ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের সমাবেশে ফখরুল

বিএনপিকে আন্তর্জাতিক চাপে সভা-সমাবেশ করতে দিচ্ছে সরকার

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৫৮, ১২ আগস্ট ২০২২

বিএনপিকে আন্তর্জাতিক  চাপে সভা-সমাবেশ  করতে দিচ্ছে সরকার

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি ও বিভিন্ন দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের সমাবেশ

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে বিএনপিকে সরকার সভা-সমাবেশ করতে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরশুক্রবার দুপুরে জাতীয়  প্রেসক্লাবের সামনে জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সকল পণ্যের লাগামহীন দাম বৃদ্ধি, বিদ্যুতের লোডশেডিং, রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের ওপর গুলির প্রতিবাদ ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপি- জামায়াত সমর্থিত সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ’  আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন

ফখরুল বলেন, বিভিন্ন চাপে বর্তমান সরকার এখন ভদ্র হয়ে গেছেতারা এখন  নিজেদের সভ্য ও গণতন্ত্রে বিশ্বাসী প্রমাণ করতে চাচ্ছেতারা দেখাতে চাচ্ছে  বিরোধী রাজনৈতিক দলকে গণতান্ত্রিক কর্মসূচী পালনের সুযোগ দিচ্ছেএ কারণে বৃহস্পতিবার বিএনপির সমাবেশে বাধা দেয়নি, আজকেও (শুক্রবার) আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচী পালন করতে পেরেছিতবে তারা পাঁয়তারা শুরু করেছে আবারও যে কোন ধরনের নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতায় আসতে

কিন্তু জনগণ জেগে উঠেছেতাই সরকারের পতন অনিবার্যরাজপথ দখল করে জনগণের বিক্ষোভ হেেবতাই রাজপথে জনগণের যে ঢেউ উঠবে সেই ঢেউয়ের সুনামিতে আওয়ামী লীগ সরকার ভেসে চলে যাবে

বিএনপি মহাসচিব বলেন, দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্ধগতির কারণে দেশের মানুষ সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেরিক্সাচালক, কৃষক, শ্রমিক, শিক্ষক সবাই কষ্টে আছেদেশের মানুষ এখন কি অবস্থায় আছে নতুন করে বলার দরকার নেইরাস্তায় বাসের যাত্রীদের জিজ্ঞেস করুনÑ কত টাকা বাসভাড়া বাড়িয়েছেসবচেয়ে বেশি কষ্টে আছে মধ্যবিত্ত, যারা না পারছেন কিছু কইতে, না পারছেন সইতেসরকার পরিকল্পিতভাবে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছেসার্বিক পরিস্থিতির কারণে দেশে সুনামি সৃষ্টি হবে

আওয়ামী লীগ আবারও ২০১৮ সালের মতো নির্বাচন করে ক্ষমতায় থাকার পাঁয়তারা করছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, তারা নির্বাচন কমিশনে গিয়ে ইভিএমে ভোট চেয়েছেতারা ৩০০ আসনেই ইভিএমে ভোট চায়কারণ, তারা জানে ইভিএম ছাড়া জেতার উপায় নেইকিন্তু জালিয়াতির যন্ত্র ইভিএমে ভোট হলে ভোটার ধানের শীষে ভোট দিলেও জমা হবে নৌকায়তাই আমরা ইভিএমে ভোট চাই না

 পেশাজীবীদের দেশ ও দেশের মানুষের জন্য অতীতের আন্দোলন-সংগ্রামে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে দেশকে ধ্বংস করে দিচ্ছেস্থিতিশীল তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করে দেশের জনগণের ভোটাধিকার হরণ করেছেদেশে এখন গণতন্ত্র নেইএতদিন পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, টানেল, ব্রিজ নির্মাণসহ উন্নয়নের গল্প বললেও এখন উল্টো আইএমএফসহ অনেকের কাছে লোন চাচ্ছেদেশের বিলিয়ন বিলিয়ন টাকা পাচার হয়ে গেছে কিন্তু পাচারকারীদের কোন বিচার হয়নি

বিএনপি নেতাকর্মীদের নির্যাতন করা হচ্ছে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, ১৫ বছরে ইলিয়াস আলী ও চৌধুরী আলমসহ ৬০০ শতাধিক নেতাকর্মী গুম করা হয়েছে, কয়েক হাজার নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়েছেতাই সরকারের পতনের জন্য পেশাজীবীদের অতীতের মতো রাজপথে থাকতে হবেসবাই ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে  থাকলে সরকারকে পদত্যাগ করতেই হবেপদত্যাগ করে সংসদ বাতিল করে নতুন করে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবেএরপর জনগণ যাকে খুশি ভোট দিয়ে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা করবে

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আনোয়ার উল্লাহ চৌধুরী, জাতীয়তাবাদী শিক্ষক নেতা অধ্যাপক ড. মাহবুব উল্লাহ ও অধ্যাপক তাজমেরী এস ইসলাম

এদিকে সকালে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে বনানী কবরস্থানে গিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর ৫৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার কবর জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জ্বালানি তেল, পানি, বিদ্যুত এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় সব কিছুর দাম বাড়িয়েছে সরকারএ সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ হয়েছেতাই এ সরকার জনগণের আন্দোলনে পরাজিত হবে

ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ যতদিন ক্ষমতায় থাকবে মানুষের দুর্ভোগ তত বাড়বেআওয়ামী লীগ রাজপথে সব সময়ই পরাজিত হয়েছেবিএনপিকে রাজপথে মোকাবেলা করা হবে বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, এটি তাদের পুরনো বক্তব্যতবে আমরা আজ শপথ নিয়েছি, বর্তমান সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে সত্যিকার অর্থে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবদেশে সুস্থ সমাজ ও সুস্থ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করব

এ সময় বিএনপি মহাসচিবের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, দলের নেতা নাজিমউদ্দিন আলম, রফিক শিকদার, যুবদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সাধারণ সম্পাদক মোনায়েম মুন্না, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল প্রমুখ