ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

উইজডেনের ‘লিডিং ক্রিকেটার’ কামিন্স

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪৯, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

উইজডেনের ‘লিডিং ক্রিকেটার’ কামিন্স

প্যাট কামিন্স

ক্রিকেটের বাইবেল খ্যাত উইজডেনের ২০২৩ সালের সেরা পুরুষ ক্রিকেটারের স্বীকৃতি পেলেন প্যাট কামিন্স। যেটির কেতাবি নাম ‘উইজডেনস লিডিং ক্রিকেটার ইন দ্য ওয়ার্ল্ড। কামিন্সের নেতৃত্ব গত বছর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের পর ওয়ানডে বিশ্বকাপেও বাজিমাত করে অস্ট্রেলিয়া। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘ এক যুগর পর দেশটির কোনো ক্রিকেটার এই সম্মানে ভূষিত হলেন।

তার আগে সর্বশেষ ২০১২ সালে এই স্বীকৃতি পেয়েছিলেন সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। মেয়েদের ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে উইজডেনের সেরা হয়েছেন নাট সিভার-ব্রান্ট। উল্লেখ্য, গত বছর আইসিসির বর্ষসেরা পুরুষ ও নারী ক্রিকেটারের স্বীকৃতিও পেয়েছেন এই দুজনই। 
সোমবার প্রকাশিত হবে উইজডেন ২০২৪ সংস্করণ। ক্রিকেটের অনেক ইতিহাসের দলিল এই অ্যালমানাকের ১৬১তম সংস্করণ এটি। উইজডেনের সবচেয়ে ঐতিহ্যবাহী ও দারুণ মর্যাদাপূর্ণ স্বীকৃতি ‘বর্ষসেরা পাঁচ ক্রিকেটারের তালিকায় এবার জায়গা পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার উসমান খাজা, মিচেল স্টার্ক ও অ্যাশলি গার্ডনার এবং ইংল্যান্ডের হ্যারি ব্রুক ও মার্ক উড।

বর্ষসেরা টেস্ট পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি ‘উইজডেন ট্রফি ফর আউটস্ট্যান্ডিং ইন্ডিভিজুয়াল টেস্ট পারফরম্যান্স’ জিতেছেন এবার ট্রাভিস হেড। গত বছর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ১৭৪ বলে ১৬৩ রানের ইনিংসটি তাকে এনে দিয়েছে এই সম্মান। ২০০৩ সাল থেকে লিডিং ক্রিকেটারের খেতাব দিয়ে আসছে উইজডেন। সবশেষ এটি জিতেছিলেন বেন স্টোকস।

চার বছরের মধ্যে তিনবার এই স্বীকৃতি পেয়েছিলেন তিনি। টানা তিনবার এটি জয়ের একমাত্র কৃতিত্ব বিরাট কোহলির। শুধুই দুটি বিশ্ব আসরে নয়, কামিন্স গত বছর ইংল্যান্ডে হওয়া অ্যাশেজেও নেতৃত্ব দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়াকে। রোমাঞ্চকর সেই সিরিজ ২-২ এ ড্র করে মর্যাদার ‘ছাইদানি’ ধরে রাখে অস্ট্রেলিয়া।

উইজডেনের সম্পাদক লরেন্স বুথ বলেন, ‘টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অস্ট্রেলিয়ার সাফল্যে নেতৃত্ব দেওয়ার পর কামিন্স অ্যাশেজ ধরে রেখেছেন। এজবাস্টনে  শেষ দিকে নেমে ব্যাট হাতে অবদান রেখেছেন। এরপর ভারতে বিশ্বকাপ ফাইনাল জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০২৩ সালে আর কোনো পেসার তাঁর ৪২ উইকেটের চেয়ে বেশি পাননি।’
গত বছর মেয়েদের ক্রিকেটে সিভার-ব্রান্টও কাটিয়েছেন অসাধারণ এক বছর। অ্যাশেজে পিঠেপিঠি সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৬৬ বলের সেঞ্চুরিতে গড়েছেন ইংল্যান্ডের রেকর্ড। উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমানাকের বড় আকর্ষণ থাকে সবসময়ই সম্পাদকের কলাম। এবারের লেখায় অনুমিতভাবেই অ্যাশেজকে প্রাধান্য দিয়েছেন সম্পাদক লরেন্স বুথ। ইংল্যান্ডের ‘বাজবল’ ও প্রাসঙ্গিক আরও অনেক কিছু উঠে এসেছে তার লেখায়।

×