল্পনাকারী হিসেবে উঠে আসে ওয়ার্নারের নাম। পরবর্তীতে স্মিথ ও ওয়ার্নারকে ১ বছর এবং ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। দেশে ফিরেও এই তিন ক্রিকেটার সেই ঘটনা নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলেননি। এবার পিভারের এই ঘোষণার ফলে ঘটনার বিশদ বিবরণ, অতীতে আরও হয়েছে কিনাÑ এমন কিছু প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার সম্ভাবনা শেষ হয়ে গেল। ফলে সাধারণ মানুষের জানা হবে না অনেক প্রশ্নের উত্তরই। দেশে ফিরে সংবাদ মাধ্যমের সামনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিলেন স্মিথ ও ওয়ার্নার। ধারণা করা হয়েছিল, শাস্তির মেয়াদ কমানোর জন্য আবেদন করবেন তারা। কিন্তু ভবিষ্যতে অস্ট্রেলিয়ার আর কোন ক্রিকেটার যাতে অন্যায় কর্মকা-ে জড়িয়ে না পড়ে সিএ’র সেই প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানিয়ে আপীলের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন তারা। ওদিকে রিকি পন্টিং জানিয়েছেন, স্মিথদের বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় তিনি মর্মাহত। ৪৩ বছর বয়সী সাবেক এই অস্ট্রেলীয় তারকা ক্রিকেটার বলেছেন, ‘কয়েক সপ্তাহ আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় যা ঘটেছে সে বিষয়ে এই প্রথমবারের মতো আমি কোন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছি। একজন সাবেক খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে আমি ওই ঘটনায় খুবই মর্মাহত।’ কুলিন দেশটির ক্রিকেটের অভিজাত সংস্কৃতি নিয়ে যে প্রশ্ন উঠেছে তা নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নন দুইবারের বিশ্বকাপ জয়ী এ ক্রিকেটার। পন্টিং আরও যোগ করেন, ‘সংস্কৃতি বিষয়টা আমার কাছে খুবই মজার। কারণ আপনি একটু পেছনে ফিরে গেলেই দেখবেন যখন অস্ট্রেলিয়া এ্যাশেজ জিতল, তখন দলের সংস্কৃতি নিয়ে কোন সমস্যা হয়নি। সুতরাং আমার মনে হয় সংস্কৃতির বিষয়ে যে কথা উঠেছে তার সঙ্গে ড্রেসিং রুমের বাস্তবতার মিল নেই।’
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২