ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

ছোট পর্দার প্রিয়মুখ শবনম ফারিয়া। আমাদের দেশের নাট্যাঙ্গনে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে অনবদ্য অভিনয় দিয়ে যারা নিজেদের উপস্থিতি জানান দিয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম শবনম ফারিয়া। অল্প সময়েই নজরকাড়া অভিনয় দিয়ে শবনম ফারিয়া মন জয় করে নিয়েছেন দর্শকের। সমসাময়িক শিল্পীদের তু

স্ক্রিপ্ট পছন্দ হলে কাজ করি - শবনম ফারিয়া

প্রকাশিত: ০৬:৪২, ৫ এপ্রিল ২০১৮

স্ক্রিপ্ট পছন্দ হলে কাজ করি - শবনম ফারিয়া

আনন্দকণ্ঠ : বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? শবনম ফারিয়া : নাটকের কাজ নিয়েই ব্যস্ততা। আসছে বৈশাখ ও ঈদের কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি। কিছু কাজ শেষ করেছি। এর মধ্যে শেষ করলাম আবু হায়াত মাহমুদের বনলতা ও টানাপোড়েন নাটকের কাজ। টানাপোড়েন একটি পরিবারের গল্প নিয়ে নাটকটি নির্মিত হয়েছে। টানাপোড়েন নাটকে আমার বিপারীতে আছেন তৌসিফ মাহবুব। আনন্দকণ্ঠ : ‘সুচিত্রা রহস্য’ নাটকটি প্রসঙ্গে বলুন। শবনম ফারিয়া : মাসুম শাহরিয়ারের রচনা ও এল আর সোহেলের পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে নাটক ‘সুচিত্রা রহস্য’। নাটকটিতে দীর্ঘ দুই বছর পর একসঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে তৌসিফ আমি অভিনয় করেছি। ‘সুচিত্রা রহস্য ’ নাটকের গল্পে দেখা যাবে, রঞ্জন একটা প্রাইভেট বিশ্বদ্যিালয়ে এমবিএ করছে। সুচিত্রা নামের এক সময়ের সঙ্গে ফেসবুকে তার পরিচয় হয়। পরিচয়টা বন্ধুত্বে রূপ নিতে দেরি হয় না। খুব দ্রুতই ফোন নম্বরও বিনিময় হয়। রঞ্জনের স্বপ্নে, ধ্যানে কেবলই সুচিত্রা। ভালই চলছিল তাদের সম্পর্ক। কিন্তু সম্পর্কের তিন মাসের মাথায় হঠাৎ সুচিত্রা হারিয়ে যায়। তাকে আর ফেসবুকে পাওয়া যায় না। এরপর ঘটতে থাকে নানা ঘটনা। এভাবেই নাটকটির গল্প এগিয়েছে। আনন্দকণ্ঠ : চলতি ধারাবাহিক? শবনম ফারিয়া : বর্তমানে একটি ধারাবাহিক প্রচারিত হচ্ছে ‘সোনার শিকল’ এটিএন বাংলায়। আনন্দকণ্ঠ : কাজের মান ধরে রাখার জন্য কি পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন? শবনম ফারিয়া : আমি বেছে কাজ করার চেষ্টা করি। আগে স্ক্রিপ্ট নেই। আমি প্রতিটি নাটকের স্ক্রিপ্ট পড়ি। স্ক্রিপ্ট পছন্দ হলে তারপর শিডিউল দিয়ে থাকি। পছন্দ না হলে কাজ করি না। অন্যদের চেয়ে আমার কাজের সংখ্যা কম। সেই দিক থেকে আমি কাজের মান ধরে রাখার চেষ্টা করি। সেটির জন্য আমাকে শিডিউল দেয়ার আগে স্ক্রিপ্ট পড়তে হয়। অল্প কাজ করলে মান ঠিক রাখা যায় বলে আমি মনে করি। বেশি সংখ্যক কাজ করলে অনেক সময় ব্যালেন্স রাখা সম্ভব হয় না। আমার কাছে একটা সময় মনে হয়েছে আমি কাজ অনেক বেশি করছি তাই এখন কম কাজ করছি বেছে বেছে। আনন্দকণ্ঠ : ‘দেবী’ নামের একটি ছবিতে কাজ করছেন। ছবির অগ্রগতি কতদূর? শবনম ফারিয়া : ‘দেবী’ ছবির ডাবিং শেষ। ফাইনাল এডিটিং কালার কারেকশন ভারতে হচ্ছে প্রায় এক মাস ধরে। আনন্দকণ্ঠ : চলচ্চিত্র নিয়ে কোন পরিকল্পনা আছে? শবনম ফারিয়া : না চলচ্চিত্র নিয়ে কোন পরিকল্পনা নেই। তবে ছবি সবাই করতে চায় আমিও করতে চাই। ভাল স্ক্রিপ্ট না হলে আমার ইচ্ছে নেই। ভাল স্ক্রিপ্ট পেলে নিয়মিত হব। আনন্দকণ্ঠ : চলচ্চিত্রে কাজ করার ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দেবেন? শবনম ফারিয়া : চলচ্চিত্রের কাজের ক্ষেত্রে আসলে একটা দিকে নজর দেয়া যায় না। পুরো প্যাকেজটা ভাল হতে হয়। নন্দিত কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘দেবী’ উপন্যাস নিয়ে তৈরি হচ্ছে এই ছবিটি। পরিচালক অনম বিশ্বাস। সহশিল্পী জয়া আপা, চঞ্চল ভাই, ইরেশ জাকের সবাই ভাল অভিনেতা অভিনেত্রী। নাটকের ক্ষেত্রে একটি দিক দুর্বল হলে নাটক চলে যায়। তবে ফিল্মে একটা ছোট ভুল মানে অনেক বড় ভুল। একটা ভাল ছবি মানে প্রত্যেকটা সেক্টর ভাল হতে হবে। যেটার সব দিক ভাল আমি সেই ছবি করব। একটা দিক কে ভাল দিক বলা যায় না। সবকিছু ভাল হতে হয়।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২