ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নৃত্য শিল্পিকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক ৫

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট

প্রকাশিত: ১৯:০৯, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

নৃত্য শিল্পিকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক ৫

গ্রেফতারকৃত সংঘবদ্ধ ধর্ষণকারি

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে এক নৃত্য শিল্পিকে অপহরণ করে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ৫ যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরও এক অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। 

শনিবার ভোররাতের দিকে উপজেলার ঘাটবিলা এলাকা থেকে এদের আটক করা হয়।

এ ঘটনায় শনিবার বিকেলে মামলার দায়েরের পর আটককৃদদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আছাদুল ইসরাম আসামীদের কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন।

আটককৃতরা হলেন, আরমান শেখ (১৯),রাজিব শেখ(১৯), সোহাগ(১৮), নাসিম মোল্লা (১৯) ও করিম (২২)। এদের বাড়ি মোল্লাহাট উপজেলার কাহালপুর গ্রামে।

নির্যাতিতা ওই নৃত্য শিল্পির বাড়ি বাগেরহাট সদর উপজেলায়। তিনি স্বামী সন্তানসহ ফকিরহাট উপজেলা সদরে ভাড়া থাকতেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে মোল্লাহাট উপজেলার সরসপুর গ্রামে হৃদয়ের বাড়িতে বিয়ে উপলক্ষে নাচতে আসেন ভিকটিম ওই নৃত্য শিল্পী। নাচ শেষে গভীর রাতে ফকিরহাটে বাড়ি পৌছে দেবার জন্য ওই নারী ও তার স্বামীকে ভিন্ন ভিন্ন মোটরসাইকেলে করে রওনা দেয় কয়েকজন যুবক। যুবকরা ওই নারীকে এক সড়কে এবং তার স্বামীকে ভুল বুঝিয়ে অন্য সড়কে নিয়ে যায়। 

এক পর্যায়ে তারা ওই নৃত্য শিল্পীকে জোরপূর্বক ঘাটবিলা এলাকায় উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুল আলম ছানা মিয়ার জমিতে থাকা পরিত্যাক্ত টিন শেডের ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে ৮জন মিলে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

স্থানীয়রা টের পেয়ে অভিযুক্ত চারজনকে আটক করে টহলরত হাইওয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরে মোল্লাহাট থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরও এক অভিযুক্তকে আটক করে। এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে ৮জনকে আসামী করে মোল্লাহাট থানায় মামলা দায়ের করেছেন। অন্য আসামীদের আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে।

থানার ওসি এস এম আশরাফুল আলম বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় ৫ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে বাগেরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

 

শহিদ

×