বুধবার ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ জুন ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

এখন সময় মিমের

  • তারকা

‘পদ্ম পাতার জল’ চলচ্চিত্রের শূটিং শেষ করে কক্সবাজার থেকে রাঙ্গামাটিতে কাজ করে গত মঙ্গলবার সকালে সোনারগাঁওয়ের উদ্দেশে রওয়ানা দিয়েছিলেন মিম। কুমিল্লা এসে গাড়ি খারাপ হয়ে যাওয়ায় একটি স্কুলে গিয়ে সময় কাটানোর জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন মিম। সেদিন বিজয় দিবস থাকার কারণে স্কুলভর্তি শিক্ষার্থী ছিল। সবাই একনজর মিমকে দেখার জন্য ব্যাকুল হয়ে পড়ে। শুরুতে পরিস্থিতি চলচ্চিত্রের ইউনিট সামাল না দিতে পারলেও মিম সবার সঙ্গে একটু একটু করে সময় নিয়ে দেখা করায় মিমের ভক্তদের মাঝে স্বস্তি ফিরে আসে। সবার মোবাইলে ছবি তোলা নিয়ে মিম যেমন ব্যস্ত ছিলেন ঠিক তেমিন অটোগ্রাফ দেয়া নিয়েও মিম ব্যস্ত হয়ে পড়েন। ঠিক ওই সময়ই দৈনিক জনকণ্ঠের পক্ষ থেকে ফোন করলে মিমের মা ছবি সাহা ফোন রিসিভ করে বলেন, ‘নিজের চোখে না দেখলে হয়ত বিশ্বাসই করতে পারতাম না আমার মেয়ের এত ভক্ত আছে। সত্যিই একজন মা হিসেবে আমি আজ গর্বিত। সবাই দোয়া করবেন মিম যেন ভাল ভাল কাজ করতে পারে।’ এর পরই কথা হয় মিমের সঙ্গে। মিম বলেন, ‘গাড়ি খারাপ হওয়ায় প্রথমে মনটা একটু খারাপই ছিল। কিন্তু পরে স্কুলের শিক্ষার্থীদের ভালবাসা দেখে মুগ্ধ হই আমি। মানুষের ভালবাসা নিয়েই আমি আগামীর পথে এগিয়ে যেতে চাই। দর্শকের কাছে বিশেষ অনুরোধ থাকবে সবাই যেন হলে গিয়ে আমাদের বর্তমানের চলচ্চিত্রগুলো উপভোগ করেন। কারণ এখন সত্যি সত্যিই ভাল ভাল চলচ্চিত্র নির্মিত হচ্ছে।’ ফুলেশ্বরী’ মিম অভিনীত ‘পদ্ম পাতার জল’ চলচ্চিত্রের চরিত্রের নাম। একটি চ্যালেঞ্জিং চরিত্র। চ্যালেঞ্জিং বলেই এতে অভিনয়ের জন্য তাঁকে নির্বাচিত করেন চলচ্চিত্রটির পরিচালক তন্ময় তানসেন। তন্ময় তানসেন বলেন, ‘আমি যখন ফুলেশ্বরী চরিত্রটি নিয়ে ভাবি, তখন এই চরিত্রে মিমের বিকল্প আর কাউকেই ভাবতে পারিনি। যে কারণে তাঁকে নিয়ে চলচ্চিত্রটির কাজ করছি। মিম অনেক শ্রম দিয়ে তাঁর চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করছেন। আশা করি দর্শকের অনেক ভাল লাগবে।’ মিম বলেন, ‘সবসময়ই আমার চেষ্টা থাকে আমাকে যে চরিত্র দেয়া হয় তাতে ভালভাবে অভিনয় করার। আমার চেষ্টার বা আন্তরিকতার কোন ত্রুটি থাকে না।’ মিম বর্তমানে সোনারগাঁওতে আছেন। সেখান থেকে আজ অথবা কাল শূটিং শেষ করে তাঁর ঢাকায় ফেরার কথা। ২০ ডিসেম্বর থেকে তিনি ওয়াজেদ আলী সুমনের নির্দেশনায় ‘সুইটহার্ট’ চলচ্চিত্রের শূটিং আবারও শুরু করবেন। এই চলচ্চিত্রে তাঁর বিপরীতে রয়েছেন এই প্রজন্মের নাম্বার ওয়ান হিরো বাপ্পী চৌধুরী। মিম বলেন, ‘বাপ্পীর সঙ্গে এটাই আমার প্রথম চলচ্চিত্র। এরইমধ্যে চলচ্চিত্রটির কিছু অংশের কাজ করেছি আমরা। ভাল লেগেছে বাপ্পীর সঙ্গে কাজ করতে। আশা করি সুইটহার্টও অনেক ভাল একটি চলচ্চিত্রই হবে।’ মিম আপাতত এই দুটি চলচ্চিত্র নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন। এই দুটি চলচ্চিত্রের কাজ পুরোপুরি শেষ হতে সময় লেগে যাবে আসছে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এরপর নতুন কোন চলচ্চিত্রের কাজ করবেন তিনি। মিম বলেন, ‘এরমধ্যে অনেক চলচ্চিত্রে কাজ করার প্রস্তাব পাচ্ছি। তবে আশা করছি নতুন বছরে নতুন ভাল চমক দিতে পারব।’ এদিকে চলতি বছরেই গ্রামীণ ফোনের একটি বিজ্ঞাপনে দ্বৈত চরিত্রে মডেল হিসেবে অভিনয় করে বেশ আলোচনায় চলে এসেছিলেন মিম। বছরজুড়ে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি এই বিজ্ঞাপনে কাজ করেও বেশ আলোচনায় ছিলেন তিনি। তবে বছর শেষ হতে না হতেই একই সেল ফোন কোম্পানির নতুন আরেকটি অফার নিয়ে আসা বিজ্ঞাপনের মডেল হয়ে আবারও কাজ করেছেন মিম। এবারও বিজ্ঞাপনে দ্বৈত চরিত্রে কাজ করেছেন তিনি। মিমকে নিয়ে গ্রামীণ ফোনের এবারের বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছেন আদনান আল রাজীব। বিজ্ঞাপনটির শূটিং হয়েছে শ্রীমঙ্গলে। এরইমধ্যে বিভিন্ন চ্যানেলে নিয়মিতভাবে বিজ্ঞাপনটি প্রচারও শুরু হয়েছে। প্রথমদিন থেকেই ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন মিম তাঁর নতুন বিজ্ঞাপনটির জন্য। নতুন বিজ্ঞাপনটি নিয়ে মিম বলেন, ‘একই কোম্পানির আগের বিজ্ঞাপনের কনসেপ্ট ভাল লাগায় কাজটি করেছিলাম। অনেক ভাল হয়েছিল কাজটি। নতুন বিজ্ঞাপনের কনসেপ্টও অনেক ভাল ছিল। দুই বোনের গল্প। একজন মডার্ন অন্যজন একেবারেই সহজ সরল। বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পর থেকে আগের চেয়েও অনেক বেশি রেসপন্স পাচ্ছি। আমি নির্মাতা আদনান আল রাজীবের প্রতি কৃতজ্ঞ যে তিনি আমাকে এতো চমৎকারভাবে বিজ্ঞাপনটিতে তুলে ধরেছেন।’ এদিকে অঞ্জন দত্ত পরিচালিত মিম অভিনীত ‘মন বাকসো’ চলচ্চিত্রটির শূটিং এরইমধ্যে শুরু হবার কথা থাকলেও অনিবার্য কারণবশত শূটিং পিছিয়ে গেছে। উল্লেখ্য, বিশেষ দিবসে মিম নাটক কিংবা টেলিফিল্মে কাজ করলেও গত বিজয় দিবসের কোন নাটকে দেখা যায়নি তাঁকে। কারণ মিম এখন চলচ্চিত্রেই সময় দিচ্ছেন বেশি। একজন নায়িকা হয়েই নিজেকে চলচ্চিত্রের শীর্ষস্থানে নিয়ে যেতে চান। চলচ্চিত্রকে ঘিরে মিমের স্বপ্ন পূরণ হোক।

ছবি : আরিফ আহমেদ

শীর্ষ সংবাদ:
অতি ঝুঁকিপূর্ণ ৩৬ জেলা ॥ করোনায় ১৩ জেলা ঝুঁকিপূর্ণ, কম ১৫ জেলা         এ দিন থাকবে না সুদিন আসবে         করোনায় মৃত্যু সাত শ’ ও আক্রান্ত ৫২ হাজার ছাড়িয়েছে         প্রত্যন্ত কোন এলাকা দখলে নিয়ে ‘মুসলিম ভিলেজ’ গড়তে চায় আনসার         যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ দমনে সেনা মোতায়েনের হুমকি ট্রাম্পের         টেস্টের সীমাবদ্ধতা- করোনা নিয়ন্ত্রণে বড় চ্যালেঞ্জ         ৪৭০ জনের মানব পাচার সিন্ডিকেট         বিশ্বব্যাপী বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, কমছে মৃত্যু         করোনার প্রথম ওষুধ প্রস্তুত দাবি রাশিয়ার         দেশের ৪ কোটি তামাক ব্যবহারকারী ভয়াবহ করোনা ঝুঁকিতে         আবাদি জমি পতিত রাখা যাবে না, উদ্যোগ নিচ্ছে মন্ত্রণালয়         বাসের ভাড়ায় ঢাকা চট্টগ্রামে যাত্রী টানছে ইউএস বাংলা         কারাগারের কর্মকর্তা কর্মচারীরা আতঙ্কে         নৌ ও সড়কপথের স্বাস্থ্যবিধি নামকাওয়াস্তে         করোনা উপসর্গ নিয়ে প্রকৌশলী ও ইমামসহ মৃত্যু ১৮         আগামী শিক্ষাবর্ষে নতুন কারিকুলামে পাঠদান শুরু হচ্ছে না         ১২৫৬ জন মুক্তিযোদ্ধাকে স্বীকৃতি দিয়ে গেজেট প্রকাশ         সব জেলা হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৯১১         প্রথমবারের মত ভার্চুয়াল একনেকে ১৬২৭৬ কোটি খরচে ১০ প্রকল্প অনুমোদন        
//--BID Records