১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কিশোরগঞ্জের দুই রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় কিশোরগঞ্জের নিকলি থানার সৈয়দ মো. হুসাইন ও মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।

মঙ্গলবার প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ট্রাইব্যুনাল-২ একটি মামলার এ দুই আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন জানান।

এ আবেদন আমলে নিয়ে তাদের দুইজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের ট্রাইব্যুনাল। গ্রেফতারের পর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদেরকে ট্রাইব্যুনালে হাজিরেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সৈয়দ মো. হুসাইন মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কিশোরগঞ্জের তাড়াইল থানার রাজাকার কমান্ডার পলাতক সৈয়দ মো. হাসান আলী ওরফে হাছেন আলীর ছোট ভাই। হুসাইন একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় নিকলি থানার রাজাকার কমান্ডার ছিলেন।

প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ শুনানিতে বলেন, নিকলির রাজাকার কমান্ডার সৈয়দ মো. হুসাইন (৬৪) ও তার সহযোগী মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানের (৬৬) বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্তে হত্যা, ধর্ষণ ও অপহরণসহ ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তদন্ত এখনও চলছে। আসামি এবং তাদের লোকজন তদন্ত কাজে বাধা ও সাক্ষীদের ভয়-ভীতি দেখাচ্ছেন। এ কারণে তদন্তের স্বার্থে তাদেরকে গ্রেফতার করা প্রয়োজন।

হুসাইনের বড় ভাই হাসান আলীকে গত ৯ জুন ফাঁসি অথবা ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল-১। তার বিরুদ্ধে আনা ছয়টি মানবতাবিরোধী অভিযোগের মধ্যে পাঁচটিই প্রমাণিত হওয়ায় তাকে সর্বোচ্চ এ দণ্ড দেওয়া হয়েছে।