ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

কার্ব মার্কেটে ডলারের অবিশ্বাস্য তেজ

প্রকাশিত: ২৩:১১, ১৯ মে ২০২২

কার্ব মার্কেটে ডলারের অবিশ্বাস্য তেজ

মোয়াজ্জেমুল হক ॥ বিশ্বব্যাপী অর্থনীতির গতিতে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার ধাক্কা বাংলাদেশেও এসেছে। দেশের ডলারের কার্ব মার্কেট (খুচরা বাজার) হঠাৎ করে টালমাটাল হয়ে আছে। কার্ব মার্কেট নিয়ে বিশেষজ্ঞ সূত্রগুলো জানিয়েছে, এখানে রয়েছে বড় ধরনের সিন্ডিকেট। বিশেষ করে ঢাকা ও চট্টগ্রামের ডলারের কার্ব মার্কেট সম্পূর্ণভাবে সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রিত। যে কারণে কার্ব মার্কেটে ডলারের দাম বাড়তে বাড়তে বুধবার ডলারপ্রতি ১০৪ টাকায় উন্নীত হয়েছে, যা দেশের বিগত ইতিহাসে একটি রেকর্ড। এ মার্কেটে ডলার বেচাকেনার বৈধতা না থাকলেও অলিখিতভাবে তা বৈধতা পেয়েছে। যার প্রয়োজন তিনি ডলার কিনে নিচ্ছেন। আর যার বিক্রির প্রয়োজন তিনি এ মার্কেটে গিয়ে বিক্রি করে দিচ্ছেন। এটাই কার্ব মার্কেটের অবয়ব। এ মার্কেট থেকে ডলার বেচাকেনা দেশের অর্থনীতির গতির সঙ্গে বড় ধরনের সংযোগ রয়েছে। চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকায় কার্ব মার্কেটের অবস্থান। সকাল থেকে এখানে ডলার ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের হাঁকডাক থাকে। জানা গেছে, ব্যক্তি পর্যায়েই কার্ব মার্কেটে ডলারের বেচাকেনা সবচেয়ে বেশি। তবে ব্যবসায়ীদের ক্ষুদ্র একটি অংশও প্রায় সময় কার্ব মার্কেট থেকে ডলার ক্রয় করে থাকে। চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকার এক ব্যাংক কর্মকর্তা জনকণ্ঠকে জানান, চট্টগ্রামের এ কার্ব মার্কেটে হুলুস্থুল অবস্থা চলছে। সকাল থেকে প্রতিদিন কার্ব মার্কেট চাঙ্গা হচ্ছে। কারা কিনছে আবার কারা বিক্রি করছে (বাই এ্যান্ড সেল) তা বুঝা মুশকিল। তবে এটা সত্য যে, ডলার বেচাকেনার সঙ্গে অনেকের বড় বিনিয়োগ রয়েছে। শেয়ার মার্কেটের মতো এখানে ডলারের বেচাকেনা হয়। বর্তমান পরিস্থিতি যে পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে এতে দেশের ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিটেন্স আসার প্রক্রিয়াটি দারুণভাবে ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। কেননা, কার্ব মার্কেটে এক ডলারের বিনিময়ে প্রায় ১০৪ টাকা এমনকি কোন কোন ক্ষেত্রে আরও বেশি হয়ে যাওয়ায় এখন হুন্ডির মাধ্যমে বিদেশ থেকে অর্থ প্রেরণের প্রক্রিয়াটি বেড়ে যাবে এবং ইতোমধ্যে কয়েকদিনে বেড়েছে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২