ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

মেয়র আতিকুল ইসলাম 

বিশ্বকাপের সব খেলা বড় পর্দায় দেখাবে ডিএনসিসি

প্রকাশিত: ১৯:৩৮, ২২ নভেম্বর ২০২২

বিশ্বকাপের সব খেলা বড় পর্দায় দেখাবে ডিএনসিসি

মেয়র আতিকুল ইসলাম

মাঠে এক সঙ্গে সবাই মিলে খেলা দেখার মাধ্যমে নিজেদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূণ সম্পর্ক গড়ে উঠবে। বড় পর্দায় খেলা দেখানোর ফলে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। ডিএনসিসির সব এলাকায় মাসব্যাপী বিশ্বকাপের সব খেলা বড় পর্দায় (ডিজিটাল স্ক্রিন) দেখানো হবে।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর ২০২২) বিকালে মিরপুর ১১নং সেকশনের প্যারিস রোড সংলগ্ন মাঠে কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২ এর খেলা বড় পর্দায় (ডিজিটাল স্ক্রিন) মাসব্যাপী প্রদর্শনের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

এ সময় ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, দলবেধে খেলা দেখার আনন্দ অনেক বেশি। সবার আনন্দের কথা চিন্তা করে আমরা বিভিন্ন জায়গায় বড় পর্দায় খেলা দেখানোর ব্যবস্থা করেছি। অনেকে অফিস থেকে ফেরার পথেই খেলা দেখার সুযোগ পাবে।

ডিএনসিসি এলাকায় নয়টি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানো হচ্ছে। স্থানগুলো হলো: ১) রবীন্দ্র সরণি, উত্তরা ২) মানিক মিয়া এভিনিউ  ৩) মুজিব চত্ত্বর, হাতিরঝিল, মধুবাগ ৪) নগর ভবন, গুলশান-২, ৫)বছিলা, মোহাম্মদপুর (লাউতলা খাল সংলগ্ন) ৬)প্যারিস রোড সংলগ্ন মাঠ, ৭)কাচকুড়া কলেজ মাঠ, ৮)শ্যামলী পার্ক, ও ৯) খিলগাঁও তালতলা মার্কেট। আরও কয়েকটি স্থান নির্বাচন করে এই সংখ্যা বাড়ানো হবে।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, জনগণের সুযোগ-সুবিধা ও সমস্যার কথা শোনার জন্য আমি প্রতি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভা শুরু করেছি। জনগণের কাছে গিয়ে তাদের সমস্যার কথা সরাসরি শোনার জন্য আমি নিজে তাদের কাছে যাচ্ছি। জনগণের দাবি পূরণ করে ও সমস্যা সমাধান করে সুন্দর নগর গড়ে তোলাই আমার লক্ষ্য। জনগণকে সম্পৃক্ত করে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছি।

শিশুদের খেলাধূলার গুরুত্বের কথা তুলে ধরে মেয়র বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে যেমন প্রয়োজন শারীরিক সুস্থতা, তেমনই প্রয়োজন মানসিক সুস্থতা। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধূলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অথচ শহরে প্রয়োজনীয় খেলার মাঠ নেই। চারপাশে শুধু ভবন নির্মাণ হচ্ছে। শুধু ভবন নির্মাণ করলে হবে না। শিশুদের বিকাশের জন্য খেলার সুযোগ করে দিতে হবে।

ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, ছোট শিশুদের কথা চন্তা করতে হবে। শিশুরা যখন খেলার মাঠের জন্য অনশন করে সেটা সত্যি দুঃখজনক। মাঠের অভাবে তারা খেলতে পারে না। মানুষ হাঁটার সুযোগ পাচ্ছে না। ডায়বেটিকস রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। মাঠের জায়গায় প্লট এটা মানা যায় না। এই প্যারিস রোড মাঠে শিশুরা উৎসব মুখর পরিবেশে আজকে খেলা দেখছে। প্যারিস রোডের এই মাঠে শিশুরা খেলবে। এই স্থানটি মাঠ হিসেবেই থাকবে।

বড় পর্দায় সরাসরি খেলা প্রদর্শনীর শুভ উদ্বোধন শেষে ডিএনসিসি মেয়র শিশুদের সঙ্গে মাঠে বসে আর্জেন্টিনা বনাম সৌদি আরবের খেলাটি উপভোগ করেন এবং শিশুদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বড় পর্দায় মাঠে একসঙ্গে বিপুল সংখ্যক মানুষ এক সঙ্গে খেলা দেখার কারণে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। শিশুদের আনন্দের কথা ভাবতে হবে। তাদের জন্য খেলার মাঠের ব্যবস্থা করতে হবে। এই প্যারিস রোড মাঠ প্লট হিসেবে বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। এখানে কিছুতেই প্লট  বরাদ্দ দেয়া যাবে না। প্লট যারা পেয়েছিলেন তাদের জন্য অন্য জায়গায় প্লটের ব্যবস্থা করা হবে। এটি খেলাধুলার জন্য মাঠ হিসেবেই থাকবে।

৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাজী জহিরুল ইসলাম মানিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কাউন্সিলররা।

এসআর

×