কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ১৭.২ °C
 
২৫ জানুয়ারী ২০১৭, ১২ মাঘ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যশোর বোর্ডে পাসের হার বেড়েছে

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ গত বছরের তুলনায় এবার পাসের হার বেড়েছে ৭ ভাগ, আর জিপিএ-৫ প্রাপ্তি বেড়েছে প্রায় ২৩শ’। এ বছর এ বোর্ডে পাসের হার ৯১ দশমিক ৮৫ ভাগ, জিপিএ-৫ প্রাপ্তি ৯ হাজার ৪৪৪। গত বছরের বিপর্যয়ের পর যশোর বোর্ড বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে তার বাস্তবায়ন করায় এবার এই অগ্রগতি হয়েছে বলে মনে করছেন বোর্ড কর্মকর্তারা। এবার যশোর বোর্ড থেকে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৬৪ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৯৯৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। এদের মধ্যে ছাত্র ৬৯ হাজার ২১৭ জন ও ছাত্রী ৬৬ হাজার ৭৭৭ জন। পাসের হার ৯১ দশমিক ৮৫ ভাগ। এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৪৪৪ শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ছাত্র ৫ হাজার ৮৫ ও ছাত্রী ৪ হাজার ৩৫৯ জন।

শীর্ষে সাতক্ষীরা, তলানিতে মাগুরা

যশোর শিক্ষা বোর্ডের আওতায় খুলনা বিভাগের ১০ জেলার মধ্যে চমক দেখিয়েছে সাতক্ষীরা জেলা। পাসের হারের দিক দিয়ে শীর্ষে রয়েছে এই জেলা। আর তলানিতে রয়েছে মাগুরা জেলা। সাতক্ষীরার পাসের হার ৯৪ দশমিক ৬৪ শতাংশ, আর মাগুরার এ হার ৮৭ দশমিক ২৫। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে খুলনা জেলা। এ জেলা থেকে ২২ হাজার ৮৩ শিক্ষার্থী পাস করেছে। পাসের হার ৯৩ দশমিক ০৮ শতাংশ। তৃতীয় অবস্থানে আছে নড়াইল জেলা। এ জেলা থেকে ৭ হাজার ৯২ শিক্ষার্থী কৃতকার্য করেছে। পাসের হার ৯২ দশমিক ৪২ শতাংশ। এরপরেই যশোরের অবস্থান। বোর্ডে চতুর্থ হওয়া এ জেলা থেকে ২৩ হাজার ৭০২ শিক্ষার্থী পাস করেছে। পাসের হার ৯২ দশমিক ১৪ শতাংশ। পঞ্চম অবস্থানে কুষ্টিয়া জেলা। এজেলা থেকে ১৭ হাজার ৬৯১ শিক্ষার্থী কৃতকার্য হয়েছে। পাসের হার ৯১ দশমিক ৩৪ শতাংশ। ৬ষ্ঠ অবস্থানে আছে ঝিনাইদহ জেলা। এখান থেকে ১৫ হাজার ৫৮৯ শিক্ষার্থী পাস করেছে। পাসের হার ৯০ দশমিক ৯৭। ৭ম স্থানে মেহেরপুর। এজেলা থেকে ৫ হাজার ৪৮৪ শিক্ষার্থী পাস করেছে। পাসের হার ৮৯ দশমিক ৯০। এরপর ৮ম অবস্থানে বাগেরহাট। এজেলা থেকে ১১ হাজার ৪৪২ জন কৃতকার্য হয়েছে। পাসের হার ৮৯ দশমিক ২৮। ৯ম অবস্থানে চুয়াডাঙ্গা জেলা। এখান থেকে ৮ হাজার ৩৪৭ জন কৃতকার্য হয়েছে। পাসের হার ৮৮ দশমিক ৮১।

তিন প্রতিষ্ঠানে কেউ পাস করেনি

তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি। যদিও গত তিন বছরে যশোর বোর্ডে শূন্যভাগ পাসের হারের কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছিল না। এবছর শূন্যভাগ পাসের হারের স্কুলগুলো হলো, সাতক্ষীরার উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বাগেরহাটের নেহালখালি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও একই জেলার সাবেরা ফেরদৌসী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। এর মধ্যে সাবেরা ফেরদৌসী স্কুল থেকে দুই জন ও অপর দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে একজন করে শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।

প্রকাশিত : ১২ মে ২০১৬

১২/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: