ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

এমএইচ উল্লাহ

মহাসড়কের দৈন্যদশা

প্রকাশিত: ০৫:২৫, ৩০ আগস্ট ২০১৮

মহাসড়কের দৈন্যদশা

প্রতি ঈদেই মহাসড়কগুলোর অবস্থা করুণ হয়ে দাঁড়ায়। বিশেষ করে কোরবানির ঈদের সময় ঘরমুখী মানুষকে মহাসড়কে অনেক ভোগান্তির শিকার হতে হয়। ভুক্তভোগী ছাড়া এই রকম কষ্ট বা দুর্দশার কথা কেউ বুঝবেন না। মহাসড়কগুলোর এই দুর্দশা বেশ অনেক দিন ধরেই চলে আসছে। কিন্তু এর বিশেষ প্রতিকার এ যাবত হয়নি। কোরবানির পশু ঈদ-উল-আজহার সময় মহাসড়কে একটা নৈরাজ্যজনক অবস্থার মধ্যে পড়ে থাকে। ঘাটে ঘাটে পশু ভর্তি ট্রাক থামিয়ে চলাচলের অসহনীয় যানজটের সৃষ্টি করা হয়। এতে জনগণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করে। চাঁদাবাজির জন্য স্থানে স্থানে পশু বোঝাই ট্রাক থামিয়ে চাঁদাবাজি করলে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। এই সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার হন মহাসড়কের যাত্রীরা সকলেই। মহাসড়কে সৃষ্ট এই যানজট নিরসনের উপায় কি? সরকারের প্রশাসন থেকে শুরু করে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীতে যারা কর্মরত আছেন সবাই মিলে তৎপর হলে মহাসড়কে এই যানজট ও সেই সঙ্গে জনদুর্ভোগ কমিয়ে আনা সম্ভব। দেশের বিভিন্ন স্থানে বেশকিছু সংখ্যক ফেরিঘাট রয়েছে। এই ফেরিঘাটগুলোতে উভয় পাশে যানজটের সময় বাস, ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহন আটকা পড়ে[, এতে জনদুর্ভোগ আরও বেড়ে যায়। সড়ক মহাসড়কে যান চলাচলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করলে জনদুর্ভোগ কমবে, এতে কোন সন্দেহ নেই। সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু রোধ করতে নতুন আইন করা হচ্ছে। এই আইনের সঙ্গে সড়ক মহাসড়কে যারা অযথা যানজট সৃষ্টি করতে সহায়তা করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনের নতুন ধারা সংযোজন করে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করলে এবং সেই আইনানুযায়ী ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে এই দুরবস্থার ও অনিয়মের অবসান হবে বলে আশা করা যায়। লেকসার্কাস, কলাবাগান ঢাকা থেকে