বৃহস্পতিবার ৭ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ওসি প্রদীপের রাষ্ট্রীয় পুরস্কার ও পদক বাতিলের দাবি

  • সিনহা হত্যা মামলা

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ সেনাবাহিনীর মেজর পদের সাবেক একজন কর্মকর্তা খুনের আসামির নামের পর রাষ্ট্রীয় পুরস্কার দুইটি পদবি বাতিলের দাবি জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী। একজন খুনের আসামির নামের পর সরকারীভাবে দেয়া ওই পদবি প্রত্যাহার করে নেয়া জরুরী বলে যুক্তিতর্কে আদালতে উপস্থাপন করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি ফরিদুল আলম।

জানা যায়, সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় দুপক্ষের যুক্তিতর্ক রবিবার থেকে শুরু হয়েছে। সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে ৯ জানুয়ারি থেকে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত বহুল আলোচিত এই মামলায় উভয় পক্ষে যুক্তিতর্কের দিন ধার্য করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইল। মেজর সিনহা হত্যা মামলার অন্যতম আসামি বরখাস্ত হওয়া টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ দাশের সরকারী পদবিগুলো প্রত্যাহার করে নেয়ার আবেদন জানিয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আদালতে বলেন, যেহেতু ওসি প্রদীপের নির্দেশে ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী মেজর সিনহাকে গুলি করলে তিনি মাটিতে লুটে পড়েন। যখন পানি পানি বলে শব্দ করছিলেন, এ সময় ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এসে সিনহার গলায় পায়ের বুট চাপায় আঘাতের পর আঘাত করে মেজর সিনহাকে নিস্তেজ করে দেন বলে আদালতে দাঁড়িয়ে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষীরা। সেহেতু সেনাবাহিনীর সাবেক পদস্থ একজন কর্মকর্তা খুনের আসামির নামের পর সরকারীভাবে প্রাপ্ত পর্যায়ক্রমে দুইটি পিপিএম (প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল) পদবি ধরে রাখা উচিত নয়। তাই ওই পদবি প্রত্যাহার করে নেয়া জরুরী বলে যুক্তিতর্কে আদালতে উপস্থাপন করেন তিনি। ওসি প্রদীপ-ইন্সপেক্টর লিয়াকতসহ আসামিরা যে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মেজর সিনহাকে হত্যা করেছে, তা আমরা আদালতে প্রমাণ করতে পেরেছি।

যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে ওসি প্রদীপের যাবতীয় রাষ্ট্রীয় পুরস্কার ও পদক বাতিলের জন্য আবেদন জানিয়ে পিপি আরও উল্লেখ করেন, ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে ২০৪ জনের অধিক লোককে বিচারবহির্ভূত হত্যার অভিযোগ রয়েছে।

রবিবার সকাল সোয়া ১০টায় কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে আসামিদের উপস্থিতিতে আলোচিত এ মামলার যুক্তিতর্ক শুরু হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে প্রিজনভ্যানে করে কড়া নিরাপত্তায় বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ, লিয়াকতসহ এই মামলার ১৫ আসামিকে আদালতে আনা হয়। ইতোপূর্বে যুক্তিতর্কের জন্য নবম দফায় ৯, ১০, ১১ ও ১২ জানুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত। এর আগে অষ্টম দফায় ১ ডিসেম্বর আদালত মুলতবির আগে কার্যবিধির ৩৪২ ধারায় ১৫ আসামি লিখিত বক্তব্য প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি ফরিদুল আলম জনকণ্ঠকে জানান, বহুল আলোচিত এ মামলায় গত ২৩ আগস্ট থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত অষ্টম দফায় ৮৩ জন সাক্ষীর মধ্যে বাদী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস ও তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ ৬৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৪, শনাক্ত ১০৮৮৮         ব্যাংকারদের বেতন বেধে দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক         সন্ত্রাসীরা অস্ত্র তুললেই ফায়ারিং-এনকাউন্টারের ঘটনা ঘটে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলেই সাংবাদিককে গ্রেফতার নয়, ডিসিদের আইনমন্ত্রী         সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধে ডিসিদের নির্দেশ         শাজাহান খানের মেয়েকে বিয়ে করলেন এমপি ছোট মনির         ৪৩তম বিসিএস প্রিলির ফল প্রকাশ         শান্তিরক্ষা মিশনে র‍্যাবকে বাদ দিতে জাতিসংঘে চিঠি         আইপিটিভি-ইউটিউবে সংবাদ পরিবেশন করা যাবে না ॥ তথ্যমন্ত্রী         মগবাজারে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় প্রাণ গেল কিশোরের         নদীদূষণ ও দখলরোধে ডিসিদের আরও তৎপর হতে নির্দেশ         হাইকোর্টে আগাম জামিন পেলেন তাহসান         ‘সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই’         ঠিকাদারি কাজে এফবিআই’র সাজাপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান!         এক সপ্তাহে করোনা রোগী বেড়েছে ২২৮ শতাংশ         যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল কোর্টের প্রথম মুসলিম বিচারক হচ্ছেন বাংলাদেশি নুসরাত         সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত প্রধান বিচারপতি, হাসপাতালে ভর্তি         আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে টাইগারদের দাপট         ‘স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে শহীদ আসাদ একটি অমর নাম’         ‘শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ সবসময় প্রেরণা জোগাবে’