ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

সেটিং বিয়ে,কনে নিখোঁজ ও মানব পাচার ট্রাইব্যুনালে মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝালকাঠি  

প্রকাশিত: ১৭:১০, ২১ আগস্ট ২০২২

সেটিং বিয়ে,কনে নিখোঁজ ও মানব পাচার ট্রাইব্যুনালে মামলা

নিখোঁজ কনে নুসরাত জাহান ও  বর তরিকুল ইসলাম জুবায়ের

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা শুক্তগড় ইউনিয়নের কেওতা গ্রামের তরিকুল ইসলাম জুবায়ের বাড়ী থেকে তার স্ত্রী নুসরাত জাহান(১৯) রহস্য জনকভাবে নিখোঁজ থাকার ঘটনায় ঝালকাঠিতে মানব পাচার দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। 

আদালত বরিশালে পিবি আইকে মামলা তদন্ত ও নিখোঁজ ভিক্টিমকে উদ্ধারের নিদের্শ দিয়েছেন। কিন্তু এখন পযর্ন্ত নুসরাত জাহানের কোন সন্ধান মিলছে না। এ ব্যাপারে নুসরাত জাহানের বাবা মোঃ মহিউদ্দিন হাওলাদার বাদী হয়ে আদালতে মানব পাচার দমন (৪/২০২২) মামলা দায়ের করেছে। নুসরাত জাহান বাগেরহাট জেলার মোরলগঞ্জ উপজেলার নিশান বাড়িয়া ইউনিয়নের পশ্চিম চাপাইবাড়ৈখালী গ্রামের মোঃ মহিউদ্দিন হাওলাদারের কন্যা। 

গত ২০২২ সালের ২৮ জুলাই নুসরাত জাহানকে ইসলামি শরিয়াহ মোতাবে বিবাহ নিবন্ধন করে রাজাপুরের কেওতা গ্রামের মোঃ ইসমাইলের পুত্র তরিকুল ইসলাম জুবায়ের বিবাহ করে রাজাপুর নিয়ে আসে। ৩০ জুলাই ২০২২ তারিখ মোঃ মহিউদ্দিন তার কন্যাকে শশুরবাড়ি  দেখতে এলে জামাতা তরিকুল ইসলাম জুবায়ের জানায় নুসরাত তার পিত্রালয় চলে গেছে। পিতা মহি উদ্দিন বাড়ী গিয়ে না দেখতে পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজা-খুঁজি করে সন্ধান না পেয়ে ১২ আগস্ট ২০২২ তারিখ রাজাপুর থানায় আসলে থানা কর্তৃপক্ষ তাকে ট্রাইব্যুনালে মামলা করার পরামর্শ দেন। 

গত ১৪ আগস্ট এই আদালতে পিতা বাদী হয়ে জামাতা তরিকুল ইসলাম জুবায়েরসহ পরিবারের ৫জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে। অভিযোগে দাবী করা হয় তার কন্যাকে ঘটকের মাধ্যমে সেটিং বিবাহ করে এবং তার কন্যাকে ব্যবহার করে অসৎ উদ্দিশ্য চরিতার্থে নীতি বর্হিভূত কাজে নিয়োজিত করাসহ অন্যত্র পাচার করা হয়েছে।


 
 

×