বুধবার ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

চোখ বেঁধে...

কাপড় বা অন্য কোন কিছু দিয়ে চোখ বেঁধে বিভিন্ন কারসাজি দেখানোর বিষয়টি কেবল জাদু বা সার্কাসেই মানায়। কিন্তু এখন আর সার্কাস বা জাদু নয়, বাস্তবে চোখ বেঁধে স্বাভাবিক কাজ করার অসাধারণ দক্ষতা দেখিয়েছে ভারতের এক কিশোর। তার নাম জিৎ ত্রিবেদি। ১৭ বছর বয়সী জিতের দাবি, দৈনন্দিনের স্বাভাবিক কাজ করতে তার আর চোখের প্রয়োজন নেই। চোখ ছাড়াই গাড়ি চালানো, পড়াশুনা করা এমনকি সুইয়ে সুতা ঢুকানোর কাজও করতে পারে সে। এছাড়া ব্যস্ত রাস্তায় গিয়ার ছাড়া মোটরসাইকেল চোখ বেঁধে দীর্ঘ ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত চালিয়েছে জিৎ।

শুধু তাই নয়, দূরে একটি ব্যাগের মধ্যে অনবরত টেনিস বল ফেলতে পারে সে। এছাড়া তাকে উদ্দেশ করে কেউ কিছু ছুড়ে দিলে তা সে অনায়াসেই ধরতে পারে। একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, প্রথমে স্টিলের একটি ধাতব দ্বারা তার চোখ দুটি ঢেকে দেয়া হয়। এরপর তার ওপর একটি কালো কাপড় দিয়ে শক্ত করে বেঁধে দেয়া হয় তার চোখ। এরপরও তার সামনে কেউ যত দ্রুতই হাতের আঙ্গুল দেখাতে থাক না কেন সে অনায়াসে নির্ভুলভাবে তা বলতে পারে। এছাড়া এভাবে চোখ বাঁধা অবস্থায় একটি লাইব্রেরিতে নিয়ে বহু সংখ্যক আলমারির মধ্যে একটি আলমারির তালা খুলে দিয়ে বই আনতে বলা হলে, সে স্বাভাবিকভাবেই তা করে দেখায়। ওই অবস্থায় একটি বইয়ের নির্দিষ্ট একটি পৃষ্ঠা বের করে পড়তে বললে সে তাও করে দেখায়। এমনকি ওই বই উল্টো করেও সাবলীলভাবে পড়ে দেখায় জিৎ। বিজ্ঞান অনুসারে, যখন কোন ব্যক্তি তার চোখের দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলে তখন তার অন্য চারটি ইন্দ্রিয়শক্তি বৃদ্ধি পায়। সে চোখে সরাসরি না দেখতে পেলেও, এসব ইন্দ্রিয় তাকে চারপাশের বিভিন্ন বস্তু সম্পর্কে জ্ঞান দেয়। কিন্তু জিৎ অন্ধ নয়, তার সম্পূর্ণ সুস্থ দুটি চোখ আছে। সে বিজ্ঞানের এ সূত্র ধরে দীর্ঘদিন মস্তিষ্কের ব্যায়ামের মাধ্যমে এ অসাধ্যকে সাধন করেছে। এর মাধ্যমে সে ওই সুপ্ত ইন্দ্রিয়গুলো ব্যবহারের সক্ষমতা অর্জন করেছে। এ অতিমানবীয় কাজটি আয়ত্ত করতে জিৎ একজন মনস্তাত্ত্বিক শিক্ষকের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়েছে। তার শিক্ষকের নাম ভারত প্যাটেল। জিৎ সম্পর্কে ভারত প্যাটেল বলেন, ইন্দ্রিয়শক্তির ওপর জিতের খুব ভাল নিয়ন্ত্রণ বা দখল রয়েছে। যদি আমরা তার কোন একটি ইন্দ্রিয় আচ্ছন্ন করে দেই বা ব্যাঘাত ঘটাই, তাহলে সে অন্যান্য ইন্দ্রিয়ের সাহায্যে কাজ সম্পন্ন করতে পারে। তিনি আরও বলেন, মস্তিষ্কের ব্যায়ামের মাধ্যমে সূক্ষ্ম ইন্দ্রিয়গুলোর কল্পনাতীত উন্নয়ন ঘটানো যায়। এটাকে ইংরেজীতে ‘সুপার সেন্সরি ডেভেলপমেন্ট’ বলা হয়ে থাকে। এ ব্যায়াম শারীরিকভাবে করানো হলেও এটি মূলত মন বা হৃদয়কে মিউজিকের মাধ্যমে বাহ্যিক দৃষ্টির মতো পূর্ণ জ্ঞান দেয়। -ইয়াহু নিউজ

শীর্ষ সংবাদ:
শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি এমপি আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ         শত শত সৌদি প্রবাসীর ভিসার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আজ         কুয়েতের নতুন আমির শেখ নওয়াফ আল-আহমদ আল সাবাহ         বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায় আজ         আর্মেনিয়ার যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে তুরস্ক         প্রতিদিন ভারতে ধর্ষণের শিকার ৮৭ জন         বহুল আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার রায় আজ         মঙ্গলে পানির উৎস পেল নাসা         উইঘুরদের পর এবার চীনের নিশানায় উতসুল মুসলিমরা!         প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিতর্কে প্রথম মুখোমুখি ট্রাম্প-বাইডেন         ২৮ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা ডিজনির         বন্ধ হবে নদী ভাঙ্গন ॥ বিদেশী প্রযুক্তির টেকসই প্রকল্প         কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সুসমন্বিত রোডম্যাপ প্রয়োজন ॥ প্রধানমন্ত্রী         প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কের জন্য প্রস্তুত বাইডেন-ট্রাম্প         সিলেটে দিনভর বিক্ষোভ ॥ আরেক আসামি গ্রেফতার তিনজন রিমান্ডে         ফের বেপরোয়া কিশোর গ্যাং ॥ চার মাসে চাঞ্চল্যকর ১৩ খুন         আমদানির পেঁয়াজ দ্রুত আসছে         দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে         বিদেশী বিনিয়োগের জন্য চাই শক্তিশালী পুঁজিবাজার ॥ সালমান রহমান         এইচএসসি পরীক্ষা ও শিক্ষাঙ্গন খোলার সিদ্ধান্ত শীঘ্রই