ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯

ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে আসছিল চক্রটি

’স্বপ্ন’-তে চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৪

প্রকাশিত: ১৬:২৭, ১০ আগস্ট ২০২২

’স্বপ্ন’-তে চাকরির নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৪

রিটেইলশপ ’স্বপ্ন’-তে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ 

দেশের নাম্বার ওয়ান রিটেইল চেইনশপ স্বপ্ন । এই প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন পদে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কিছু প্রতারক চক্র অনেকদিন ধরেই টাকা আত্মসাৎ করে আসছিল । এই আত্মসাৎ-এর অভিযোগে প্রতারক চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)- এর সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম । 

এ সময় তাদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও সংযুক্ত সীমসহ বেশ কিছু কাগজ জব্দ করা হয় । ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)-এর সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধ টিমের সহকারী পুলিশ কমিশনার ধ্রুব জ্যের্তিময় গোপ জানান, মামলা প্রাপ্তির পর আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত শুরু করি এবং তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের সনাক্তপূর্বক গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। 

চাকরী প্রত্যাশীদের নিকট আমাদের প্রত্যাশা যে, আপনারা জেনে, বুঝে, শুনে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করুন অন্যথা যে কোন সময় প্রতারনার শিকার হতে পারেন।

স্বপ্ন'র হেড অব এইচ.আর খুরশীদ ইমবিসাত চৌধুরী বলেন, স্বপ্ন তার মানবসম্পদ বিভাগের মাধ্যমে কর্মী নিয়োগ প্রদান করে থাকে। স্বপ্নে চাকুরীর জন্য আবেদনের কয়েকটি ধাপ অনুসরন করে। তার মধ্যে রয়েছে : স্বপ্নের প্রতিটি আউটলেটে প্রদত্ত সিভি বক্স এর মাধ্যমে, মানবসম্পদ বিভাগ কর্তৃক মনোনিত এলাকা ভিত্তিক মানবসম্পদ প্রতিনিধির মাধ্যমে এবং স্বপ্নর নিয়োগ সংক্রান্ত অফিসিয়াল ইমেইল এড্রেস এর মাধ্যমে । এর বাইরে অন্য কোন প্রক্রিয়ায় জনবল নিয়োগ করা হয় না স্বপ্নে।

প্রয়োজনে নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্যের জন্য অফিসিয়াল লিংকডিন প্রোফাইল অথবা স্বপ্ন'র ফেসবুক পেইজ অনুসরণ করার কথাও বলেন তিনি।

মামলা ও গ্রেফতার সূত্রে জানা যায়, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার মামলা নং ৪১, তারিখ-২৩/০৬/২০২২খ্রি: ধারা: ৪১৯/৪২০/৪০৬ পেনাল কোড-১৮৬০। সূত্রোক্ত মামলার গ্রেফতারকৃত আসামী (১) আরিফ মিয়া(২২), পিতা-মৃত হানিফ মিয়া, মাতা-আয়েশা বেগম, স্থায়ী ঠিকানা:- গ্রাম-মদনা, থানা-চাঁদপুর সদর, জেলা-চাঁদপুর, বর্তমান ঠিকানা:- সাং-ডগাইর (খেলার মাঠ), ঈদগাঁও রোড, সারুলিয়া, থানা-ডেমরা, ডিএমপি, ঢাকা’কে পুলিশ এস্কর্টের মাধ্যমে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দপূর্বক প্রেরিত আসামীকে তার বর্তমান ঠিকানার বাসা হতে গত ০৬/০৮/২০২২খ্রি: বিকাল ১৬:২৫ ঘটিকার সময় সহকারী পুলিশ কমিশনার ধ্রুব জ্যোর্তিময় গোপ এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করা হয় এবং যথাযথ নিয়ম অনুসরনপূর্বক কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম, ডিএমপি’তে আনা হয়। 

আসামীর হেফাজত হতে দুইটি মোবাইল ফোন ও সংযুক্ত সীম জব্দ করা হয়েছে।  গ্রেফতারকৃত আসামী আরিফ মিয়া(২২) পূর্বে সুপারটেক ইঞ্জিনিয়ারিং আ্যান্ড ট্রেডিং সার্ভিসেস লিমিটেড’এর নিয়োগ কর্মকর্তা হিসেবে চাকরী করত। পরবর্তীতে সে উক্ত চাকরী ছেড়ে দিয়ে বিভিন্ন অসাধু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এর যোগসাজসে দেশের স্বনামধন্য রিটেইল সুপার শপ "স্বপ্ন" এর নাম ও লোগো ব্যবহার করে “স্বপ্ন”তে লোক নিয়োগ করা হবে মর্মে অফলাইন ও অনলাইন তথা ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে আসছে।

সূত্রোক্ত মামলার গ্রেফতারকৃত আরেক আসামী (১) মো: হুমায়ুন কবির হিমু (২৪)'কে তার বর্তমান ঠিকানার অবস্থিত সুপারটেক ইঞ্জিনিয়ারিং আ্যান্ড ট্রেডিং সার্ভিসেস লি: এর অফিস হতে গত ০৭/০৮/২০২২খ্রি: বিকাল ১৬:৩৫ ঘটিকার সময় সহকারী পুলিশ কমিশনার ধ্রুব জ্যোর্তিময় গোপ এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করা হয়। 

পরবর্তীতে তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাসা নং ১৫ (নিচতলা), রোড নং ০৯, সেক্টর নং ১০, থানা: উত্তরা পশ্চিম, ডিএমপি, ঢাকা’য় সিনিয়র অফিসারদের নেতৃত্বে গত ০৭/০৮/২০২২খ্রি: বিকাল ১৮:০৫ ঘটিকার সময় উল্লিখিত ঠিকানার অবস্থিত জনবল ট্রেনিং এন্ড সার্ভিসেস লি: এর অফিসে অভিযান পরিচালনা করে (১) মো: ফাহিম(২৪) এবং (২) বাপন সাহা(৫২) নামে এই দুজনকেও গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃত আসামী মো: হুমায়ুন কবির হিমু (২৪) সুপারটেক ইঞ্জিনিয়ারিং আ্যান্ড ট্রেডিং সার্ভিসেস লি: নামক প্রতিষ্ঠানের মালিক। গ্রেফতারকৃত আসামী মো: ফাহিম(২৪) জনবল ট্রেনিং এন্ড সার্ভিসেস লি: নামক প্রতিষ্ঠানের মালিক এবং গ্রেফতারকৃত অপর আসামী বাপন সাহা(৫২) উল্লিখিত প্রতিষ্ঠানের এর নিয়োগ কর্মকর্তা হিসেবে চাকরী করে। 

তারা পরস্পর যোগসাজসে দেশের স্বনামধন্য রিটেইল শপ "স্বপ্ন" এর নাম ও লোগো ব্যবহার করে “স্বপ্ন”তে লোক নিয়োগ করা হবে মর্মে অফলাইন ও অনলাইন তথা ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে আসছে।  প্রকৃতপক্ষে বাদীর কর্তব্যরত প্রতিষ্ঠান “স্বপ্ন” এ ধরনের কোন বিজ্ঞাপন অনলাইন বা অফলাইনে প্রচার করে নাই। 

উল্লিখিত আসামীরা পরষ্পর যোগসাজসে নিজেরা ব্যাক্তিগতভাবে লাভবান হওয়ার জন্য প্রতারণার উদ্দেশ্যে ইচ্ছাকৃতভাবে বা জ্ঞাতসারে অনুমতি ব্যতীত ও বিনা অধিকারে বাদীর কর্তব্যরত প্রতিষ্ঠানের ভুয়া বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে দেশের নামী সুপার শপ “স্বপ্ন”সহ নানা প্রতিষ্ঠানে চাকরী প্রত্যাশী ব্যাক্তিদের সাথে চাকরী দেওয়ার নামে প্রতারণা করে আসছে।