বৃহস্পতিবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি হারিয়ে গেছে ॥ নাসিম

স্টাফ রিপোর্টার ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি ভুল করেছে এবং হারিয়ে গেছে। বাংলাদেশের কোথাও আর দলটির কোন অবস্থান নেই। দলের চেয়ারপার্সনের ভুল সিদ্ধান্তের জন্য এমনটি হয়েছে এবং নির্বাচন বয়কট করে সব হারিয়েছে। তাই বিএনপিকে পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিয়ে গণতন্ত্রের পথে ফেরার এবং সহিংসতা বর্জনের আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক গবেষণা দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) মিলন হলে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডাঃ শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) ডাঃ মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আপনি যে পথ অনুসরণ করছেন সেটি মানুষের কল্যাণের জন্য নয়। আপনি মানুষের বিশ্বাস ও আস্থা হারাচ্ছেন। আমাদের কাউন্সিলে বিএনপির নেতাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম এবং আশা করেছিলাম তারা আসবেন। কিন্তু তারা হতাশ করেছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের সব ক্ষমতাধর দেশ বাংলাদেশকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসছে। কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্ব। আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল দলের ইমেজ বৃদ্ধি করেছে, যেটা দেশের গণতন্ত্রকে সুসংহত করবে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ১১টি দেশের রাজনৈতিক নেতারা আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিলে অংশ নিয়েছেন। তারা সবাই দেখেছেন আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছে এবং জনগণের চাহিদা পূরণ করছে। কাজ দিয়েই জনগণের মন জয় করতে হবে। তবেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ একই ভাবে এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণকে খুব ভালবাসেন। তিনি মায়ের মমতা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে আগুনে পোড়া রোগীদের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন। তিনি আরও বলেন, ১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বিদেশে চাল রফতানিও করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বের কারণেই এসব সম্ভব হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আরও গবেষণা বৃদ্ধি করতে হবে। নতুন নতুন রোগ প্রতিরোধ করতে এবং রোগীদের কম মূল্যে চিকিৎসা দেয়ার জন্য গবেষণা বাড়াতে হবে। চিকিৎসাসেবা পাওয়া জনগণের মৌলিক অধিকার। একজন সুস্থ মানুষই পারেন জাতি গঠনে ভূমিকা রাখতে এবং একজন চিকিৎসকই পারেন একজন রোগীর অধিকারকে বাস্তবায়ন করতে।

বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডাঃ কামরুল হাসান শিক্ষা এবং গবেষণায় আরও ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানান। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন মেডিক্যাল উচ্চশিক্ষা, গবেষণা ও মেডিক্যাল চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে যাচ্ছে এ বিশ্ববিদ্যালয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় আগের তুলনায় এখন অনেক বেশি প্রাণবন্ত। বিকেলে, সন্ধ্যায় এমনকি রাতেও সিনিয়র অধ্যাপকবৃন্দ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ নিয়মিত রাউন্ড দিচ্ছেন। সন্ধ্যায় অনেক শিক্ষক ক্লাস নিচ্ছেন। চিকিৎসকবৃন্দ তার কর্তব্যরত ওয়ার্ডে, বহির্বিভাগে যথাসময়ে উপস্থিত থেকে দায়িত্ব পালন করছেন। নার্সরা নিজ হাতে রোগীদের ওষুধ খাওয়াচ্ছেন। সব মিলিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছে। উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় দেশের সকল মানুষের বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়কে দেশের মানুষের আকাক্সক্ষা পূরণে চিকিৎসাসেবা, চিকিৎসা শিক্ষা ও গবেষণায় অবশ্যই আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হবে। উপাচার্য আরও বলেন, রোগীদের সেবার পরিধি বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে ইতোমধ্যে হাসপাতালের শয্যা ও কেবিন সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। আইসিউসংবলিত অত্যাধুনিক সিসিইউ, এনআইসিউ চালু করা হয়েছে। একটি আধুনিক আইসিউ কমপ্লেক্স ও অপারেশন থিয়েটার কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে গ্র্যাজুয়েট নার্সিং বিভাগ, রিউমাটোলজি মেডিসিন বিভাগ, এ্যান্ডোক্রাইনোলজি মেডিসিন বিভাগ, সেন্টার ফর প্যালিয়াটিভ কেয়ার, সেন্টার ফর নিউরোডেভেলপমেন্ট অটিজম ইন চিলড্রেন চালু করা হয়েছ। জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবা, নবজাতকদের চিকিৎসাসেবা, তোতলামি ও বধিরদের চিকিৎসাসেবায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় চিকিৎসাসেবার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকল্পও চালু রয়েছে।

বিশ^ দৃষ্টি দিবস পালিত

বিশ^ দৃষ্টি দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে অপর এক আলোচনা সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সরকারী হাসপাতালে অনিয়মের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি অনিয়ম-দুর্নীতি প্রতিরোধে সর্বোচ্চ সচেষ্ট থেকেছেন। অনিয়ম করলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ দীন মোঃ নুরুল হককে এ্যাওয়ার্ড ফর আউটস্ট্যান্ডিং লিডারশিপ ইন ন্যাশনাল আই কেয়ার প্রদান করা হয়। এছাড়া সর্বোচ্চ ছানি অপারেশনের জন্য ডাঃ শহীদুল ইসলাম ও ডাঃ মোঃ শাহরিয়ারকে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেনÑ স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম আজাদ, সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ দীন মোঃ নুরুল হক প্রমুখ।

এর আগে সকালে দিবসটি উপলক্ষে রাজধানীর আগারগাঁও সড়কে সচেতনতামূলক শোভাযাত্রায় কয়েক শ’ চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ নেন।

শীর্ষ সংবাদ:
জীববৈচিত্র্য রক্ষায় চারটি পদক্ষেপ নিতে বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর         পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে গ্রিনলাইন         প্রথম আলো সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানির দিন ধার্য         যুক্তরাষ্ট্রে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে বন্দুকধারীর হামলা ॥ গুলিবিদ্ধ ৭         মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি ॥ বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যা মামলা         ট্রাম্প-বাইডেন প্রথম নির্বাচনী বিতর্কে তিক্ততা, বিশৃঙ্খলা         সরকার দেশের স্বার্থে ব্যবসায়ীদের সুবিধা দিচ্ছে ॥ অর্থমন্ত্রী         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ছে         কোমল পানীয়ের নামে আমরা কী খাচ্ছি?         আলোচনার শীর্ষে টিলাগড় ॥ দুই আসামি রিমান্ডে         বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র বিমান চলাচল চুক্তি সই         জাপানী বড় বিনিয়োগের হাতছানি         ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের আজ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন         ১৬ কোটি মানুষের একমাত্র আশা ভরসা শেখ হাসিনা         চাকরির প্রলোভনে কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক গ্রেফতার         জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ         একাদশ সংসদের ৬১ শতাংশ সদস্যই ব্যবসায়ী         বিকাশের টাকা ডাকাতির ঘটনায় গাড়িসহ ৪ জন গ্রেফতার         বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়নি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করবে ডিএনসিসি’