১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আওয়ামী লীগ দেশকে স্বৈরশাসনের দিকে নিয়ে যাচ্ছে ॥ নজরুল


স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশ আজ রাজনৈতিক সঙ্কটের মধ্যে আছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, ’৭৫-এর ন্যায় আওয়ামী লীগ আরও দেশকে স্বৈরশাসনের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু আর একবার দেশকে স্বৈরশাসনের দিকে নিয়ে যেতে দেয়া যাবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সেন্টার ফর ন্যাশনাল স্টাডিজ (সিএনএস) আয়োজিত বাংলাদেশের রাজনৈতিক সঙ্কট শীর্ষক একটি বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন।

মেজর (অব) শাফাওয়াত উল্লাাহ এই বইটির লেখক। আয়োজকরা জানান, বইটি লেখা হয় বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গুলশান রাজনৈতক কার্যালয়ে অবস্থান করে যখন আন্দোলন করছিলেন তখণ। এই বইটিতে গণতন্ত্রকে অস্বীকার ও মানবাধিকার লঙ্ঘনসহ গত ৩ মাসের আন্দোলনে দেশে নিহত ও আহতদের সংখ্যা এবং জ্বালাও-পোড়াও এর উপর সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়।

নজরুল ইসলাম বলেন, জনগণকে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ভুলিয়ে দেওয়ার জন্য সরকার ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু তা সম্ভব নয়। নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতেই হবে। গণতন্ত্রের স্বার্থেই তা করতে হবে। তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারি দেশে কোন নির্বাচন হয়নি। আদালত রায় দিয়েছিল আরো দুটি জাতীয় সংসদ নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হতে পারে। এছাড়া দেশের সকল বুদ্ধিজীবী ও রাজনৈতিক দলকে বলেছিল দলীয় সরকারের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। এই কথাগুলো ক্ষমতাসীনরা আজ জনগণকে ভুলিয়ে দেয়ার জন্য চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের পক্ষে প্রতিনিয়ত কথা বলে কিন্তু গণতন্ত্রের বিপক্ষে কাজ করে।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিক শফিক রেহমান বলেন, আওয়ামী লীগ ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করছে। তাই দেশের অনেক রাজনৈতিক দলকে জঙ্গী দল বানানোর অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশে এখন দাড়ি- টুপিওয়ালা লোক দেখলেই জামায়াত-শিবির বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান মৃত্যুর পর তার স্ত্রী খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করেছেন। পক্ষান্তরে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েমের ব্যবস্থা করছেন।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা শওকত মাহমুদের সভাপতিত্বে প্রকাশনা উৎসবে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুল কায়ুম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার ও বইয়ের লেখক মেজর (অব) শাফায়াত হোসেন।