বুধবার ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২০ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পাবনায় পশুর দাম কম

নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা, ৩০ আগস্ট ॥ হাটবাজারে কোরবানির পশুর প্রচুর আমদানি হলেও ক্রেতা কম থাকার কারণে বিক্রি কম হচ্ছে। ফলে গরু পালনের সঙ্গে জড়িত কৃষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও খামারিরা লোকসানের মুখে পড়েছেন। জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ আবদুল গফুর জানান, এবারের জন্য ১ লাখ ৫১ হাজার ৬২৫টি কোরবানির পশু প্রস্তুত করা হয়েছে। পাবনা জেলায় এবার ২৭ হাজার ৭৫৬ খামারি কোরবানির পশু মোটাতাজাকরণ করেছেন। জেলায় হাজিরহাট, অরণখোলা, বোয়ালমারী, চতুরহাটসহ ২২টি গবাদিপশুর বড় হাট রয়েছে।

এবারেও বড় হাটগুলোতে পর্যাপ্ত কোরবানির পশু আমদানি হচ্ছে। কিন্তু সে তুলনায় ক্রেতার অভাবে বিক্রি কম। অপরদিকে গরু পালনের সঙ্গে জড়িত কৃষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও খামারিরা লোকসানের মুখে পড়েছেন।ব্যবসায়ী ও খামারিরা বলছেন, বন্যার প্রভাব পড়েছে কোরবানির পশুর হাটগুলোতে।একই অবস্থা বিরাজ করছে, পুষ্পপাড়া, দাপুনিয়া, আতাইকুলা, সুজানগর, চিনাখড়া, কাশিনাথপুর, টেবুনিয়া, বনগ্রাম, করমজা, নাকালিয়া, অমৃতকুন্ডা, শরৎগঞ্জ হাটসহ বেশ কয়েকটি কোরবানির পশুর হাটে।

কালকিনিতে জমেনি পশুর হাট

নিজস্ব সংবাদদাতা কালকিনি, মাদারীপুর থেকে জানান, হাটে গরু-ছাগল জমজমাট থাকলেও নেই পর্যাপ্ত ক্রেতা। ফলে কালকিনিতে কোরবানি উপলক্ষে পশু কেনা-বেচার হাটগুলো এখনো জমে উঠেনি। এতে লোকসানের আশঙ্কা করছে পশু ব্যবসায়ীরা। তবে চড়া দামের কারণে এখনই পশু কিনছেন না ক্রেতারা।

গরু না কেনার জন্য বিক্রেতারা দায়ী করছে অবৈধভাবে গরু আসাকে। আর এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে হাটগুলোতে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কালকিনিতে বড় বড় কোরবানির পশু বিক্রির হাটগুলো এখনও জমে উঠেনি। উপজেলার গোপালপুরের হাট, কালকিনির হাট, মিয়ারহাট ও ফাসিয়াতলা হাটগুলোতে পর্যাপ্ত গরু-ছাগল উঠলেও ক্রেতারা কিনতে আগ্রহী হচ্ছে না। বিদেশী গরু আসার কারণে অনেকটাই লোকসানের আশঙ্কা পশু ব্যবসায়ীদের। আর ক্রেতারা অভিযোগ করছেন চড়া দামকে।

আমতলীতে দুশ্চিন্তায় খামারিরা

নিজস্ব সংবাদদাতা আমতলী, বরগুনা থেকে জানান, বাজারে ভারতীয় গরু আসায় গরুর দাম কম। এতে দুশ্চিন্তায় খামারিরা। খামারিদের ধারণা, অনেক গরু এ বছর অবিক্রীত থেকে যাবে। প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, আমতলী ও তালতলী উপজেলায় কোরবানির জন্য ১ হাজার ৩৩টি গরুর চাহিদা রয়েছে। দুই উপজেলার ৩৯০টি খামারে ১ হাজার ১১৫টি গরু আছে। আমতলীর ২১১টি খামারে ৫১৫টি গরু ও ১১১টি ছাগল এবং তালতলীর ১৭৯টি খামারে ৬০০ গরু রয়েছে। প্রতিদিন এ পশুগুলোকে খৈল, ভুসি, কুড়া ও কাচা ঘাস দিচ্ছে। ভাল দাম পাওয়ার আশায় খামারিরা খুব যতœ সহকারে দেখাশুনা করছেন। কিন্তু বাজারে ভারতীয় গরু আসায় গরুর দাম করে গেছে। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে খামারিদের। অনেক খামারি লোকসানে গরু বিক্রি না করে পরবর্তী বছরের জন্য রেখে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার দক্ষিণাঞ্চলের বড় গরুর হাট আমতলী বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গরু এসেছে। বিশেষ করে কুষ্টিয়া, বেনাপোল, যশোর, খুলনা ও ঝিনাইদহের গরুতে বাজার সয়লাব।

শীর্ষ সংবাদ:
গুজব : বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষিকা আটক         করোনা ভাইরাসে টিকা নিবন্ধনে বয়সসীমা সর্বনিম্ন ১৮ বছর নির্ধারণ         এসকে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে রায় বৃহস্পতিবার         জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে পান্থকুঞ্জ : মেয়র তাপস         ‘ইসলাম কখনো অন্য ধর্মের ওপর আঘাত সমর্থন করে না’         ২৪ অক্টোবর পায়রা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী         সিরিয়ায় বোমা হামলায় ১৩ সেনা সদস্য নিহত         করোনা ভাইরাস ॥ দেশে ৩ কোটি ৭০ লাখ শিশু ঝুঁকিতে         অপহৃত মিশনারিদের ছাড়তে জনপ্রতি ১০ লাখ ডলার মুক্তিপণ দাবি         ক্রিপ্টো প্রশ্নে ফেসবুককে বিশ্বাস করেন না মার্কিন সিনেটররা         আমিরাতে গেলেন আরও ২৪৭৭ প্রবাসী         রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৬১         জেলে ধর্মগ্রন্থ পড়ছেন আরিয়ান         আশুগঞ্জে গাড়ি চাপায় ২ চাতাল শ্রমিক নিহত, আহত ৩ জন         ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস         ভারতের উত্তরাখাণ্ডে দুর্যোগ ॥ নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬         ইয়েমেন যুদ্ধে ১০ হাজার শিশু হতাহত ॥ ইউনিসেফ         ববিতে ক্লাশ শুরু হবে বৃহস্পতিবার         বরিশালে ৯৯.৩ মিলিমিটার বৃষ্টি রের্কড         নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সাবমেরিন থেকে ছুড়া হয়েছে ॥ উত্তর কোরিয়া