শনিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

পটুয়াখালীর উপকূলে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে হালকা বৃষ্টিপাত

পটুয়াখালীর উপকূলে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে হালকা বৃষ্টিপাত

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটুয়াখালী ॥ পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’র প্রভাবে পটুয়াখালী উপকূলে গত দুই দিন ধরে গুমট আবহাওয়া বিরাজ করছে। গত শনিবার সকাল থেকে থেমে থেকে হালকা বৃষ্টি হচ্ছে। কখনও আবার রোদের আভা। কখন গরম আবার কখন শীত। মাঝে মাঝে হালকা বাতাশ হচ্ছে। তবে নদ নদীর পানি স্বাভাবিক রয়েছে।

পটুয়াখালী উপকূলে এই মহুর্তে অনেকটা রোদের আভা রয়েছে। পাশাপাশি ঠান্ডা বাতাশ বইছে। আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ি উপকূলীয় এলাকায় দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে। যা আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত অব্যহত থাকতে পারে।

ঘুর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ আজ রবিবার সকালে উড়িষ্যা উপকূলে গিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। এরপর রাতেই তা নিম্নচাপ আকারে বাংলাদেশের উপকূলে আসতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানায় আবহাওয়া অধিদফতর। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর অনেকটাই উত্তাল। এজন্য পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। ঘূর্নিঝড়টি পায়রা বন্দর থেকে ৮৬৫ কিলোমিটার দুরে অবস্থান করছে।

একইসঙ্গে কুয়াকাটা সংলগ্ন বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করার জন্যও বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

পটুয়াখালীর অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পটুয়াখালী অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে পূর্ব বা উত্তর-পূর্ব দিক দিয়ে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। তাই নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ: