ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ঝিনাইদহে কবর থেকে কঙ্কাল ও হাড়গোড় চুরির গুজব

প্রকাশিত: ০৫:৫৮, ৩১ জুলাই ২০১৬

ঝিনাইদহে কবর থেকে কঙ্কাল ও হাড়গোড় চুরির গুজব

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ৩০ জুলাই ॥ হরিনাকু-ুর কয়েকটি পারিবারিক কবরস্থান থেকে মানুষের কঙ্কাল ও হাড়গোড় দুর্বৃত্তরা চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে বলে গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। তাহেরহুদা ইউনিয়নের গাজীপুর গ্রামের কয়েকটি পারিবারিক কবরস্থান থেকে এই কঙ্কাল চুরির ঘটনা ঘটছে বলে গ্রামবাসীর মুখে মুখে শোনা যাচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হরিনাকু-ু শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে গাজীপুর গ্রাম। গ্রামের অনেকেই জানান, জুলাই মাসের ১৩ তারিখে প্রথমে রমজান ব্যাপারির কবর খুঁড়ে হাড় চুরি হয়েছে। এরপর চক্রটি গত ২৬ ও ২৭ জুলাই রাতে পর্যায়ক্রমে একই গ্রামের নবীন আলী, ফজলুর রহমান, ইদ্রিস আলী, বুদো ও নিহাল ম-লের স্ত্রী ফাতেমা বেগমের কবর থেকে কঙ্কাল ও হাড়গোড় চুরি করে নিয়ে যায়। প্রতিটি কবরের মাঝামাঝি খুঁড়ে ওপর থেকে বাঁশের ‘আতালী’ সরিয়ে বিশেষ কৌশলে কবরের ভেতর থেকে লাশের হাড়গোড় তুলে নেয়া হচ্ছে। লাশের হাড় চুরির ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে একটি কবর থেকে কঙ্কাল চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। গাজীপুর গ্রামের মৃত ইদ্রিস আলীর ছেলে বাচ্চু ম-ল বলেন, ‘আমার পিতা বৃদ্ধ হয়ে মারা গেছেন ২০১৩ সালের ২৭ নবেম্বর। গত ২৮ জুলাই রাতে কে বা কারা তার কবর খুঁড়ে কঙ্কাল ও হাড়গোড় চুরি করে নিয়ে গেছে। কবরের ভেতরে টর্চলাইট দিয়ে দেখা গেছে কঙ্কাল নেই। মানুষের পায়ের চিহ্ন রয়েছে। তিনি বিষয়টি প্রশাসনকে জানিয়েছেন বলে জানান। কারা, কেন তার পিতার কবরের ভেতর থেকে কঙ্কাল চুরি করে নিয়ে গেছে তা তিনি বলতে পারেননি। তিনি কবর থেকে কঙ্কাল চুরি ও এই চোর চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। একই গ্রামের মৃত বদরউদ্দিনের ছেলের স্ত্রী সাগরিকা খাতুন বলেন, ‘আমার শ্বশুর দেড় বছর আগে মারা গেছেন। হঠাৎ সকালে দেখি কবরের মাটি খুঁড়ে ফেলা হয়েছে। আমাদের ধারণা কবর থেকে কঙ্কাল চুরি করার জন্যই হয়ত কেউ এভাবে কবরের মাটি খুঁড়েছে। তাহেরহুদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম বলেন, গাজীপুর গ্রামের কবরস্থান থেকে কঙ্কাল চুরির খবর পেয়ে দেখতে এসেছি। গ্রাম ঘুরে আমি শুধু ইদ্রিস আলী নামে এক ব্যক্তির কবর থেকে কঙ্কাল চুরির খবর জানতে পেরেছি। বাকি যাদের কথা শোনা যাচ্ছে, সেসব কবর এক/দেড় হাত করে খোঁড়া রয়েছে। কঙ্কাল চুরির কোন নমুনা দেখা যাচ্ছে না। হরিনাকুণ্ডু থানার ওসি মাহতাব উদ্দিন বলেন, কঙ্কাল চুরির খবর গুজব না সত্যি বোঝা যাচ্ছে না। খোঁজ-খবর নেয়ার জন্য থানা থেকে অফিসার পাঠানো হয়েছে। কঙ্কাল চুরির বিষয়টি এখনও সুনির্দিষ্টভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে একটি কবর থেকে কঙ্কাল চুরি হতে পারে এমনটি ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানান।
monarchmart
monarchmart