ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আমাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই: ফখরুল

প্রকাশিত: ২১:১৯, ২০ এপ্রিল ২০২৪

আমাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই: ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজ এই ভয়াবহ দুঃশাসনে যারা আমাদের সব ভালো অর্জন কেড়ে নিয়েছে, আমাদেরকে প্রতিমুহূর্তে পঙ্গু করে ফেলেছে, আমাদেরকে পুরোপুরি একটা দাসে পরিণত করছে- সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে হলে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

শনিবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নাগরিক স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘যার জন্যে জাফরুল্লাহ চৌধুরী লড়াই করছিলেন, সেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা যদি আবার আমাদের ফিরিয়ে আনতে হয়, বাংলাদেশকে যদি সত্যিকার অর্থে একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে আমরা পরিণত করতে চাই, তাহলে আমাদেরকে এখন অবশ্যই সব নতুন করে চিন্তা করে নতুনভাবে আবার বলীয়ান হয়ে বেরিয়ে আসতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘কে কী বললো সেটা ভাবার দরকার নেই, আমাদের মধ্যে যে আশা, যে আকাঙ্ক্ষা আছে; আমরা যারা একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ করেছি, যারা গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ দেখতে চেয়েছি, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য যারা প্রাণ দিয়েছি, যারা গুম হয়েছে তাদের সবাইকে সেই সম্মানটুকু দেওয়ার জন্য আমাদের আজ একমাত্র দায়িত্ব হচ্ছে… আসুন আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হই।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই দুঃশাসনের অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য আমরা হাত-পা ছুড়ছি। আমরা যারা রাজনীতি করি, রাজনৈতিক কর্মী আছি তারা বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছি। আমি নিজেই নির্বিচারে নির্যাতিত হচ্ছি, অনেকে তাদের জীবন দিচ্ছেন, প্রাণ দিচ্ছেন। তারপরও এই দানবকে সরানো যাচ্ছে না, এটা বাস্তবতা।’

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য জুলহাস নাইম বাবু। এতে বক্তব্য দেন অর্থনীতিবিদ হোসেন জিল্লুর রহমান, সুজনের বদিউল আলম মজুমদার, ব্রতীর শারমিন মুরশিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাশেদ আল মাহমুদ তিতুমীর, অধ্যাপক আসিফ নজরুল, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম, এফবিবিআইয়ের আবদুল হক, মানবাধিকারকর্মী ব্যারিস্টার সারা হোসেন, সৈয়দা রেজওয়ানা হাসান, সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, ‘মায়ের ডাক’ এর সানজিদা ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়া, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের সভাপতি জোনায়েদ সাকি, গণফোরামের সুব্রত চৌধুরী, ভাসানী অনুসারী পরিষদের শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের হাসনাত কাইয়ুম, জেএসডির তানিয়া রব, গণঅধিকার পরিষদের নুরুল হক নুর, মিয়া মশিউজ্জামান এবং প্রয়াত জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মেয়ে বৃষ্টি চৌধুরী স্মরণ সভায় বক্তব্য দেন।

 

এম হাসান

×