শুক্রবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পাবনায় পশুর দাম কম

নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা, ৩০ আগস্ট ॥ হাটবাজারে কোরবানির পশুর প্রচুর আমদানি হলেও ক্রেতা কম থাকার কারণে বিক্রি কম হচ্ছে। ফলে গরু পালনের সঙ্গে জড়িত কৃষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও খামারিরা লোকসানের মুখে পড়েছেন। জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ আবদুল গফুর জানান, এবারের জন্য ১ লাখ ৫১ হাজার ৬২৫টি কোরবানির পশু প্রস্তুত করা হয়েছে। পাবনা জেলায় এবার ২৭ হাজার ৭৫৬ খামারি কোরবানির পশু মোটাতাজাকরণ করেছেন। জেলায় হাজিরহাট, অরণখোলা, বোয়ালমারী, চতুরহাটসহ ২২টি গবাদিপশুর বড় হাট রয়েছে।

এবারেও বড় হাটগুলোতে পর্যাপ্ত কোরবানির পশু আমদানি হচ্ছে। কিন্তু সে তুলনায় ক্রেতার অভাবে বিক্রি কম। অপরদিকে গরু পালনের সঙ্গে জড়িত কৃষক, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও খামারিরা লোকসানের মুখে পড়েছেন।ব্যবসায়ী ও খামারিরা বলছেন, বন্যার প্রভাব পড়েছে কোরবানির পশুর হাটগুলোতে।একই অবস্থা বিরাজ করছে, পুষ্পপাড়া, দাপুনিয়া, আতাইকুলা, সুজানগর, চিনাখড়া, কাশিনাথপুর, টেবুনিয়া, বনগ্রাম, করমজা, নাকালিয়া, অমৃতকুন্ডা, শরৎগঞ্জ হাটসহ বেশ কয়েকটি কোরবানির পশুর হাটে।

কালকিনিতে জমেনি পশুর হাট

নিজস্ব সংবাদদাতা কালকিনি, মাদারীপুর থেকে জানান, হাটে গরু-ছাগল জমজমাট থাকলেও নেই পর্যাপ্ত ক্রেতা। ফলে কালকিনিতে কোরবানি উপলক্ষে পশু কেনা-বেচার হাটগুলো এখনো জমে উঠেনি। এতে লোকসানের আশঙ্কা করছে পশু ব্যবসায়ীরা। তবে চড়া দামের কারণে এখনই পশু কিনছেন না ক্রেতারা।

গরু না কেনার জন্য বিক্রেতারা দায়ী করছে অবৈধভাবে গরু আসাকে। আর এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে হাটগুলোতে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কালকিনিতে বড় বড় কোরবানির পশু বিক্রির হাটগুলো এখনও জমে উঠেনি। উপজেলার গোপালপুরের হাট, কালকিনির হাট, মিয়ারহাট ও ফাসিয়াতলা হাটগুলোতে পর্যাপ্ত গরু-ছাগল উঠলেও ক্রেতারা কিনতে আগ্রহী হচ্ছে না। বিদেশী গরু আসার কারণে অনেকটাই লোকসানের আশঙ্কা পশু ব্যবসায়ীদের। আর ক্রেতারা অভিযোগ করছেন চড়া দামকে।

আমতলীতে দুশ্চিন্তায় খামারিরা

নিজস্ব সংবাদদাতা আমতলী, বরগুনা থেকে জানান, বাজারে ভারতীয় গরু আসায় গরুর দাম কম। এতে দুশ্চিন্তায় খামারিরা। খামারিদের ধারণা, অনেক গরু এ বছর অবিক্রীত থেকে যাবে। প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, আমতলী ও তালতলী উপজেলায় কোরবানির জন্য ১ হাজার ৩৩টি গরুর চাহিদা রয়েছে। দুই উপজেলার ৩৯০টি খামারে ১ হাজার ১১৫টি গরু আছে। আমতলীর ২১১টি খামারে ৫১৫টি গরু ও ১১১টি ছাগল এবং তালতলীর ১৭৯টি খামারে ৬০০ গরু রয়েছে। প্রতিদিন এ পশুগুলোকে খৈল, ভুসি, কুড়া ও কাচা ঘাস দিচ্ছে। ভাল দাম পাওয়ার আশায় খামারিরা খুব যতœ সহকারে দেখাশুনা করছেন। কিন্তু বাজারে ভারতীয় গরু আসায় গরুর দাম করে গেছে। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে খামারিদের। অনেক খামারি লোকসানে গরু বিক্রি না করে পরবর্তী বছরের জন্য রেখে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার দক্ষিণাঞ্চলের বড় গরুর হাট আমতলী বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গরু এসেছে। বিশেষ করে কুষ্টিয়া, বেনাপোল, যশোর, খুলনা ও ঝিনাইদহের গরুতে বাজার সয়লাব।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩৪১৮৭১৫৪
আক্রান্ত
৩৬৪৯৮৭
সুস্থ
২৫৪৪৮৩৩৬
সুস্থ
২৭৭০৭৮
শীর্ষ সংবাদ:
প্রাচ্যের সঙ্গে সংযোগের আদর্শ স্থান হতে পারে দেশ         থামছেই না ধর্ষণ ॥ সামাজিক ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ল         দলিত তরুণীর বাড়িতে যাওয়ার পথে রাহুল-প্রিয়াঙ্কা আটক         টিআইবির প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক ও সঠিক নয় ॥ কাদের         ঢাকায় গৃহকর্মীকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ নেতা রিমান্ডে         সরবরাহ বাড়লেও পেঁয়াজের দাম কমছে না         দেশে করোনায় মৃত্যু কমেছে         এক বছরের মধ্যে সব ঝুলন্ত তার অপসারণ         মহামারীর মধ্যেই হবে একুশে গ্রন্থমেলা         বিচার বিভাগীয় তদন্ত দলের ঘটনাস্থল পরিদর্শন         ৪ অক্টোবর থেকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেন         মাদকাসক্ত পুলিশ ও কারবারিদের তালিকা হচ্ছে ৬৪ জেলায়         ফ্লাইটে সর্বোচ্চ ২৬০ ও মাঝারি এয়ারক্রাফটে ১৪০ যাত্রী নেয়া যাবে         এমসি কলেজে ধর্ষণ : জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         চিনিশিল্পকে নতুন করে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে এই সরকার : শিল্পমন্ত্রী         করোনায় প্রাণ গেল বিএসএমএমইউ অধ্যাপকের         করোনায় কেউ না খেয়ে মারা না গেলেও থালায় ভাতের পরিমাণ কমে যাচ্ছে ॥ মেনন         নতুন জলাধার সৃষ্টি ও বিদ্যমানগুলোর ধারণক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর         করোনা ভাইরাসে আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫০৮