বুধবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

রৌমারীতে সেতু আছে সড়ক নেই ॥ চরম দুর্ভোগ

  • ঠিকাদারের গাফিলতি

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ রৌমারী উপজেলায় ইজলামরী গ্রামের জিঞ্জিরাম নদীর ওপর ও বড়াইবাড়ি গ্রামের ধরনী নদীর ওপর সেতু নির্মাণ করা হলেও সংযোগ সড়ক না থাকায় জনসাধারণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কর্মহীন হয়ে পড়েছে শতাধিক অটোরিক্সা, অটোভ্যান ও অটোবাইক চালক। মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। দুর্ঘটানার শিকার হয়ে পঙ্গু জীবনযাপন করছেন অনেকেই। এ বিষয়ে বিভিন্ন দফতরে জানানো হলেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ।

আরডিআইআইপি-২ আওতায় ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয়ে ইজলামারী ৮৫ মিটার সেতু নির্মাণ কাজ শেষ হলেও দুই মাথায় সংযোগ সড়কে মাটি ভরাট না করায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অপরদিকে বিলুপ্ত সিট মহল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে বড়াইবাড়ী ধরনী নদী ওপর ৬৬ মিটার সেতু নির্মাণ কাজ শেষ হলেও একই অবস্থায় রয়েছে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার রৌমারী সদর ইইনিয়নের ইজলামারী, পূর্ব ইজলামারী, নামা বারবান্দা, বারবন্দা, কলাবাড়ি, বড়াইবাড়ি, চুলিয়ারচর, বাওয়ারগ্রাম, ঝাউবাড়িসহ অর্ধশতাধিক গ্রামের মানুষ এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করে থাকেন। এখানে ২টি বিজিবি ক্যাম্প, ৫টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৩টি হাফেজিয়া মাদ্রাসাসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। রৌমারী উপজেলা সদর হতে রাস্তাটি ইজলামারী হয়ে বড়াইবাড়ি গ্রামের রাস্তায় মিলিত হয়। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ২০ হাজার মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। অটোবাইক চালক জাইদুল জানান, ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে সেতুর দুই পাশে মাটি ফেলানো হয়নি। ফলে আমরা গাড়ি নিয়ে বিপাকে পড়েছি।

সাবেক সংসদ সদস্য রুহুল আমিন বলেন, ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে ইজলামারী সেতুর দুই পাশে মাটি ভরাট না করেই তারা চলে যায়। যার কারণে আমার এলাকার প্রায় ৫০টি গ্রামের মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আমি নিজেই বিভিন্ন দফতরে বিষয়টি জানিয়েছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি।

রৌমারী উপজেলা প্রকৌশলী মেজবাহউল হক বলেন, সেতুর কাজ কয়েকমাস আগে শেষ হয়েছে। মাটি না পাওয়ার কারণে দুই পাশে ভরাট করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে মাটি পাওয়া গেল দ্রুত মেরামত করা হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
রোহিঙ্গাদের উচিত এখন নিজ দেশে ফিরে যাওয়া         জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম আর নেই         জাপানে ওমিক্রন শনাক্ত         শতবর্ষের আলোয় আলোকিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়         রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ল এক মাস         আগাম জামিন নিতে আসা শংক দাস বড়ুয়া কারাগারে         করের টাকাই দেশের উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি         সারা দেশে হাফ ভাড়া দাবিতে ৯দফা কর্মসূচি শিক্ষার্থীদের         বাংলাদেশকে ২০ লাখ টিকা দিলো ফ্রান্স         ডিআরইউ’র সভাপতি মিঠু, সম্পাদক হাসিব         আরও একমাস বাড়লো আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময়         জাতীয় অধ্যাপক রফিকুলের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক         ৬০ বছরের বেশি বয়সী নাগরিকদের বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী         করোনা : ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ১.৩৪         দিনে ময়লার গাড়ি চালানো যাবে না : মেয়র আতিক         আগামী ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন         দক্ষিণ সিটি’র আরেক গাড়িচালক বরখাস্ত         গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর ১ ডিসেম্বর থেকে         জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম আর নেই         কেউ অপরাধ করে পার পাবে না ॥ সেতুমন্ত্রী