বুধবার ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

যারা গেট খোলে না তাদের সঙ্গে সংলাপ নয় ॥ হাছান মাহমুদ

  • চট্টগ্রামে ১৪ দলের সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ দেশের জনগণ পেট্রোল বোমাবাজদের গণপিটুনি দেয়া শুরু করেছে। নেপথ্যের কারিগররাও রেহাই পাবে না। সাধারণ মানুষ তাদেরও খুঁজে বের করে গণপিটুনি দেবে। যারা গেট খোলে না তাদের সঙ্গে কোন সংলাপ হবে না। যে ইনজেকশনের কারণে বিএনপি নেত্রী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেননি, সেই একই ইনজেকশন দিয়ে জনগণও আপনাদের ঘুম পাড়িয়ে রাখবে।

বুধবার চট্টগ্রামের লালদীঘি মাঠে নাশকতা, সহিংসতা ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে আয়োজিত ১৪ দলের সমাবেশে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, সংসদ সদস্য মইনুদ্দিন খান বাদল, চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা সফল আলী, জাসদ নেতা জসিম উদ্দিন বাবুল ও সাম্যবাদী দলের অমুল্য বড়ুয়া। এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট এদেশের ভবিষ্যত প্রজন্মকে ধংস করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তারা শিশুদের শিক্ষা জীবন ধ্বংস করতে হরতাল অবরোধ দিয়ে রেখেছে। কিন্তু তাদের ভয়ে পরীক্ষা পেছাবে না। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের কোন ক্ষতি করার চেষ্টা করা হলে কাউকে রেহাই দেয়া হবে না। মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, নাশকতার জন্য কারা রসদ যোগাচ্ছে, কাদের বাড়িতে বোমা তৈরি হচ্ছে ও কোন কোন বাড়িতে নাশকতার পরিকল্পনা হয় সে তালিকা আমাদের হাতে রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের গায়ে হাত দেয়ার পরিণতি ভয়াবহ হবে বলে তিনি হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে পাওয়া মাতৃভূমি ধ্বংসের অপতৎপরতা আমরা বেঁচে থাকতে কখনও হতে দেব না। তিনি নাশকতা বন্ধে নিরাপত্তা বাহিনীকে সহযোগিতা করার জন্য ১৪ দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

শীর্ষ সংবাদ:
চামড়ার বাজারে ধস ॥ প্রধান চার কারণ চিহ্নিত         মানুষের উন্নত জীবন ধারা নিশ্চিত করাই মূল লক্ষ্য         ষড়যন্ত্রকারীদের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে সতর্ক থাকুন ॥ কাদের         নরেন দাস ছিলেন বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ সৈনিক ॥ আইনমন্ত্রী         জুলাইয়ে রেমিটেন্সে রেকর্ড         টেকনাফে পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা নিহত         আজ শহীদ শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী         এক সপ্তাহের মধ্যে বন্যার পানি কমবে         করোনা পরীক্ষার সংখ্যা কমলেও রোগী শনাক্তের হার বেড়েছে         আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে হত্যা         ভ্যাকসিন পরীক্ষার জন্য চীনা কোম্পানির আবেদন         করোনায় চলে গেলেন টিভি ব্যক্তিত্ব বরকতউল্লাহ         খোরশেদ আলম সুজন চসিকের প্রশাসক         নেত্রকোনার ডিসি প্রত্যাহার         এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ নিজস্ব জমিতে স্থানান্তরের নির্দেশ         ৯ আগস্ট থেকে একাদশ শ্রেণির ভর্তির অনলাইন কার্যক্রম শুরু         পুলিশের গুলিতে নিহত সাবেক মেজর সিনহার মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন         করোনা চিকিৎসায় সহজ কোনো সমাধান নেই : ডব্লিউএইচও         পাপিয়ার বিরুদ্ধে সোয়া ৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মামলা         বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ অনেক আগেই উন্নত দেশে পরিণত হতো : প্রযুক্তিমন্ত্রী        
//--BID Records