মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
২৯ এপ্রিল ২০১৭, ১৬ বৈশাখ ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সৈয়দপুরে প্রতিকী কারবালায় ছিল মানুষের ঢল

প্রকাশিত : ২৫ অক্টোবর ২০১৫
সৈয়দপুরে প্রতিকী কারবালায় ছিল মানুষের ঢল

স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারী॥ আগুরা বা মহররমে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের হাতিখানায় অবস্থিত প্রতিকী কারবালায় ছিল হাজার হাজার সুন্নী মুসলমানদের ঢল। শনিবার দুপুরের পর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রতিকী কারবালা প্রান্তরে কানায় কানায় মানুষে পূর্ণ হয়ে উঠে। পুরো কারবালা ময়দানে পুরুষ আর শিশু দ্বারা পূর্ন আর বাহিরে ছিল মহিলাদের বিশাল জমায়েত।

এর আগে শুক্রবার রাত ১০টা থেকে শুরু হয়েছিল আবাদল বৃদ্ধা বনিতার অংশগ্রহনে তাজিয়া মিছিল। রাত ব্যাপী ঢোলের বাজনা, লাঠি খেলা চলে। উত্তরবঙ্গের সব চেয়ে সৈয়দপুরেই ৭০টি ইমামবাড়া রয়েছে। মান্নত, নিশান চড়ানো ও ফাতিহা পাঠ হয়ে থাকে এসব ইমামবাড়ায়। স্বাধীনতার পর থেকে অবাঙালিরা তাদের কৃষ্টি ও সভ্যতার কিছুটা পরিবর্তন আনলেও মহরমকে ঘিরে তাদের সংস্কৃতি অটুট রেখেছে। পবিত্র আশুরার বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে ছিল হযরত ইমাম হোসেইন (রা.) এর দুলদুল ঘোড়ার সজ্জিত প্রতিকী দুলদুল ঘোড়া (পাইক), ইমামবাড়াগুলোতে নিশান উড়ানো, আলোকমালায় সজ্জিতকরণ, ফাতেহা পাঠ, মিলাদ মাহফিল, শরবত বিতরণ, কারবালার উদ্দেশ্যে মান্নত পাইকদের ধর্মীয় শোভাযাত্রা, তাজিয়া মিছিল ও ঢোল এবং লাঠি খেলা।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আমিরুল ইসলাম জানান, ঢাকায় হোসনী দালানে বোমা ট্রাজেডীর ঘটনাকে সামনে রেখে পুরো সৈয়দপুরে নেওয়া হয় কড়া নিরাপত্তা। সৈয়দপুরে এসব আনুষ্ঠানিকতা বেশি থাকায় গোটা সৈয়দপুরকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছিল।কারবালার সব প্রবেশ পথে মোতায়েন করা হয় আইনশৃঙখলা বাহিনী, পুরো কারবালা ময়দানকে পুলিশ,বিজিবি,ডিবি ও র‌্যাব ঘিরে রেখে মানুষকে নিরাপত্তা প্রদান করা হয়। ফলে সুষ্ঠ ও শান্তিময় পরিবেশে আগুরা পালিত হয় সৈয়দপুরে।

প্রকাশিত : ২৫ অক্টোবর ২০১৫

২৫/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: