সোমবার ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আড়াই বছর পর বোধোদয়

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটিয়া, ২৮ মে ॥ পিতা-পুত্রের আলোচিত মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে আড়াই বছর পর চট্টগ্রামের পটিয়া থানা পুলিশ অনুসূচনা করেছে। উপজেলার হাইদগাঁও ইউনিয়নের পূর্ব হাইদগাঁও মাইজপাড়া এলাকায় আবু ছিদ্দিক (৫৫) ও পুত্র রহিম বাদশা (২৫) পুলিশের কারণে মারা যায়। দীর্ঘ আড়াই বছর পর রবিবার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) এমরান ভূঁইয়ার উপস্থিতিতে এসআই কুতুব উদ্দিনের অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষবাণিজ্যের বিষয় তদন্তকালে কুতুব এ অনুসূচনা করেন। এ সময় পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোঃ নেয়ামত উল্লাহসহ বিভিন্ন পত্রিকার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, পটিয়া থানা পুলিশ বিনা কারণে উপজেলার হাইদগাঁও গ্রামের রহিম বাদশাকে আটক করে। পরে পটিয়া থানার এসআই কুতুব রহিম বাদশাকে মারধর ও বৈদ্যুতিক শর্ট দিয়ে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে উপজেলার কোলাগাঁও এলাকার অজ্ঞাতনামা মহিলা হত্যা মামলায় তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। পরবর্তীতে ওই মামলায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়া হয়। চূড়ান্ত প্রতিবেদনে রহিম জড়িত নয় বলে উল্লেখ করেন। ঈদের আগে সে জামিন হওয়ার কথা থাকলেও জামিন হয়নি। যার কারণে ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর আবু ছিদ্দিক হার্টস্ট্রোক করে মারা যায়। ওই বছরের ৩০ অক্টোবর রহিম কারামুক্তি হয়। কারামুক্তির পর ৫ ডিসেম্বর পিতার শোকে ও পারিবারিক অপবাদ ক্ষোভে অভিমানে পুত্র রহিম বাড়ির আঙ্গিনায় একটি গাছে সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

দীর্ঘ আড়াই বছর পর তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কুতুব উদ্দিন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) এমরান ভূঁইয়ার সামনে পিতা-পুত্রের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে অনুসূচনা করেন। এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) এমরান ভূঁইয়া বলেন, পিতা-পুত্র মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে এসআই কুতুব অনুসূচনা করেছে। তবে সে তৎকালীন ওসির কথা বললেও নিয়ম অনুযায়ী মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাই দায়ী।

না’গঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতার শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ আদালতের কর্মচারী সুমন সরকারকে প্রকাশ্যে পেটানোর ঘটনায় অভিযুক্ত জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদল ও তার সহযোগীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এক ঘণ্টা কর্মবিরতি দিয়ে মানববন্ধন পালন করা হয়েছে। একই সঙ্গে তারা প্রধান বিচারপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ মুখ্য বিচারিক হাকিমের দৃষ্টি আর্কষণ করে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেছেন। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে। রবিবার সকাল ১০ থেকে ১১টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের কর্মচারী সমিতির উদ্যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের জারিকারক দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাকির হোসেন, মাহবুব রেজা, আলমগীর হোসেন নিয়াজি, জারিকারক দেলোয়ার হোসেন, কামরুল হাসান, মাসুদুর রহমান, আলামিন ভূঁইয়া, আছমা বেগম, জাহিদুর রহমান প্রমুখ।

শীর্ষ সংবাদ:
পাটুরিয়া ঘাটে ঈদফেরত যাত্রী-যানবাহনের চাপ বাড়ছে         ৬৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুরু হচ্ছে মিড-ডে মিল কার্যক্রম         স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবন-জীবিকাকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী         বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরু         মুজিববর্ষে সারাদেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন করা হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী         রাত ৮টার মধ্যে দোকানপাট ও শপিংমল বন্ধের নির্দেশ         জামালপুরে নৌকাডুবিতে দুই শিশুসহ তিন জনের মৃত্যু         গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু         চলাচল নিয়ন্ত্রণ থাকবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত         ১৫ আগস্টের ষড়যন্ত্রকারীদের অপচেষ্টা আজও চলমান ॥ কাদের         বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২৫ হাজার মানুষকে সহায়তা দেবে ইইউ         সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ        
//--BID Records