ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯

নওগাঁয় উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে সড়ক

প্রকাশিত: ০৭:৩৯, ২৭ মে ২০১৭

নওগাঁয় উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে সড়ক

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ২৬ মে ॥ সাপাহার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলের ওপর মাসনা তলা ঘাটে ১৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত পাঁচ কিমি. রাস্তা ও ৯৯ মিটার ব্রিজ উদ্বোধনের আগেই রাস্তার কার্পেটিং উঠে ফাটল ও গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। নিম্নমানের কাজে এলাকাবাসী ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। বর্ষার আগেই এই রাস্তা বিলের পানিতে তলিয়ে যাবে বলেও ধারণা করছেন এলাকাবাসী। জানা গেছে, সীমান্তবর্তী কলমুডাঙ্গাসহ এলাকার ৫০টিরও বেশি গ্রামের জনসাধারণের যাতায়াত ব্যবস্থা উন্নয়নের কথা চিন্তা করে এলাকার এমপি সাধন চন্দ্র মজুমদার সরকারের যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে তদ্বির করে চলতি অর্থবছরে দীঘিরহাট হয়ে হুজরাপুর গ্রামের ওপর দিয়ে জবই বিলের মাসনা তলা ঘাটে ৯৯মিটার ব্রিজ ও বিলের ওপর পাঁচ কিমি. রাস্তা পাকাকরণের উদ্যোগ। সে মতে ওই রাস্তা ও ব্রিজের জন্য সরকারের মন্ত্রণালয় হতে ব্রিজের জন্য ৮ কোটি ৫ লাখ টাকা ও রাস্তার জন্য পাঁচ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। এরপর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের মাধ্যমে বেশ কিছুদিন পূর্বে রাস্তা ও ব্রিজের কাজ প্রায় একই সঙ্গে শুরু হয়। অতিসম্প্রতি রাস্তা ও ব্রিজের কাজ সমাপ্ত হলে রাস্তা ও ব্রিজটি উদ্বোধনের আগে ওই রাস্তায় জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচল শুরু করে। সামনে অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই এমপি ওই রাস্তা ও ব্রিজের উদ্বোধন করার কথা থাকলেও বর্তমানে পূর্ব দিকে ব্রিজের সামনে বেশ কিছু জায়গা জুড়ে রাস্তার নতুন কার্পেটিং উঠে ও রাস্তাটির দুই পার্শ্বে দেবে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তা নির্মাণের এক সপ্তাহ পার হতে না হতেই রাস্তার এই অবস্থা হলে সামনে বর্ষা মৌসুমে বিলের ওপর দিয়ে নির্মিত রাস্তাটির স্থায়িত্ব কত দিনের হবে, এ প্রশ্ন স্থানীয়দের। বর্তমানে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার মতো করে কর্তৃপক্ষ রাস্তার দুই পার্শ্বে এ প্রশ্ন স্থানীয়দের পুরাতন ইট দিয়ে স্তূপ করে ঢেকে রেখেছে। এ বিষয়ে উপজেল প্রকৌশল অধিদফতরের কর্মকর্তা সুলতান জানান এই উপজেলায় আমি নতুন এসেছি ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, রাস্তাটি তিনি দেখে এসেছেন।