শনিবার ৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ব্যবসায়ীকে ভয় দেখিয়ে ৯ লাখ টাকা আদায় করায় দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা

ব্যবসায়ীকে ভয় দেখিয়ে ৯ লাখ টাকা আদায় করায় দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ বগুড়ায় এক বিড়ি ব্যবসায়ীর নিকট থেকে জোর করে ৯ লাখ টাকা নেয়ার ঘটনায় ডিবি পুলিশের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তি মুলক ব্যবস্থা ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ প্রশাসন। এরা হলেন- ডিবি ইন্সপেক্টার(বগুড়া পুলিশের সাইবার সেলে কর্মরত) এমরান হোসেন তুহিন ও ডিবির সাব ইন্সপেক্টার(এসআই) শওকত আলম।

এদের মধ্যে এসআই শওকতকে বরখাস্ত করে ক্লোজড করা হয়। রবিবার দু’ পুলিশ কর্মকর্তাকেই রাজশাহীতে পুলিশের রিজার্ভ রেঞ্জ ফোর্সে(আরআরএফ) ক্লোজড করা হয়। এবিষয়ে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি কাজ কাজ করছেন।

পুলিশ সুত্র জানায়, ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা ২৭ মে মধ্য রাতে শহরের আল আমিন কমপ্লেক্সে মাস্টার বিড়ির স্বত্বাধিকারী হেলাল উদ্দিনের অফিসে অরো একজন মাস্ক পড়া ব্যক্তিকে নিয়ে তল্লাশি চালায়। এসময় মামলার ভয় দেখিয়ে তার নিকট থেকে ৯ লাখ টাকা আদায় করা হয়।

তবে অপর একটি সুত্র জানায়, অবৈধ ব্যান্ড রোল সর্ম্পকিত কারণে তারা সেখানে অভিযান চালায়। তবে অবৈধ ব্যান্ড রোল পাওয়া গেলেও তা পুলিশ উদ্ধার করেনি বরং পুলিশের এক সিনিয়র কর্মকর্তার নাম বলে বিষয়টি ম্যানেজ করার কথা বলে কোটি টাকার ওপরে তারা দাবি করে।

শেষমেষ বৈঠকে একটি নির্দিষ্ট অংকের টাকার বিনিময়ে রফা হয় এবং এরই একাংশ ৯ লাখ টাকা ওই রাতেই দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিয়ে আসেন। পরবর্তীতে রফা হওয়া অংকের বাকি টাকা দেয়ার কথা থাকলেও ব্যবসায়ী আর দেননি।

এবিষয়ে জানাজানি হওয়ার পর পুলিশ প্রশাসনের নিকট ওই ব্যবসায়ী ১৩ জুলাই লিখিত অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হায়দার চৌধুরীকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

শনিবার ২৪ জুলাই ডিবি ইন্সপেক্টর তুহিনকে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে ক্লোজড এবং এস আই শওকত আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করে ক্লোজড করা হয়। রবিবার তাদের তাদের রাজশাহী আরআরএফ’তে সংযুক্ত করা হয়।

এব্যাপারে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুয়া জানিয়েছেন, ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে শাস্তি মুলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।অভিযুক্ত একজনকে বরখাস্তসহ দু’জনকেই আরআরএফ রাজশাহীতে ক্লোজড করার বিষয়টি তিনি স্বীকার করেন।

তিনি আরো জানান, কোন সিনিয়র অফিসারের নামে নয়, দুই কর্মকর্তা মামলার কথা বলে নিজেরাই ৯ লাখ টাকা নিয়েছিলেন বলে প্রমান পাওয়া গেছে। কয়েক দিনের মধ্যেই তদন্ত রিপোর্ট দাখিল হবে বলে তিনি আশা করেন।

অপর দিকে তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, বিষয়টি তদন্ত চলছে এবং মাস্ক পড়া অপর ব্যক্তির বিষয়েও খোঁজ নেয়া হচ্ছে। ব্যবসায়ীর অফিসে গিয়ে টাকা নেয়া হয়েছে এটি প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২২৭৯২৩৮৮৭
আক্রান্ত
১৫৪০১১০
সুস্থ
২০৪৬০৬২০৫
সুস্থ
১৪৯৭০০৯
শীর্ষ সংবাদ:
যুক্তরাষ্ট্রে ৬৫ ঊর্ধ্বদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার অনুমোদন         কুমিল্লা-৭ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন ডা: প্রাণ গোপাল         সরকারী চাকরিজীবীর প্রতিবন্ধী সন্তানদের জন্য হচ্ছে দিবাযত্ন কেন্দ্র         ঠাকুরগাঁওয়ে ওঁরাও সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী কারাম পূজা অনুষ্ঠিত         চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিতেন চক্রটি         ইউক্যালিপ্টাসের মতো কিছু বিদেশি গাছ বাংলাদেশের পরিবেশের ক্ষতি করেছে         বাংলাদেশ ওজোন স্তর রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে : পরিবেশ মন্ত্রী         স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে ফাইজারের টিকা : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে টিকার দাবিতে প্রবাসীদের বিক্ষোভ         বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে : সেতুমন্ত্রী         চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কে দুর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ২         প্রতারক এহসানকে পদক দিয়েছিলেন সাবেক জেলা প্রশাসক         ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের ‘প্রতারণা’র বিষয়ে তদন্ত চলছে : ডিএমপি         গভীর সমুদ্রের সেইলফিশ চলে আসছে বঙ্গোপসাগরের নদীর মোহনায়         আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না : কৃষিমন্ত্রী         জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সবার টিকা গ্রহণ বাধ্যতামূলক         নতুন শিক্ষাক্রমে হিজড়াদের জন্য যা থাকছে         টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর কোচের দায়িত্ব ছাড়ছেন রবি শাস্ত্রী         শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট