ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

রমজানে নিত্যপণ্যের আমদানি এলসি সহজ করার নির্দেশ

গ্রাহকের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে ইসলামী ব্যাংকে

প্রকাশিত: ১৫:২৯, ৫ ডিসেম্বর ২০২২

গ্রাহকের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে ইসলামী ব্যাংকে

ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড

ইসলামী ব্যাংকে গ্রাহকের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেছেন, ইসলামী ব্যাংক রাষ্ট্রীয়ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যারা এ ব্যাংকে ডিপোজিট রেখেছেন তাদের আমানত সম্পূর্ণ নিরাপদ। বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের আমানতের নিশ্চয়তা দিচ্ছে। তবে বাজারে অনেক গুজব আছে। একটা ভালো প্রতিষ্ঠানকে গুজব বা অন্য কোনোভাবে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করতে পারবে না। রবিবার বিকেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন মেজবাউল হক। মেজবাউল হক বলেন, ইসলামী ব্যাংকে গ্রাহকদের আমানতের পূর্ণ নিশ্চয়তা রয়েছে। তবে, সেখানে কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়েছে কি-না তার তদন্ত চলছে। তদন্তের পরই আমরা বলতে পারব।

ভোক্তা ঋণের সর্বোচ্চ সুদের হার ১২ শতাংশ মৌখিকভাবে অনুমোদন করা হয়েছে এবিবির এমন দাবি নিয়ে তিনি বলেন, আমরা এ নিয়ে কোনো সার্কুলার করিনি। আগের নিয়মেই ভোক্তা ঋণের সুদহার রয়েছে। তবে কোনো ব্যাংক যদি ১২ শতাংশের কথা বলে থাকে তাহলে সেটা আগাম প্রস্তুতি। এটা হলে আমরা সার্কুলার দেব। গ্রাহক ইসলামী ব্যাংক থেকে আমানত উঠিয়ে নিচ্ছেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বিশ্বাসের সেই সংকট কেটে গেছে। আমানতকারীরা পুনরায় ব্যাংকে টাকা রাখছেন। এছাড়া বাণিজ্য ঘাটতি অনেকটাই কমে এসেছে। সহসাই ডলারসহ সামষ্টিক অর্থনৈতিক সংকট কেটে যাবে।

এর আগে রবিবার বাংলাদেশ ব্যাংকে ব্যাংকার্স সভায় সভাপতিত্ত্ব করেন গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার। সভায় আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও সরবরাহ নিশ্চিত করতে আমদানিতে সর্বোচ্চ সহায়তা করার জন্য বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। সভা শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, নিয়মিত ব্যাংকার্স সভায় সামগ্রিক অর্থনীতিসহ ব্যাংক খাতের সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম আসন্ন রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করা। এজন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানি ঋণপত্র (এলসি) সহজ করার বিষয়ে এমডিদের বলা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে এলসি খোলার জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে সব ধরনের নীতি-সহায়তা দেওয়া হবে। রোজায় প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য ভোজ্যতেল, ছোলা, ডাল, পেঁয়াজ, খেজুর, ফলমূল এবং চিনিসহ নিত্যপণ্যের আমদানি অর্থায়নের ক্ষেত্রে মার্জিনের হার ন্যূনতম পর্যায়ে রাখার জন্যও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান মুখপাত্র।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কৃষি খাতে সর্বোচ্চ ঋণ সহযোগিতা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেকোনো মূল্যে এই খাতের রিডের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে হবে যদি কোনো ব্যাংক লক্ষ্যমাত্রা পূরণে ব্যর্থ হয় তাহলে তা পূরণের জন্য যাদের সক্ষমতা আছে তাদের সহযোগিতায় এ লক্ষ্যমাত্রা শতভাগ নিশ্চিত করতে হবে। তিনি বলেন, বৈঠকে বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম বিষয় হলো- আসন্ন রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে আমদানি ঋণপত্র (এলসি) সহজীকরণ বিষয়। এ নিয়ে ব্যাংকগুলোর এমডিদের সঙ্গে কথা হয়েছে। রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবারহ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আমদানিতে সব ধরনের সহায়তা দিতে এমডিদের নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, অপ্রয়োজনীয় এলসি খোলা বন্ধ রয়েছে। তবে, রমজানে প্রয়োজনীয় নিত্যপণ্যের আমদানি অর্থায়নের ক্ষেত্রে মার্জিনের হার ন্যূনতম পর্যায়ে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
 

monarchmart
monarchmart