মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

‘ভোটের আগেই রাশিয়াতে বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত'

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫, ০২:২৯ পি. এম.
‘ভোটের আগেই রাশিয়াতে বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত'

অনলাইন ডেস্ক॥ বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার সাময়িক বরখাস্ত প্রেসিডেন্ট সেপ ব্ল্যাটার বলেছেন ২০১৮ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ যে রাশিয়াতে হবে সে নিয়ে ভোটাভুটির আগেই সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছিল। ২০২২ সালের বিশ্বকাপ নিয়েও ভোটের আগেই এক ধরের বোঝাপড়া হয়ে গিয়েছিল। রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা তাসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এসব চাঞ্চল্যকর কথা বলেছেন মি ব্ল্যাটার।

সেপ ব্ল্যাটার বলেছেন, ২০১০ সালেই ভবিষ্যতের বিশ্বকাপগুলোর ভেন্যু নিয়ে এক ধরনের আলাপ আলোচনা হয়েছিল। সেখানেই ফিফা কর্মকর্তারা এক অর্থে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন ২০১৮ আর ২০২২ সালের বিশ্বকাপ হবে বিশ্বের সবচাইতে বড় দুই রাজনৈতিক শক্তি রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রে। মি ব্ল্যাটার বলছেন, বড় দেশগুলোর মধ্যে রাশিয়া যেহেতু কখনোই বিশ্বকাপ আয়োজন করে নি তাই ২০১৮ সালের বিশ্বকাপ আয়োজন রাশিয়াতে হবে এমন কথাবার্তা হয়েছিলো। আর তার পরে ২০২২ সালের বিশ্বকাপ হবে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার ব্যাপারে ফিফার নির্বাহী কমিটির ভোট আলাপ মাফিকই গিয়েছিলো। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে আগে সিদ্ধান্তের পরও ভোটাভুটির শেষমুহুর্তে বেকে বসে নির্বাহী কমিটির ইওরোপিয় কয়েকজন সদস্য। আর তাতে শেষমেশ ২২ সালের বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য নির্বাচিত হয়ে যায় কাতার। কাতারের ক্ষেত্রে বিশেষ করে ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজির হস্তক্ষেপ ছিল বলে দাবি করেন মি ব্ল্যাটার। কাতারের ক্রাউন প্রিন্সের সাথে সারকোজির এক মধ্যাহ্নভোজনে উয়েফা প্রধান মিশেল প্লাতিনিও ছিলেন বলে দাবি করেন ৭৯ বছর বয়সী এই কর্মকর্তা। যিনি দুর্নীতির দায়ে এখন ফিফা প্রেসিডেন্টের পদ থেকে ৯ মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত রয়েছেন।

ফিফার এবছরের প্রায় পুরোটাই কেটেছে নানা ধরনের দুর্নীতির কেলেঙ্কারির মধ্য দিয়ে।

এর আগে পঞ্চমবারের মতো ফিফার প্রেসিডেন্টের পদে নির্বাচিত হওয়ার কয়েকদিনের মাথায় মি ব্ল্যাটার পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছিলেন নূতন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেই তিনি চলে যাবেন। সেই নির্বাচন হতে যাচ্ছে ফেব্রুয়ারির শেষে। তার জন্য প্রার্থীদের নামও ঘোষণা হয়ে গেছে।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫, ০২:২৯ পি. এম.

২৯/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: